Monday , June 24 2024
Breaking News
Home / Countrywide / যত ধরনের খারাপ কাজ করা প্রয়োজন, সেটা আমরা সকলেই কমবেশি করে চলেছি: মির্জা ফখরুল

যত ধরনের খারাপ কাজ করা প্রয়োজন, সেটা আমরা সকলেই কমবেশি করে চলেছি: মির্জা ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব এবং বর্ষীয়ান নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর দেশকে ‘ফ্যাসিবাদী’ আ’গ্রা/সনের মাধ্যমে শা’সিত বলে অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেন, এটা খুবই খারাপ সময় চলছে দেশের মানুষের জন্য। এই সময়ে আমাদের সৃজনশীলতা এবং সেই সাথে যে সৃষ্টিশীলতা ধ্বং’/স হয়ে যাচ্ছে এবং ইতিমধ্যে অনেক হয়েছে, সকল ধরনের মুক্তচিন্তা রু’দ্ধ হয়ে যাচ্ছে। আমরা কোনো কিছু আজ বলতে পারছি যেটা মানুষের মৌলিক অধিকার কে’ড়ে নাওয়া হয়েছে যেটা সংবিধানের পরিপন্থি, লেখা যাচ্ছে না কোনো কিছু কারন সরকারের অন্যায়ের দিকটি তুলে ধরলে সেখানে ধরে নিয়ে যাচ্ছে প্রশাসনের লোকজন। এক কথায় কবিতা-কাব্য, কল্যাণ, সুকুমারবৃত্তি শিল্প সবই নির্বাসিত হতে চলেছে। ভ’/য়াব’হ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে মানুষকে তাদের জীবন পরিচালনা করতে হচ্ছে। আমরা যারা এই দেশের সুশীল এবং সাধারন নাগরিক তারা খারাপ সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি।

বুধবার বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলের বলরুমে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

মান্নান-নীলুফার মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন ‘বাংলা, তোমার নাম সৌন্দর্য’ বইটির মোড়ক উন্মোচন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। জীবনানন্দ দাশের ‘রূপসী বাংলা’ কবিতার এই বইটি বিএনপির প্রয়াত ভাইস চেয়ারম্যান সাবেক মন্ত্রী আবদুল মান্নান তাঁর জীবদ্দশায় ইংরেজিতে অনুবাদ করেছিলেন। আবদুল মান্নান ২০২০ সালের ৪ আগস্ট প্রয়াত হন।

দেশের পরিস্থিতির চিত্র তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, যখন আমাদের একজন শি’/শু বা কিশোরের জীবনের নিরাপত্তা দিতে পারি না। একজন মহিলা বা বালিকা তার ফে’সবুকের মধ্যে কোনো স্ট্যাটাস দিতে গিয়ে যখন পু’/লি’শের দ্বারা আ’/ক্রা’ন্ত হয়, গ্রেফতার হয় বা তাকে জেলে নিয়ে যায়, তখন দেশের কি পরিস্থিতি তা সহজেই বোঝা যায়।

তিনি বলেন, আজকে পৃথিবীজুড়ে দেখবেন কেমন একটা অস্থিরতা। ভালো জিনিসগুলো তিরোহিত হয়ে যাচ্ছে। অন্যায়-অসুন্দর সবকিছু যেন প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। চারদিকে তাকিয়ে দেখুন ক্ষমতার ল’/ড়াই। এজন্য যত ধরনের খারাপ কাজ করা প্রয়োজন, সেটা আমরা সকলেই কমবেশি করে চলেছি। এটা বাস্তবতা। এটাকে অস্বীকার করে কোনো লাভ নেই।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাবেক সংসদ সদস্য জহির উদ্দিন স্বপনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আফম ইউসুফ হায়দার, বাংলা একাডেমির সাবেক মহাপরিচালক ড. মাহমুদ শাহ কোরেশি, নজরুল ইনস্টিটিউটের সাবেক পরিচালক কবি আবদুল হাই সিকদার, গবেষক মাহবুব হাসান, নর্দান ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক জসিম উদ্দিন আহমেদ, বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের আরিফ রহমান ও প্রয়াত লেখক আবদুল মান্নানের মেয়ে ব্যারিস্টার মেহনাজ মান্নান প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, এ রকম অবস্থায় আমাদের মুখে খুব সুন্দর, ভালো কথা আসে না। কাজী নজরুল ইসলামের কথায় বলতে চাই- ‘বড় কথা, বড় ভাব আসে নাকো মাথায় বন্ধু বড় দুঃখে, অমর কাব্য তোমরা লিখো যারা আছো সুখে। দেখিয়া শুনিয়া ক্ষে’পিয়া গিয়াছি, তাই যা আসে কই মুখে।’ আমরা এখন প্রেস ক্লাবের সামনে অথবা অন্য কোথাও গিয়ে ওই জোর গলায় কথা বলছি। এছাড়া আর অন্য উপায় নেই। আরও জোরে বলতে হবে, সোচ্চার হয়ে বলতে হবে।

আমরা বর্তমান সময়ে এসে প্রেসক্লাবের সামনে বা অন্য কোথাও গিয়ে উচ্চস্বরে কথা বলছি, বলতে হচ্ছে। দ্বিতীয় কোন উপায় আমাদের আর নেই। আরো অনেক জোরে বলতে হবে আমাদের, জোরে কথা বলার মাধ্যমে সোচ্ছার হওয়ার দিন এসেছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল মরহুম আবদুল মান্নানকে একজন ‘অসাধারণ’ ব্যক্তিত্বের অধিকারী একজন ব্যক্তি হিসেবে অভিহিত করে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। তিনি যোগ করে বলেন, বাংলাদেশ এখন যে অবস্থার ভেতর দিয়ে যাচ্ছে সেখানে বলা হচ্ছে উন্নয়ের কথা কিন্তু এদেশের যারা সাধারন মানুষ তাদের কী উন্নতি হচ্ছে। এটা তারাই বলতে চায়, কিন্তু তাদের মুখ খুলতে দেওয়া হচ্ছে না।

 

About

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *