Monday , July 22 2024
Breaking News
Home / Entertainment / বেশ চটেছেন অভিনেত্রী ববিতা, বললেন এসব দেখার কী কেউ নেই

বেশ চটেছেন অভিনেত্রী ববিতা, বললেন এসব দেখার কী কেউ নেই

বাংলা রুপালী জগতের অন্যতম স্বনামধণ্য ও কিংবদন্তি অভিনেত্রী ফরিদা আক্তার পপি ওরফে ববিতা। ক্যারিয়ারে অসংখ্য ব্যবসায় সফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। তবে বেশকিছু বছর হলো অভিনয় থেকে নিজেকে অনেকটা আড়াল করে নিয়েছেন গুণী এই অভিনয় শিল্পী। এই মুহুর্তে সাংসারিক বিভিন্ন কাজ নিয়ে অনেকটা ব্যস্ত সময় পার করতে হচ্ছে তাকে।

 

তবে সম্প্রতি একটি বিষয় নিয়ে বেশ চটেছেন তিনি। তাঁর ক্ষোভ, ‘যে কেউ চাইলেই আরেকজনের নামে কীভাবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে বুঝি না। এসব দেখার কী কেউ নেই।’ অভিনেত্রী ববিতা জানান, কয়েক বছর ধরে তিনি লক্ষ্য করছেন তাঁর নামে একাধিক ফেসবুক আইডি চালু আছে। অথচ আজ পর্যন্ত তিনি কোনো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেননি।

ববিতা বলেন, এসব অ্যাকাউন্টে তাঁর ছবিসহ নানা স্ট্যাটাস পোস্ট করে আসছে অশুভ চক্র। এতে তিনি খুব উদ্বিগ্ন। কারণ এসব অ্যাকাউন্টে কেউ যদি দেশ বা ধর্মবিরোধী কোনো স্ট্যাটাস দিয়ে ফেলে তাহলে নিজেই বিপাকে পড়তে পারেন। বর্তমানে কানাডায় থাকা এই অভিনেত্রী বলেন, অবাক করার মতো ব্যাপার হলো, আমার পুত্র অনিকের নামেও বেশ কিছু ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে।

তিনি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশ সরকারের কাছে এর প্রতিকার চেয়েছেন। ববিতা বলেন, শুধু সেলিব্রেটি বা হাই প্রোফাইল ব্যক্তিত্বদের নামে নয়, সাধারণ অনেক মানুষের নামেও ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলে নানাভাবে হয়রানি ও ব্ল্যাকমেইল করে আসছে দুষ্কৃতকারীরা। এটি একজন মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনের ক্ষেত্রে আতঙ্ক ও হুমকি। এ অবস্থার অবসানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরও হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অভিনেত্রী ববিতা।

প্রসঙ্গত, সিনেমা জগতে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে ১৯৬৮ সালে ‘সংসার’ সিনেমার মধ্য দিয়ে। তবে পরবর্তীতে ‘অশনি সংকেত’ সিনেমার মাধ্যমে সবার নজরে আসেন তিনি। কর্মজীবনে প্রায় ৩৫০টি সিনেমায় অভিনয় করে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে রয়েছেন এই অভিনেত্রী।

About

Check Also

বিনোদন জগতে শোকের ছায়া, মারা গেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপর্ণা

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিনা খান। জানা গেছে তিনি স্তন ক্যান্সারে ভুগছেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *