Saturday , May 25 2024
Breaking News
Home / Countrywide / জাতিসংঘে গিয়ে অনেক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করছি, এ বিষয়ে সবাই খুব দুশ্চিন্তাগ্রস্ত : শেখ হাসিনা

জাতিসংঘে গিয়ে অনেক নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করছি, এ বিষয়ে সবাই খুব দুশ্চিন্তাগ্রস্ত : শেখ হাসিনা

দেশজুড়ে সংক্রমণের রেশ এখনো কাটেনি, আর এরই মধ্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম হু হু বাড়তে থাকায় রীতিমতো নানা সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে দেশের সাধারণ মানুষকে। আর এরই মধ্যে এবার নতুন এক আশঙ্কার কথা জানালেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

২০২৩ সালে বিশ্বে দুর্ভিক্ষ ও অর্থনৈতিক মন্দা আরও ব্যাপকভাবে দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে তিনি বাংলাদেশের প্রতিটি ইঞ্চি জমি উৎপাদনের আওতায় আনার আহ্বান জানিয়েছেন। শারদীয় দুর্গোৎসব উপলক্ষে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির অঙ্গনে উপস্থিত সনাতন ধর্মের সদস্যদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি সবাইকে অনুরোধ করব কোনো এলাকায় এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদি না রাখতে। কারণ সারা বিশ্বে যে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিয়েছে- আমি যখন জাতিসংঘে গিয়েছি, সেখানে অনেক দেশের নেতাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে, সবাই খুব দুশ্চিন্তাগ্রস্ত যে ২০২৩ সালে ভয়াবহ দুর্ভিক্ষ দেখা দিতে পারে। আরও ব্যাপক অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিতে পারে। সেক্ষেত্রে আমি বলব আমাদের দেশের মানুষকে এখন থেকেই ব্যবস্থা নিতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের মানুষ আছে, আমাদের মাটি খুবই উর্বর, কোনো জমি যেন অনাবাদি না থাকে। যতটা সম্ভব উৎপাদন বাড়িয়ে তাদের সঞ্চয় বাড়াতে হবে। বিদ্যুৎ, পানি সবকিছুই সাশ্রয়ী হতে হবে। ভবিষ্যতের কথা ভেবে এখন থেকে সেভাবে কাজ করতে হবে।

এ সময়ে শুধু বাংলাদেশেই নয়, অর্থনৈতিক মন্দার কারণে বিশ্বের অন্যান্য দেশেও জ্বালানি তেলের দাম দিন দিন বাড়ছে বলেও সবাইকে অবগত করেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাই সবাইকে মিতব্যয়ী হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

About Rasel Khalifa

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *