এক সময়ের জাতীয় দলের অন্যম জনপ্রিয় ও নিয়মিত পরিচিত মুখ ছিলেন নাসির হোসেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি খেলে গেছেন দলের হয়ে। তবে একটা সময়ে ভাটা পড়ে তার ক্যারিয়ারে। ফর্ম হারিয়ে ও নানা ধরনের সব বিতর্কে জড়িয়ে তার ক্যারিয়ার পড়ে হুমকির মুখে।শেষ প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে খেলেছেন বাংলাদেশের হয়ে। এরপর থেকে প্রতি মৌসুমেই শোনা যায়, জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টার কথা। কিন্তু জাতীয় দলে আর ফেরা হয় না তার।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

এবার নতুন করে স্ত্রী তামিমা তাম্মির ইচ্ছাপূরণের জন্য জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টায় নেমেছেন একসময়কার মি. ফিনিশারখ্যাত নাসির। গত ফেব্রুয়ারিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন নাসির। বিয়ের পর তার স্ত্রী জানিয়েছিলেন, তার ইচ্ছা হলো নাসির আবার জাতীয় দলে ফিরুক।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছর হারিয়ে গেছে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে। নিয়মিত সূচিতে হয়নি কিছুই। তবে আগামী মাসে হতে চলেছে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট জাতীয় লিগ। স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণে ঘরোয়া ক্রিকেটের এসব টুর্নামেন্টে ভালো করার মাধ্যমেই জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টা করছেন নাসির।

বুধবার মিরপুরের একাডেমি ভবনের সামনে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে, প্রসঙ্গক্রমে প্রশ্ন আসে নাসিরের স্ত্রীর সেই ইচ্ছার ব্যাপারে। উত্তরে তিনি বলেন, ’অবশ্যই চেষ্টা করবো। যতদিন ক্রিকেট খেলবো আমি চেষ্টা করবো জাতীয় দলে ফিরতে। এটাই সব খেলোয়াড়ের স্বপ্ন। আমারও স্বপ্ন আবার যাতে জাতীয় দলে কামব্যাক করতে পারি।’

প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে জাতীয় দলে না থাকলেও, নাসিরের ভক্ত-সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীর সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। তাদের ভালোবাসার প্রতিদান দেয়ার জন্য হলেও জাতীয় দলে ফিরতে চান নাসির। ভক্তদের ধন্যবাদ জানিয়ে আরও দোয়ার আর্জি জানিয়েছেন এ অলরাউন্ডার।

তিনি বলেছেন, ’তাদের (ভক্তদের) ভালোবাসার প্রতিদান আমি জাতীয় দলে ফেরার মাধ্যমে দিতে চাই। তাদের উদ্দেশ্যে আমি এতটুকুই বলবো যে, তারা সবসময় আমাকে সাপোর্ট করে আসছে। তাদের কাছে আমি দোয়া চাচ্ছি। ইনশাআল্লাহ আমি আবার জাতীয় দলে কামব্যাক করবো।’

ফেরার জন্য কী কী করছেন জানতে চাওয়া হলে নাসির বলেন, ’ফেরার জন্য আসলে ট্রেনিংয়ের বিকল্প নেই। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে ফিটনেসের ওপর বেশি কাজ করছি। যেহেতু করোনার জন্য আমরা (অনুশীলনের জন্য) উইকেট ওভাবে পাচ্ছি না। আমার বিশ্বাস, আমরা এখন উইকেট পাবো। তো অবশ্যই ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই হবে।’

প্রসঙ্গত, মেয়ে বন্ধুর সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন নাসির। এরপর থেকেই তার নামে প্রকাশ পায় একের এক সব ঘটনা। এরপর তিনি বিয়ে করেন। তবে নামটি যেহেতু নাসির তার সমালোচনা তাকে ছাড়বে কেন। তাই বিয়ের পরে আরো বেশি সমালোচিত হতে থাকেন তিনি। বিশেষ করে তার স্ত্রীর দ্বিতীয় বিয়ে তিনি সব থেকে বেশি সমালোচিত হন।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

স্ত্রীর একটি ইচ্ছা পূরণে আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন নাসির হোসেন
Logo
Print

খেলাধূলা Hits: 1001

 

এক সময়ের জাতীয় দলের অন্যম জনপ্রিয় ও নিয়মিত পরিচিত মুখ ছিলেন নাসির হোসেন। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি খেলে গেছেন দলের হয়ে। তবে একটা সময়ে ভাটা পড়ে তার ক্যারিয়ারে। ফর্ম হারিয়ে ও নানা ধরনের সব বিতর্কে জড়িয়ে তার ক্যারিয়ার পড়ে হুমকির মুখে।শেষ প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে খেলেছেন বাংলাদেশের হয়ে। এরপর থেকে প্রতি মৌসুমেই শোনা যায়, জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টার কথা। কিন্তু জাতীয় দলে আর ফেরা হয় না তার।

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

এবার নতুন করে স্ত্রী তামিমা তাম্মির ইচ্ছাপূরণের জন্য জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টায় নেমেছেন একসময়কার মি. ফিনিশারখ্যাত নাসির। গত ফেব্রুয়ারিতে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন নাসির। বিয়ের পর তার স্ত্রী জানিয়েছিলেন, তার ইচ্ছা হলো নাসির আবার জাতীয় দলে ফিরুক।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছর হারিয়ে গেছে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে। নিয়মিত সূচিতে হয়নি কিছুই। তবে আগামী মাসে হতে চলেছে দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেট জাতীয় লিগ। স্ত্রীর ইচ্ছাপূরণে ঘরোয়া ক্রিকেটের এসব টুর্নামেন্টে ভালো করার মাধ্যমেই জাতীয় দলে ফেরার চেষ্টা করছেন নাসির।

বুধবার মিরপুরের একাডেমি ভবনের সামনে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপকালে, প্রসঙ্গক্রমে প্রশ্ন আসে নাসিরের স্ত্রীর সেই ইচ্ছার ব্যাপারে। উত্তরে তিনি বলেন, ’অবশ্যই চেষ্টা করবো। যতদিন ক্রিকেট খেলবো আমি চেষ্টা করবো জাতীয় দলে ফিরতে। এটাই সব খেলোয়াড়ের স্বপ্ন। আমারও স্বপ্ন আবার যাতে জাতীয় দলে কামব্যাক করতে পারি।’

প্রায় সাড়ে তিন বছর ধরে জাতীয় দলে না থাকলেও, নাসিরের ভক্ত-সমর্থক ও শুভাকাঙ্ক্ষীর সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। তাদের ভালোবাসার প্রতিদান দেয়ার জন্য হলেও জাতীয় দলে ফিরতে চান নাসির। ভক্তদের ধন্যবাদ জানিয়ে আরও দোয়ার আর্জি জানিয়েছেন এ অলরাউন্ডার।

তিনি বলেছেন, ’তাদের (ভক্তদের) ভালোবাসার প্রতিদান আমি জাতীয় দলে ফেরার মাধ্যমে দিতে চাই। তাদের উদ্দেশ্যে আমি এতটুকুই বলবো যে, তারা সবসময় আমাকে সাপোর্ট করে আসছে। তাদের কাছে আমি দোয়া চাচ্ছি। ইনশাআল্লাহ আমি আবার জাতীয় দলে কামব্যাক করবো।’

ফেরার জন্য কী কী করছেন জানতে চাওয়া হলে নাসির বলেন, ’ফেরার জন্য আসলে ট্রেনিংয়ের বিকল্প নেই। সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে ফিটনেসের ওপর বেশি কাজ করছি। যেহেতু করোনার জন্য আমরা (অনুশীলনের জন্য) উইকেট ওভাবে পাচ্ছি না। আমার বিশ্বাস, আমরা এখন উইকেট পাবো। তো অবশ্যই ব্যাটিং-বোলিং দুইটাই হবে।’

প্রসঙ্গত, মেয়ে বন্ধুর সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন নাসির। এরপর থেকেই তার নামে প্রকাশ পায় একের এক সব ঘটনা। এরপর তিনি বিয়ে করেন। তবে নামটি যেহেতু নাসির তার সমালোচনা তাকে ছাড়বে কেন। তাই বিয়ের পরে আরো বেশি সমালোচিত হতে থাকেন তিনি। বিশেষ করে তার স্ত্রীর দ্বিতীয় বিয়ে তিনি সব থেকে বেশি সমালোচিত হন।
Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.