Monday , June 24 2024
Breaking News
Home / Countrywide / ত্রাণের দেওয়া পচা আলু ইউএনও অফিসে ফেরত দিলেন ভানু

ত্রাণের দেওয়া পচা আলু ইউএনও অফিসে ফেরত দিলেন ভানু

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দূর্গা পূর্জা। সম্প্রতি এই পূজার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়েছে। এরই লক্ষ্যে কুড়িগ্রামের চিলমারীতে হিন্দু ধর্মাবলম্বী অসহায় পরিবারদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। তবে ত্রানের দেওয়া পন্যের মান খুবই নিম্ন মানের। এবং খাওয়ার অউপযোগী। এতে করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কালির পাট মন্দিরের পূজারী ভানু রাম দাশ। এমনকি তিনি মানহীন ত্রান ইউএনও অফিসে ফেরত দিয়েছেন।

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে দূর্গাপুজা উপলক্ষ্যে দরিদ্র হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। পঁচা আলু, চালসহ নিম্ন মানের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করায় ত্রাণ গ্রহীতারা চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। উপজেলার রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের কালির পাট মন্দিরের পূজারী ভানু রাম দাশকে দেয়া পচা আলু তিনি ক্ষোভে ইউএনও অফিসে ফেরত দিয়ে গেছেন। এদিকে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা শওকত আলী সরকার বীরবিক্রম নিম্নমানের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ না করে ত্রাণের মান যাচাই করে মানসম্পন্ন ত্রাণ বিতরণ করার নির্দেশ দিয়েছেন।
কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলায় এ বছর ৩২টি মন্ডপে দূর্গাপুজা উদযাপন হচ্ছে। পুজা উপলক্ষে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মোতাবেক হতদরিদ্র হিন্দু পরিবারের মাঝে তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে রাজস্ব খাতের টাকা ব্যয় করে চাল, ডাল, তেল, আলুসহ বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী দেয়ার প্রস্তুতি নেয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সোমবার উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হলরুমে ১৬০টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ শুরু হয়। ত্রাণ পেলেও খুশি হতে পারেনি ত্রাণ নিতে আশা পরিবারগুলো।

রাণীগঞ্জ ইউনিয়নের রানু রানী, সুধা রানী, মুকুল চন্দ্র অভিযোগ করে বলেন, বহুদূর থেকে এলাম ত্রাণ নিতে। কিন্তু পঁচা চাল, পঁচা আলু, নিম্নমানের তেল, সয়াবিন তেল না দিয়ে পামওয়েল দেয়া হয়। এসব সামগ্রী নিয়ে কী করমো? হামরা গরীব বলে কি মানুষ নই। ভানু রায় (৭০) বয়সের ভারে ঠিক মতো চলতে পারেন না। নিম্নমানের চাল আর পচা আলু নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। আলুগুলো উপজেলা চেয়ারম্যানকে দেখিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘এই আলু আর চাইল খাইলে তো মুই অসুস্থ হয়্যা পরিম’। পরে ভানু দাস ও লাল চরন মিলে আলুগুলো ইউএনও অফিসে রেখেই বাড়ি চলে যান। একই অভিযোগ বিজো বালার। তিনি বলেন, নিম্নমানের চাল আর পচা আলু, সয়াবিনের পরির্বতে পামওয়েল দিয়েছে। এছাড়াও প্যাকেটজাত ঠিক মতো না করায় চাল আর ডাল একসঙ্গে মিশে গেছে।

ত্রাণে নিম্নমানের চাল ও পচা আলুর কথা স্বীকার করে উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি চিকিৎসক সলিল কুমার বর্মণ দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এটি বড় দুঃখের বিষয়। হতদরিদ্র হিন্দু পরিবারগুলোর মাঝে নিম্নমানের ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হচ্ছে। জানতে চাইলে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত আলী সরকার বীর বিক্রম বলেন, ‘নিম্নমানের চাল ও পচা আলু রয়েছে, তা জানার পর ত্রাণ বিতরণ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ত্রাণের মান যাচাই করে বাকিদের মাঝে বিতরণ করা হবে।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘ত্রাণে নিম্নমানের চাল ও সামগ্রী থাকার কথা নয়। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

দেশে প্রায় সময় ত্রান কান্ড নিয়ে নানা ধরনের অনিয়মের ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে। অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য সরকারের দেওয়া ত্রান থেকে শুরু করে অনেক প্রতিষ্ঠনের দেওয়া ত্রান নিয়ে অনিয়মের শেষ নেই। কিছু সুবাধিবাদী মানুষ রয়েছে যারা কিনা নিজেদের স্বার্থ হাছিলের জন্য অসহায় দরিদ্র মানুষের জন্য দেওয়া ত্রানেও বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম করে থাকে।

About

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *