Tuesday , May 21 2024
Breaking News
Home / National / প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে উপহার পাওয়া সাফজয়ী ফুটবলার আঁখির জমিতে ১৪৪ ধারা জারি

প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে উপহার পাওয়া সাফজয়ী ফুটবলার আঁখির জমিতে ১৪৪ ধারা জারি

সাফ ফুটবল খেলায় বাংলাদেশের মেয়েরা ফাইনাল খেলায় জিতে অর্জন করেছে সর্বোচ্চ জয়। এই শুধুমাত্র তাদের নয়, এই জয় পুরো বাংলার মানুষের। এত বড় একটি জয় অর্জন করার জন্য দেশ বাসী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে অজস্র ভালোবাসা জানানো হয়। বাংলার বাঘিণীরা ভাসছেন সীমাহীন প্রশংসার জোয়ারে। সম্প্রতি জানা গেল একটি ভিন্ন খবর। ফুটবলার আঁখিকে দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর উপহারের জমিতে ১৪৪ ধারা জারি।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী নারীদের নিয়ে সারাদেশে মানুষ যখন উদযাপন করছে, তখন একই দলের একজন সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার পারকোলা গ্রামের আঁখি খাতুনের পরিবার প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া জমি উপহার পেয়ে চিন্তিত।

প্রধানমন্ত্রীর উপহার দেওয়া জমি মসজিদের দখলে থাকা জমি দাবি করে আদালতে মামলা করেছেন স্থানীয় এক ব্যক্তি। এতে আদালত জমির ওপর ১৪৪ ধারা জারি করেন।

আদালতের নির্দেশে ফুটবলার আঁখির বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করার অভিযোগ উঠেছে শাহজাদপুর থানার ২ পুলিশের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশের ২ সদস্যকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে।

সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ মহিলা চ্যাম্পিয়নশিপে গোল্ডেন বুট জয়ী ফুটবলার আঁখি খাতুনকে বাড়ি তৈরির জন্য ৮ শতাংশ জমি উপহার দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
নানা জটিলতার পর চলতি বছরের ৪ জুন সিরাজগঞ্জ অফিসার্স ক্লাবে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব কবির বিন আনোয়ার আঁখির পরিবারের কাছে ৮ শতক জমির দলিল হস্তান্তর করেন।

তবে জমির খেতাব পাওয়ার পর থেকেই সমস্যা শুরু হয়। শাহজাদপুর উপজেলার ডাবরিয়া মৌজার জমিটি স্থানীয় মসজিদের সম্পত্তি দাবি করে মামলা করেন স্থানীয় এক ব্যক্তি।

এ ঘটনায় গত ১৯ সেপ্টেম্বর সিরাজগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জমির বিষয়ে ১৪৪ ধারা জারি করেন এবং শাহজাদপুর সহকারী কমিশনারকে (ভূমি) জমির প্রতিবেদন তৈরির নির্দেশ দেন।

আঁখির বাবা আক্তার হোসেন দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘বুধবার বিকেলে শাহজাদপুর থানার এএসআই মামুনসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য আমার বাড়িতে এসে বলেন, সরকার আঁখিকে দেওয়া জমিতে আদালত ১৪৪ ধারা জারি করেছে। পরে একটি কাগজে সই করতে বলেন।’
আক্তার হোসেন জানান, স্বাক্ষর না করায় তাকে গালিগালাজ করা হয় এবং থানায় নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। অভিযুক্ত এএসআই মামুন ও কনস্টেবল মুসাকে শাহজাদপুর থানা থেকে প্রত্যাহার করে সিরাজগঞ্জ জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে বলে শাহজাদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাসিবুল ইসলাম জানান।

আঁখির বাবা আক্তার জানান, দরিদ্র পরিবারে বেড়ে ওঠা আঁখি দেশের জন্য সাফল্য এনে দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে উপহার হিসেবে জমি পেয়ে বাড়ি তৈরির স্বপ্ন দেখেন তিনি। তবে আইনি জটিলতায় তাদের স্বপ্ন বাস্তবায়ন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। আক্তার আরো বলেন, প্রশাসন যদি পরিচ্ছন্ন জমি বুঝিয়ে দিতো তাহলে কোনো সমস্যা হতো না।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে শাহজাদপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল আলম দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, শাহজাদপুর উপজেলার পৌর এলাকার ডাবরিয়া মৌজায় ১ নম্বর খাস খতিয়ানে সরকারি খাস জমি থেকে আঁখির পরিবারকে জমি দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, এটি সরকারি বিশেষ জমি, আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী জমির প্রতিবেদন আদালতে জমা দিলে মামলার জটিলতা দূর হবে।

প্রসঙ্গত, বাংলার মেয়েরা কতটা পারদর্শী সেটা তারা বিজয় অর্জন করে ঠিকই দেখিয়ে দিয়েছে। তবে এই বিজয় এক দিনের প্রচেষ্টায় অর্জন করা সম্ভব হয়নি। এর পিছনে রয়েছে অনেক পরিশ্রম ও ত্যাগ। বাংলার মেয়েরা সাফ ফুটবল খেলায় বিজয় ছিনিয়ে এনে বাংলার মুখ করেছে উজ্জল এবং সেই সাথে বাংলার মর্যাদা করেছে সমুন্নীত।

About Shafique Hasan

Check Also

জাহ্নবী কাপুরের ভিডিও ভাইরাল (ভিডিও)

মন্দিরের সিঁড়ির একপাশে অসংখ্য ভাঙা নারিকেল। তার পাশে থেকে হামাগুড়ি দিয়ে উপরে উঠছেন বলিউড অভিনেত্রী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *