Friday , July 19 2024
Breaking News
Home / National / এবার ইউনেস্কোর অনুষ্ঠানে বিশ্বের প্রতি ৪ পরামর্শ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

এবার ইউনেস্কোর অনুষ্ঠানে বিশ্বের প্রতি ৪ পরামর্শ দিলেন প্রধানমন্ত্রী

দীর্ঘ সময় ধরে বাংলাদেশ সহ গোটা পৃথিবী জুড়ে বিরাজ করছে ভাইরাস ভীতি। এই ভাইরাসের প্রকোপে দেখা দিয়েছে নানা ধরনের সংকট। তবে এই সংকট মোকাবিলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার প্রধান নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। সম্প্রতি ইউনেস্কোর ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশ্বের প্রতি ৪ পরামর্শ দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

কো/ভি/ড-১৯ পরিস্থিতিতে বৈশ্বিক মানবতার অভিন্ন স্বার্থে দৃঢ় অংশীদারিত্ব গড়ে তোলার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার (১২ নভেম্বর) স্থানীয় সময় বিকালে ইউনেস্কোর ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে তিনি এ আহ্বান জানান। ইউনেস্কো সদরদফতরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার সহিষ্ণুতা ও মর্যাদা সঞ্চারিত করার মাধ্যমে শান্তির বার্তা ছড়িয়ে দিচ্ছে। তিনি বলেন, এ লক্ষ্যে আমরা শিক্ষা, বিজ্ঞান, সংস্কৃতি এবং যোগাযোগকে কার্যকর হাতিয়ার হিসাবে বেছে নিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইউনেস্কোর নীতির প্রতি বাংলাদেশের অঙ্গীকার ১৯৭২ সালে আমাদের প্রাথমিক সদস্যপদ লাভের মাধমে প্রতিফলিত হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শান্তি-কেন্দ্রিক পররাষ্ট্রনীতি দ্বারা পরিচালিত বাংলাদেশ সর্বদা বিশ্ব শান্তি উদ্যোগের অগ্রভাগে আছে। শেখ হাসিনা বলেন, বৃত্তি প্রদান, লিঙ্গ-সংবেদনশীল দৃষ্টিভঙ্গি, স্কুল ফিডিং প্রোগ্রাম, আইসিটি শিক্ষার মতো পদক্ষেপের মাধ্যমে শিক্ষায় আমাদের বিনিয়োগ প্রচুর। তিনি বলেন, তাঁর সরকার স্কুলে বছরের শুরুতে প্রায় ৪ কোটি ২০ লাখ শিক্ষার্থীর মধ্যে বিনামূল্যে ৪০ কোটি পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা আমাদের শিক্ষা মহাপরিকল্পনায় আইসিটি চালু করেছি, এর আওতায় প্রায় ৮৩ হাজার স্কুলকে আইসিটি ডিভাইস সরবরাহ করা হয়েছে এবং ৩ লাখ ২৬ হাজার ৯ শ’ ৩৬ জন শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইউনেস্কোর ৭৫তম বার্ষিকীতে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য সংস্থার মহাপরিচালককে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ইউনেস্কো বিশ্বের জন্য আশা ও শান্তির প্রতীক হয়ে উঠেছে। এ অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ এটি আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন একই সময়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বৃহস্পতিবার ‘সৃজনশীল অর্থনীতি’র জন্য ইউনেস্কো-বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান আন্তর্জাতিক পুরস্কার’ প্রদান অনুষ্ঠানে যোগদানের কথা স্মরণ করেন। তিনি বলেন, ‘এই আন্তর্জাতিক পুরস্কার অবশ্যই সৃজনশীল উদ্যোক্তা বিকাশে উৎসাহ যোগাবে।’ মহামারি বহু মানুষের জীবন কেড়ে নিয়েছে এবং আমাদের জীবন বদলে দিয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এটি উদ্ভাবনী কাজ এবং গতির মাধ্যমে বেঁচে থাকতেও শিখিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী মহামারি থেকে পুনরুদ্ধারের পথে থাকা বিশ্বের সামনে চারটি পরামর্শ তুলে ধরেন।

প্রধানমন্ত্রী তার প্রথম পরামর্শে বলেন, ‘মহামারি আমাদের শিক্ষা ব্যবস্থাকে মারাত্মকভাবে ব্যাহত করেছে। এটি পুনরুদ্ধারে ডিজিটাল সরঞ্জাম ও পরিষেবা, ইন্টারনেট অ্যাক্সেস, ডিজিটাল বিষয়বস্তু এবং শিক্ষকদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে বিনিয়োগ করে শিক্ষাকে অগ্রাধিকার দিতে আমাদের একটি বৈশ্বিক পরিকল্পনা দরকার।’

দ্বিতীয়ত—প্রযুক্তি-সহায়ক অর্থপূর্ণ শিক্ষার পরিবেশ তৈরির জন্য অবশ্যই সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব গড়তে হবে।

তৃতীয় পরামর্শে বলেন, কো/ভি/ড-১৯ ভ্যাকসিনকে অবশ্যই একটি ‘বৈশ্বিক গণপণ্য’ বিবেচনা করা উচিত।

শেষ পরামর্শে তিনি বলেন, আমাদের জনগণের কল্যাণের জন্য প্রযুক্তি স্থানান্তরকে গুরুত্ব দিয়ে বিজ্ঞান ও বৈজ্ঞানিক গবেষণার সুবিধাকে কাজে লাগাতে হবে।

ইতিমধ্যে ভাইরাসে সৃষ্ট সকল সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশের বর্তমান সরকার শেখ হাসিনা নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এছাড়াও তিনি দেশের উন্নয়নের লক্ষ্যে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। এবং দেশকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশের কাতারে সামিল করতে মোকাবিলা করছেন নানা ধরনের চ্যালেন্জ।

About

Check Also

জাহ্নবী কাপুরের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

মন্দিরের সিঁড়ির একপাশে অসংখ্য ভাঙা নারিকেল। তার পাশে থেকে হামাগুড়ি দিয়ে উপরে উঠছেন বলিউড অভিনেত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *