Sunday , May 26 2024
Breaking News
Home / Countrywide / এবার নির্বাচন সমস্যা সমাধানে ২১ দফা সংস্কার প্রস্তাব : সুজন

এবার নির্বাচন সমস্যা সমাধানে ২১ দফা সংস্কার প্রস্তাব : সুজন

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক দলগুলো মাঠে সরব হতে শুর করলেও সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনিশ্চিত। নির্বাচন ব্যবস্থায় যে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে তা সংঘাতে দিকে নিয়ে যাচ্ছে দেশকে। কারন দলীয় সরকারে অধীনে নির্বাচন সম্ভব নয় তার প্রমাণ আগেই মিলেছে বলে মন্তব্য করেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার। সমস্যা সমাধানে রাজনৈতিক ঐক্য প্রয়োজন বলে যা বললেন সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার।

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার বলেছেন, আমাদের উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু উন্নতি হচ্ছে না। চারদিকে অবনতির ধ্বং/সস্তূপ দেখছি। অবনতির কারণে আমরা মহাসংকটে আছি। সমস্যা সমাধানে আমাদের রাজনৈতিক ঐক্য প্রয়োজন।

বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী মিলনায়তনে গণতন্ত্র মঞ্চের মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার অনির্বাচিত হলেও তাতে জনগণের আস্থা আছে। নির্বাচনই ক্ষমতা পরিবর্তনের মাধ্যম। মস্যা সমাধান করতে পারলে আমাদের গণতান্ত্রিক উত্তরণ ঘটবে। তবে সমস্যা সমাধানের জন্য শুধু সুষ্ঠু নির্বাচনই যথেষ্ট নয়। আসলে নির্বাচন একটি পূর্বশর্ত। ক্ষমতাসীন দল নির্বাচিত হওয়ার পর কী করে সেটাই দেখার বিষয়।

সমস্যা সমাধানে তিনি ২১ দফা সংস্কার প্রস্তাব তুলে ধরেন। দফাগুলো নিয়ে তিনি বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলেও জানান। ২১ দফা নিয়ে তিনি বলেন, রাজনৈতিক সংস্কৃতির পরিবর্তন প্রয়োজন, মনমানসিকতার পরিবর্তন প্রয়োজন, নির্বাচন ও নির্বাচনকালীন সরকারের সংস্কার করতে হবে, স্বাধীন বিচার বিভাগ, সাম্প্রদায়িকতার অবসান, তরুণদের জন্য বিনিয়োগ, নারীর ক্ষমতায়ন, পার্বত্য শান্তি চুক্তির সঠিক বাস্তবায়নসহ বিভিন্ন সংস্কার প্রয়োজন।

বিপ্লবী ওয়ার্কস পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, দেশের ১৫ আনা মানুষ আগামীকাল সরকারের পদত্যাগ চায়। সংবিধান পরিবর্তন না করে সরকার পরিবর্তন হলে যিনি সরকারে আসবেন তিনিও শেখ হাসিনার মতো কর্তৃত্ববাদী হবেন। তাই নির্বাচনের আগে সংবিধান সংস্কার করতে হবে।

তিনি বলেন, দেশের সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলো ভেঙে পড়েছে। দেশের কোনো মানুষ বিশ্বাস করে না যে তারা এই সরকারের অধীনে সঠিকভাবে ভোট দিতে পারবে। যেই সরকার মোমবাতি প্রজ্জালন কর্মসূচিতে হামলা করে সিনিয়র নেতাদেরকে হামলা করে, তাদের কাছে আর কি চাওয়ার আছে। এমন কর্তৃত্ববাদী সরকার অবাধ নির্বাচন করবে এটা কোনো সাধারণ কথা না, এটা কাণ্ডজ্ঞানহীন কথা।

তিনি আরও বলেন, আমরা একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার চাই। এই সরকার নির্বাচনের আগে গণতান্ত্রিক পরিবেশ সৃষ্টি করে বিদ্যমান সংকট নিরসন করে নির্বাচন দেবে। আমরা অতীতের ভুল করতে চাই না। আমরা একটি গণতান্ত্রিক ও মানবিক রাষ্ট্র চাই।

মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন জেএসডি সভাপতি আসম আবদুর রব, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী অর্থনীতিবিদ ড. আনু মোহাম্মদ, ড. আসিফ নজরুল, নুরুল হক নূর, হাসনাত কাইয়ুমসহ গণতন্ত্রের মঞ্চের নেতৃবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আবারও এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে বলে মন্তব্য করেন সুজন সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার। তিনি আরোও বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচন ছাড়া দেশে গনতন্ত্র পরিবেশ বজায় রাখা সম্ভব নয়।

About Babu

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *