Sunday , July 21 2024
Breaking News
Home / Entertainment / আমার খুব চিন্তা হতো, এই গুঞ্জন হৃতিকের দাম্পত্যে প্রভাব ফেলতে পারে: কারিনা

আমার খুব চিন্তা হতো, এই গুঞ্জন হৃতিকের দাম্পত্যে প্রভাব ফেলতে পারে: কারিনা

বলিউড ইন্ডাষ্টিতে অসংখ্য অভিনেতা-আভিনেত্রী রয়েছে। তবে প্রায় সময় অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী একে অন্যের সঙ্গে প্রেম সম্পর্ককে ঘিরে ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে আলোচনা-সমালোচনার সম্মুখীন হয়েছেন। আসলে তারকা ব্যক্তিদের নিয়ে সাধারন মানুষের কৌতুহলির শেষ নেই। বলিউড ইন্ডাষ্ট্রিতে হৃতিক এবং কারিনাও প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে বেশ আলোচনায় ছিলেন। সম্প্রতি তাদের প্রসঙ্গে বেশ কিছু কথা উঠে এসেছে প্রকাশ্যে।

হৃতিক রোশন এবং কারিনা কাপুর খান দুইজনেই বলিউডের জনপ্রিয় তারকা। এক সময়ে এই দুইজনের সম্পর্ক নিয়ে নিয়মিতই চর্চা হতো। কারিনা কাপুর তখনও ‘খান’ হয়ে ওঠেননি। তবে হৃতিক ছিলেন বিবাহিত। গুঞ্জন রয়েছে, হৃতিকের প্রেমে কারিনা এতটাই মগ্ন ছিলেন যে নিজের প্রায় সব কিছুই ভুলতে বসেছিলেন। এমনকী হৃতিকের জন্য অভিনয় পর্যন্ত ছেড়ে দিতে রাজি ছিলেন অভিনেত্রী। ২০০১ সালে করন জোহর পরিচালিত ‘কভি খুশি কভি গম’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেন হৃতিক-কারিনা। এরপরই তাদের কাছে আসার গল্প শুরু হয়। এর পরে একাধিক ছবিতে একসঙ্গে জুটি বেঁধে কাজ করেন তারা। ছবিগুলি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়লেও হৃতিক-কারিনার সম্পর্ক গাঢ় হতে থাকে। পেশাগত সম্পর্কের বাইরেও বাড়তে থাকে ঘনিষ্ঠতা। তবে ঠিক সেই সময়ে দু’জনের মাঝখানে এসে দাঁড়ায় হৃতিকের পরিবার। হৃতিকের জীবন থেকে সরে যেতে অনুরোধ করা হয় কারিনাকে। পরবর্তী কালে কারিনা অবশ্য এই সব কিছুকেই গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিয়েছিলেন। সেই সময় এক সাক্ষাৎকারে কারিনা বলেছিলেন, আমার খুব চিন্তা হতো এই ভেবে যে এই গুঞ্জন হৃতিকের দাম্পত্যে প্রভাব ফেলতে পারে। আমারও পেশাগত ক্ষেত্রে ক্ষতি হতে পারত। এসব ঘটনার পর কেটে গেছে এক দশক। কিন্তু আর কোনো ছবিতে একসঙ্গে দেখা যায়নি কারিনা-হৃতিককে।

হৃতিক এবং কারিনা দীর্ঘ সময় ধরে বলিউড ইন্ডাষ্ট্রিতে কাজ করছেন। এমনকি তারা দুজনে জুটি হয়ে একে অন্যের সঙ্গে বেশ কয়েকটি সিনেমায় কাজ করেছেন। তাদের দুজনেরই বেশ জনপ্রিয়তা রয়েছে। এমনকি পরিচিতি রয়েছে বিশ জুড়ে।

About

Check Also

বিনোদন জগতে শোকের ছায়া, মারা গেছেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী অপর্ণা

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী হিনা খান। জানা গেছে তিনি স্তন ক্যান্সারে ভুগছেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *