Tuesday , July 23 2024
Breaking News
Home / Countrywide / বেরিয়ে এলো এরশাদ শিকদারের কন্যার আত্মহননের মুল কারন

বেরিয়ে এলো এরশাদ শিকদারের কন্যার আত্মহননের মুল কারন

সারাদেশের একসময়কার বহুল সমালোচিত এরশাদ শিকদারের দ্বিতীয় স্ত্রীর কনিষ্ঠ কন্যা জান্নাতুল নাওরিন( Jannatul Naorin ) এশা (২২) আত্ম”হননের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাজিক গনমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনায় আসেন। এই ঘটনায় তার কথিত প্রেমিক প্লাবন ঘোষ নামের একজন যুবকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। গত শুক্রবার (৪ মার্চ) রাত এশার মা সানজিদা নাহার বাদী হয়ে গুলশান থানায় মামলাটি দায়ের করেন। গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান( Abul Hasan ) গনমাধ্যম কর্মীদের সংশ্লীষ্ট তথ্যটি নিশ্চিত করে জানান, প্লাবনের সাথে নাওরিন এশার বাকবিতন্ডের জেরে এশা আত্মহনন করেছেন বলে মামলার এজাহারে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তাই আত্ম”হননের জন্য উৎসাহিত করার অভিযোগ উঠেছে এশার প্রেমিক প্লাবনের বিরুদ্ধে।

এক সময়ের সন্ত্রাসী এরশাদ( Ershad ) সিকদারের মেয়ে জান্নাতুল নাওরিন( Jannatul Naorin ) এশা (২২) ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মে আসক্ত ছিলেন। তার জীবনধারা ছিল ভিন্ন। প্লাবন ঘোষ (২৪) নামের এক যুবকের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। প্রেমিকের সঙ্গে মতবিরোধের জেরে ভিডিও কলে এশা আত্মহনন করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এমনকি তাদের মোবাইল ফোনে কলের ঘটনাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি এমনকি মারধরও হয়েছে। জানা গেছে, ঘটনার আগে ভোর পর্যন্ত বাড়িতে ছিলেন না এশা। সারা রাত( Night ) তিনি তার প্রেমিক প্লাবন ঘোষের( Plavan Ghosh ) সঙ্গে ছিলেন।

ভোর ৫টার দিকে এশা ঘরে ঢোকে।( Entered. ) এর কিছুক্ষণ পর সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহনন করে। গত শুক্রবার (৪ মার্চ) সকালে( In the morning ) রাজধানীর গুলশানের( Gulshan ) শাহজাদপুরে( In Shahjadpur )র সুবাস্তু টাওয়ারের বাসায় এ ঘটনা ঘটে। এশার মা সানজিদা আক্তার (৪৮) বহুল আলোচিত সন্ত্রাসী এরশাদ( Ershad ) শিকদারের দ্বিতীয় স্ত্রী। সানজিদার দাবি,আ”ত্মহননের সময় প্লাবনের সঙ্গে ভিডিও কলে রেখে এশা আত্মহনন করেছে। সানজিদা আখতারের দাবি, সারা রাত( Night ) প্লাবনের সঙ্গে বাইরে ছিলেন এশা। এশা আত্মহননের পর এ ঘটনায় প্রেমিক প্লাবন ঘোষের( Plavan Ghosh ) বিরুদ্ধে মামলা করেন সানজিদা আক্তার।

গুলশান থানায় দায়ের করা মামলায় প্লাবনের বিরুদ্ধে আত্ম”হননের উৎসাহিত করার অভিযোগ আনা হয়েছে। পুলিশের দাবি প্লাবন এখন পলাতক। গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান( Abul Hasan ) বলেন, আসামি প্লাবনকে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা যায়নি। তিনি পলাতক রয়েছেন। তবে আমরা আশা করছি শীঘ্রই তাকেই ধরে ফেলার বিষয়ে আশাবাদী। আমরা তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছি। একই সঙ্গে ঘটনার বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছে পুলিশ।( The police. ) এশার মা সানজিদা আক্তার বলেন, প্লাবনের ভাষ্যমতে এশা তার সঙ্গে ছিল। তারপর রাত ১টার পর আবার ফোন করি। তখন প্লাবন বলল, এশা পাগলের মতো আচারন করছে, সবকিছু তোলপাড় করছে। তারপর প্লাবনকে বলি, আমার মেয়ের কিছু হলে সব দোষ তোমার। এরপর রাত( Night ) সাড়ে তিনটার দিকে বাড়ির দারোয়ানকে ফোন করি। আমি জিজ্ঞেস করলাম সে এশাকে দেখেছে কিনা।

তারপর দাওয়ান আমাকে বলল যে এশা এবং প্লাবন বাড়ির সামনে ঝগরা করছিল। প্লাবনের সঙ্গে গাড়ি ছিল। ওরা দুজন মনে হয় সারারাত( All night )( Night ) রাস্তায় ঘুরে বেরিয়েছে। ভোরের পর প্লাবনের সাথে আর কথা বলিনি। আমি তার শাস্তি চাই। এশার এই ঘটনার সাথে প্লাবন যুক্ত কিভাবে নিশ্চিত হলেন,এমন প্রশ্নের জবাবে সানজিদা আক্তার বলেন ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে দেখি এশা ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে। আর ফোনটি বালিশে এবং দেয়ালে এমনভাবে রাখা ছিল যাতে দেখতে পান এশা ঝুলে আছে। আত্মহননের পরপরই প্লাবনের কথা শুনে মনে হয় সে সব দেখেছে। গুলশান থানায় দায়ের করা মামলার এজাহারে বলা হয়, প্লাবন বৃহস্পতিবার রাত( Night ) সাড়ে ৯টার( ৯টার ) দিকে শাহজাদপুরে( In Shahjadpur ) বাড়িতে যান।

এরপর প্লাবন এশা ও তার বান্ধবী খন্দকার সুমি( Sumi ) আক্তারকে( Khandaker to Sumi Akhtar ) নিয়ে বেড়াতে যান। সুমি( Sumi ) জানায়, ফোনালাপ নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কা’টাকাটি হয়। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রাত( Night ) ১১টার দিকে সুমি( Sumi ) তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। কিন্তু, সুমি( Sumi ) তাদের মধ্যে মীমাংসা করতে ব্যর্থ হয়। পরে এশা ও প্লাবন সুমি( Sumi )র বাড়ি থেকে চলে যায়। এরপর ভোর ৫টার দিকে এশা বাসায় ফিরে ঘরের দরজা বন্ধ করে দেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ওই সময় সানজিদা বাড়ির ড্রয়িংরুমে ঘুমিয়ে ছিলেন। প্লাবন তখন এশার মা সানজিদাকে ফোন করে জানায় যে এশা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহ”ননের চেষ্টা করছে। পরে সানজিদা তড়িঘড়ি করে দরজা খুলতে গিয়ে দেখে দরজা ভিতর থেকে আটকানো। পরে বাড়ির নিরাপত্তারক্ষী ও অন্যরা দরজা ভেঙে এশাকে ফ্যানের সঙ্গে স্কার্ফ জড়িয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, আত্মহ’নন ঘটনার পর সানজিদা সুমি( Sumi )র মাধ্যমে জানতে পারেন যে, এশা ও প্লাবনের ধর্ম ভিন্ন হওয়ায় জান্নাতুল নাওরিন( Jannatul Naorin ) এশাকে আত্মহ’ননের করতে বাধ্য করেছে।

উল্লেখ্য, উক্ত মামলায় এখনো কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। ওসি আবুল হাসান( Abul Hasan ) আরো জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাত( Night )ে( Thursday night ) গুলশানের( Gulshan ) সুবাস্তু টাওয়ারে নিজ বাসায় গলায় ফাঁ”স দিয়ে আত্মহ’নন করেন এরশাদ( Ershad ) ও সানজিদার কনিষ্ঠ কন্যা জান্নাতুল নাওরিন( Jannatul Naorin ) এশা। শুক্রবার সকালে( In the morning )র দিকে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ( Dhaka Medical College ) (ডিএমসি( DMC )) হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক এশাকে প্রয়াত ঘোষণা করেন।

About Syful Islam

Check Also

ধোঁয়া আর বারুদের গন্ধে উত্তপ্ত জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জ্যাব) কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারশেল-সাউন্ড গ্রেনেড নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। শিক্ষার্থীরাও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *