Monday , July 22 2024
Breaking News
Home / Exclusive / কমছে বাংলাদেশের মানুষের কর্মক্ষমতা, কারন উঠে এলো গবেষনায়

কমছে বাংলাদেশের মানুষের কর্মক্ষমতা, কারন উঠে এলো গবেষনায়

পৃথিবীর বায়মন্ডলের স্তরের সাথে সাথে তাপমাত্রা বেড়ে চলেছে ভূ-পৃষ্টের। এ দিকে পৃথিবীর শহরগুলোতে জনসংখ্যাও দিন দিন বেড়ে চলেছে যেটা ভাবলেই অবা’ক হতে হয়। আর উষ্ণতা বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে বিশ্বের যে সকল শহর রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষ’তিগ্রস্ত শহরের তালিকাতে প্রথম দিকে অর্থাৎ শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। বিবিসি থেকে পাওয়া খবর।

একটি বৈশ্বিক গবেষণায় দেখা গেছে যে, চ’রম তাপমাত্রার কারনে মানুষের মধ্যে বেড়ে চলেছে অসুস্থতা এবং তার কারনে মৃ’/ত্যুর প্রবণতাও বেড়ে চলেছে। তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে বাংলাদেশের মানুষ কিছু সময় কাজ করার পরে ক্লান্ত হয়ে পড়েন যার কারনে কর্মক্ষমতা হ্রাস পাচ্ছে। গবেষণাটি গত সোমবার আমেরিকান একটি বিজ্ঞান বিষয়ক জার্নাল প্রসিডিংস অফ দ্যা ন্যাশনাল একাডেমি অব সায়েন্সে প্রকাশিত হয়েছে।

চরম তাপমাত্রার দ্রুত বৃদ্ধির তালিকায় সবচেয়ে ক্ষ’তিগ্রস্ত দেশের তালিকার শীর্ষে ভারতের পরেই রয়েছে বাংলাদেশ। গবেষণায় বলা হয়েছে, ১৯৮৩ সালে ঢাকার জনসংখ্যা ৪০ লাখ থাকলেও এখন দুই কোটি ২০ লাখ মানুষ বসবাস করে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. নাজনীন আফরোজ হক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমকে বলছেন, তাপমাত্রা বেশি হলে মানুষ খুব দ্রুত ক্লান্ত হয়ে পড়ে। আর ক্লান্ত হলে তো স্বাভাবিকভাবেই তার কাজের ক্ষমতা কমে যায়। ঢাকার ক্ষেত্রেও ঠিক তাই হচ্ছে।

পাশাপাশি অনেক মানুষ বসবাসের কারণে যানজটের তৈরি হয়, সেটিও মানুষের গতি ও ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। গবেষকরা ১৯৮৩ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ৩৩ বছর ধরে বিশ্বের ১৩ হাজার শহরে উষ্ণতা ও আর্দ্রতা পর্যবেক্ষণ করেছেন।

যেসব শহরে ৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে তাপমাত্রা থাকে, তাকেই তারা চরম তাপমাত্রা হিসাবে বিবেচনায় নিয়েছেন। এর পর অন্য শহরগুলোর বাসিন্দাদের তথ্যের সঙ্গে সেগুলো তুলনা করে দেখেছেন।

গবেষণায় বলা হয়েছে— যদিও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি এবং জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি পাচ্ছে, কিন্তু অনেক শহরে জনসংখ্যার দ্রুত বৃদ্ধির কারণে সেখানে তাপমাত্রাও চর’মভাবে বাড়ছে। বিশেষ করে গত কয়েক দশকে লাখ লাখ মানুষ গ্রামীণ এলাকা থেকে শহরে আসায় সেখানে দ্রুত জনসংখ্যার বৃদ্ধি হয়েছে। সেই সঙ্গে বেড়েছে তাপমাত্রা।

যুক্তরাষ্ট্রের কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ইউনিভার্সিটি অব মিনেসোটা, ইউনিভার্সিটি অব অ্যারিজোনা এবং ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার একদল গবেষক যৌথভাবে এই গবেষণাটি পরিচালনা করেন।
গবেষণায় দেখা গেছে যে, অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি এবং জীবনযাত্রার মান ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে যেটা একটি ইতিবাচক দিক বাংলাদেশের জন্য, কিন্তু শহর এলাকায় এই দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে তাপমাত্রা বৃদ্ধির যে হার সেটাও দ্রুত বৃদ্ধি পাওয়ার বিষয়টি পরিলক্ষিত হচ্ছে। বিশেষ করে এই বিষয়টি দেখা গেছে গত কয়েক দশকে। এই সময়ে লক্ষ লক্ষ মানুষ গ্রামাঞ্চল থেকে শহর-নগরের দিকে এসেছে, যার ফলে শহর এলাকায় জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই সাথে তাল মিলিয়ে বেড়েছে তাপমাত্রা।

About

Check Also

এখনো পরিচয় মেলেনি, মায়ের লাশের পাশে বসে কান্না করা আলোচিত সেই শিশুটির

৩০ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নিহত নারীর লাশের পাশে কান্না করা শিশুটির পরিচয় পাওয়া যায়নি। মর্গে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *