Thursday , June 20 2024
Breaking News
Home / Entertainment / অবশেষে আটক মামলার অন্যতম সাক্ষী সেই গোসাভি

অবশেষে আটক মামলার অন্যতম সাক্ষী সেই গোসাভি

সম্প্রতি মাদক আইনে করা মামলায় বলিউড বাদশাহ শাহরুখ-পুত্র আরিয়ানের গ্রেপ্তারের খবর ছড়িয়ে পড়ার পরপরই রীতিমতো গোটা বলিউডজুড়ে শুরু ব্যাপক তোলপাড়। আর এর মধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় আসেন এই মামলার অন্যতম সাক্ষী কিরণ পি গোসাভি। তবে ইতিমধ্যেই তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

মুম্বাইয়ের প্রমোদতরী-কাণ্ডে ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরোর (এনসিবি) অন্যতম এ সাক্ষীকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুণে পুলিশ।

পুণের পুলিশ কমিশনার অমিতাভ গুপ্ত বলেছেন, মুম্বাইয়ের প্রমোদতরীতে মাদক মামলায় এনসিবির অন্যতম সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে আটক করা হয়েছে।

২০১৮ সালের একটি প্রতারণা মামলায় গত ১৪ অক্টোবর গোসাভির বিরুদ্ধে লুক আউট নোটিশ জারি করে পুণে পুলিশ। কিরণ গোসাভি পেশায় প্রাইভেট ডিটেক্টিভ। এনসিবির সাক্ষী হিসেবে প্রমোদতরীতে অভিযানের সময় তাকে ফের দেখা যায়।

যদিও আরিয়ান খানের সঙ্গে সেলফি তোলা নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই গায়েব হন কিরণ গোসাভি। অবশেষে পুণে থেকে তাকে আটক করা হলো।

এদিকে মুম্বাইয়ের প্রমোদতরীতে মাদক উদ্ধার ও আরিয়ান খানের গ্রেফতারি নিয়ে বিতর্ক চলার মধ্যেই গত রোববার (২৪ অক্টোবর) নিজেকে গোসাভির দেহরক্ষী দাবি করা প্রভাকর নামে এক ব্যক্তি ঘুষ সংক্রান্ত লেনদেনের অভিযোগ তোলেন গোসাভির বিরুদ্ধে।

ওই ব্যক্তির দাবি, শাহরুখপুত্রের জামিন বিষয়ে তিনি গোসাভিকে ২৫ কোটি টাকা আদায়ের পরিকল্পনা নিয়ে ফোনে কথা বলতে শুনেছেন। শাহরুখের ম্যানেজার পূজা দাদলানির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছিলেন তিনি। পূজার কাছে আরিয়ানের জামিন বিষয়ে ২৫ কোটি টাকা দাবি করা ছিল তার উদ্দেশ্য। শেষে ১৮ কোটিতে রফা করার পরিকল্পনা ছিল। এরমধ্যে ৮ কোটি টাকাই দেওয়া হতো এনসিবি কর্মকর্তা সমীর ওয়াংখেড়েকে, যিনি আলোচিত এ মাদক মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন গোসাভি। ঘুষের ব্যাপারে তিনি ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘প্রথম বার এ বিষয়টি আমি শুনছি।’ ২ অক্টোবরের আগে ওয়াংখেড়েকে তিনি চিনতেনই না।

যদিও গোসাভির কথিত দেহরক্ষীর এমন চাঞ্চল্যকর তথ্যের পর আরিয়ারের মাদক মামলার তদন্ত ঘিরে রহস্য আরও ঘনীভূত হয়। প্রশ্ন উঠে এনসিবির তদন্ত কর্মকর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের ভূমিকা নিয়েও।

আরিয়ানের সঙ্গে সেলফি তোলা নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই সম্প্রতি গা ঢাকা দেওয়ার পর গোসাভির খোঁজে চলে তল্লাশি অভিযান। এরইমধ্যে দিন তিনেক আগে গোসাভি নিজেই জানান, তিনি উত্তরপ্রদেশের লখনউতে কোনো একটি থানায় আত্মসমর্পণ করবেন।

পরে গোসাভি দাবি করেন, তিনি একটি থানায় আত্মসমর্পণ করতে গিয়েছিলেন। তবে পুলিশ তাকে বাধা দিয়েছে। সে কারণে তিনি আত্মসমর্পণ করতে পারেননি। যদিও লখনউ পুলিশ গোসাভির এ দাবি নাকচ করেছে।

 

এর আগে, মাদক সেবনের দায়ে গত ২ অক্টোবর মুম্বাইয়ের প্রমোদতরীর একটি পার্টি থেকে আরিয়ানকে আটক করে মুম্বাইয়ের প্রমোদতরী-কাণ্ডে ভারতের মাদক নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি)। এরপর টানা কয়েক ঘন্টা জেরার তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিকে তার মুক্তির জন্য সর্বদা চেষ্টা করে যাচ্ছেন শাহরুখ খান।

About

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *