Wednesday , May 29 2024
Breaking News
Home / Countrywide / ফাইনালের আগে যে লিগ খেলা হয়, সেই লিগ খেলতেই তো তাদের পা ভেঙে যাবে: আমির হোসেন আমু

ফাইনালের আগে যে লিগ খেলা হয়, সেই লিগ খেলতেই তো তাদের পা ভেঙে যাবে: আমির হোসেন আমু

আমির হোসেন আমু হলেন বাংলাদেশের বর্তমান ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের একজন প্রখ্যাত রাজনীতিবীদ। তিনি ছিলেন সাবেক শিল্প মন্ত্রী। এই সম্মানীয় পদে অধিষ্ঠিত হবার পর তিনি সততা ও নিষ্ঠার সহিত তার দায়িত্ব পালন করে গেছেন। বর্তমানে তিনি ক্ষমতাসীন দলের মুখমাত্র ও সমন্বয়ন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সম্প্রতি আমির হোসেন আমু তার এক বক্তব্যে বলেছেন ফাইনালের আগে ‘লিগ’ খেলতেই বিএনপির পা ভেঙে যাবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু বলেন, বিএনপি ফাইনাল খেলতে চায়, কিন্তু সেটা তো দূরের কথা, ফাইনালের আগে যে লিগ খেলা হবে, সেই লিগ খেলতে গিয়েই পা ভেঙে যাবে তাদের। এটা কি তারা বোঝে না? বলেও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স (আইডিইবি) মিলনায়তনে ১৪ দলের সমাবেশ ও আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আমির হোসেন আমু বলেন, আমরা কোনো নৈরাজ্য চাই না, কোনো বিশৃঙ্খলা চাই না। তবে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করলে আমরা ঘরে বসে থাকব না। আমি জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিরোধ করব। রাষ্ট্রের জনগণের জানমালের ক্ষতি হতে দেব না।

১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, আমরা গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে রাজপথে আন্দোলনে ছিলাম এবং আন্দোলনে থাকব। প্রয়োজনে যখন যেভাবে দরকার। আমাদের নেতা প্রধানমন্ত্রী বারবার তাদের (বিএনপি) কাজ করার সুযোগ দেওয়ার কথা বলছেন। বারবার বলছেন, কেউ বাধা দেবে না। তাদের আন্দোলন করতে দিন। কিন্তু তারা তো বাধা চান। তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে পেট্রোল ও ইট ছুড়ে মারে। যাতে পুলিশ তাদের ওপর হামলা চালায়। যাতে তারা বলতে পারে পুলিশ আমাদের ওপর হামলা করেছে।

আমু আরও বলেন, তাদের আজকের আন্দোলনের মূল লক্ষ্য নির্বাচন নয়, নৈরাজ্য সৃষ্টি করা। এদেশে অস্থির ও নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে আবার কোনো ধরনের ক্ষমতার পরিবর্তন সম্ভব কি না, তা তারা হিসাব-নিকাশ করছেন। কিন্তু সে হিসেবে অনেক ভুল আছে। অনেক জল বয়ে গেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের মানুষ অনেক বদলে গেছে। মানুষ তা বুঝতে সক্ষম।

আমির হোসেন আমু বলেন, কেউ বলছেন তত্ত্বাবধায়ক সরকার, কেউ বলছেন নির্বাচনী সরকার। কেউ বলেন জাতীয় সরকার। যে যা খুশি তাই বলে। এক সময় হয়তো বলবেন, আমাদের সরকার ছাড়া নির্বাচন হবে না। তাদের সরকার হলে তারা নির্বাচিত হবে। আর তাদের সরকারের আমলে নির্বাচনের ফলাফল আমরা জানি। নির্বাচনে কারচুপি, ভোট ছিনতাই সবই তাদের সময় থেকেই শুরু হয়।

র‌্যালি ও আলোচনা সভায় ১৪ দলের নেতৃবৃন্দ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি দিলীপ বড়ুয়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বিএনপি বাংলাদেশের অন্যতম একটি রাজনৈতিক দল। জাতীয় নির্বাচনের মাধ্যমে দলটি বেশ কয়েকবার সরকার গঠন করেছিল তবে গত কয়েক বছর ধরে দলটি ক্সমতায় আসতে পারেনি। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা হলেন শহীদ রাষ্ট্রপতি মেজর জিয়াউর রহমান। বর্তমানে দলটির চেয়ারম্যান হলেন তারেক রহমান। আসন্ন দ্বাদশ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপির নেতাকর্মীরা তাদের কর্মসূচী প্রত্যহ পালন করে যাচ্ছেন।

About Shafique Hasan

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *