Tuesday , May 28 2024
Breaking News
Home / Countrywide / বিবিসি প্রধানমন্ত্রীকে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে কেন প্রশ্ন করল,বোঝার আর বাকি নেই,ওনার তো লজ্জা থাকা উচিত:সাবেক মন্ত্রী

বিবিসি প্রধানমন্ত্রীকে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে কেন প্রশ্ন করল,বোঝার আর বাকি নেই,ওনার তো লজ্জা থাকা উচিত:সাবেক মন্ত্রী

বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রয়েছেন ব্রিটেন এ। সেখানে রানীর শেষকৃত্যে অংশ গ্রহণ করে। সেই সাথে তিনি বিবিসি এর সাথে দেন সাক্ষাৎকার। এবার তা নিয়েই সব খানে চলছে নানা ধরনের আলোচনা।বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিবিসিকে বলেছেন, আওয়ামী লীগের আমলেই সুষ্ঠু নির্বাচন হয়। তার এই বক্তব্য বাংলাদেশের কেউ বিশ্বাস করে না। তিনি বলেন, গুম, খুন ও আসন্ন নির্বাচন নিয়ে বিবিসি কেন শেখ হাসিনার কাছে জানতে চাইল, এর তাৎপর্য কী, কারও কি বোঝার আছে?

সোমবার বিকেলে রাজধানীর মহাখালীতে এক প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এ কথা বলেন। জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম অস্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং ভোলা ও নারায়ণগঞ্জে দলীয় তিন নেতা-কর্মীকে হত্যার প্রতিবাদে রাজধানীর ১৬টি স্থানে সমাবেশ কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আমীর খসরু বলেন, তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বিবিসিকে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন, আপনারা দেখেছেন? সাক্ষাৎকারে তাকে প্রশ্ন করা হয় আগামী দিনে বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কি না। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের আমলেই সুষ্ঠু নির্বাচন হয়।

এ সময় দলীয় সমর্থকরা একযোগে ‘ভুয়া, ভুয়া, ভুয়া ‘ বলে আওয়াজ তুলে আমীর খসরু বলেন, ‘আরও কিছু বলার আছে। তিনি যা বললেন, বাংলাদেশের একজন মানুষ কি তা বিশ্বাস করেন? আওয়ামী লীগ কি বিশ্বাস করে? সরকারি কর্মকর্তারা কি বিশ্বাস করেন?’ যার উত্তরে সবাই ‘না, না’ বলে।

শনিবার রাজধানীর বনানীতে বিএনপির মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসূচিতে হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। আজ মহাখালীর জনসভায় বিএনপির অনেক নেতা-কর্মীকে লাঠিতে জাতীয় পতাকা হাতে দেখা যায়।

বিএনপির আন্তর্জাতিক কমিটির প্রধান আমীর খসরু মাহমুদ বলেন, বিবিসির সাংবাদিক প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করেছেন, যে রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় এসেছেন, তাঁর প্রতিনিধি ঢাকায় নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেছেন বাংলাদেশের নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ। এর উত্তরে কী বলবেন? আমির খসরু বলেন, মাথায় কিছু থাকলে আওয়ামী লীগের সময় নির্বাচন সঠিক হয়—কেউ এ রকম উত্তর দেয়?

বিএনপির এই নেতা বলেন, “তার লজ্জা হওয়া উচিত। যখন একজন বিদেশী সরকারপ্রধানকে এই প্রশ্ন করা হয়, তখন তার বোঝা উচিত কেন এই প্রশ্ন করা হচ্ছে। এই প্রশ্ন কি ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে করবেন? নেপালের প্রধানমন্ত্রী, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী এই প্রশ্ন করবেন?শেখ হাসিনাকে কেন এই প্রশ্ন করা হচ্ছে?এর মাহাত্ম্য বোঝার বাকি আছে?

আমীর খসরু মাহমুদ বলেন, ‘বিবিসির দ্বিতীয় প্রশ্ন বাংলাদেশে গুম ও খুন নিয়ে। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন, গুম নয়, খুন নয়। কোন প্রমাণ নেই, কোন তথ্য নেই। আমীর খসরু প্রশ্ন তুলেছেন, বাংলাদেশের কেউ কি এটা বিশ্বাস করে? আন্তর্জাতিক অঙ্গনে কেউ কি এটা বিশ্বাস করে? বিশ্বাস করলে এই প্রশ্ন তাকে করতেন? শেখ হাসিনাকে কেন এই প্রশ্ন করা হলো তা বোঝার বাকি আছে?

আমীর খসরু বলেন, বাংলাদেশ কোন পথে যাবে, সিদ্ধান্ত হবে রাজপথে। প্রতিবাদ কর্মসূচিতে নেতা-কর্মীদের উপস্থিতি ও সাহসী ভূমিকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। এ ধারা বন্ধ করা যাবে না। বাংলাদেশের মানুষের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে। জনগণ আন্দোলনে নেমেছে। ফ্যাসিস্ট সরকারের পতনের দাবিতে রাজপথে। এই সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আমাদের রাজপথে থাকতে হবে।”

বিএনপির এই নেতা প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘এখন আওয়ামী লীগের নেতা কে? লক্ষ্য করবেন আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদদের আজ কোনো নেতৃত্ব নেই। চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান এখন আওয়ামী লীগের নেতা। তিনি দোয়া করছেন, তার পাশে চট্টগ্রাম আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মী। গাইবান্ধায় আওয়ামী লীগের কোনো নেতা নেই। গাইবান্ধায় ভোট দিতে গিয়েছিলেন হাইকোর্টের বিচারপতি মো. পল্লবী আওয়ামী লীগের নেতা জসিম মোল্লা। অর্থাৎ যারা আমাদের নেতাদের গুলি করে হত্যা করেছে, সংবিধান লঙ্ঘন করেছে, জনগণের অধিকার লঙ্ঘন করেছে এবং গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে তারাই এখন আওয়ামী লীগের নেতা।’

আওয়ামী লীগের সমর্থক কারা এমন প্রশ্নে সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ বলেন, ‘তাদের সমর্থকরা দখলদার, লুটেরা, সন্ত্রাসী। এরাই বনানীতে হামলাকারী আওয়ামী লীগের সমর্থক। কারণ তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন। যে কারণে তাদের রাজনৈতিক নেতৃত্ব আজ সরকারি কর্মকর্তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে, যে কারণে তারা রাজনৈতিকভাবে বিএনপিকে মোকাবিলা করার সাহস হারিয়ে ফেলেছে।

আমীর খসরু মাহমুদ শিগগিরই জাতীয় সরকারের ঘোষণা এবং ভবিষ্যতে বাংলাদেশ কেমন হবে তার রূপরেখার কথা জানান। তিনি বলেন, একজন ফ্যাসিস্ট রেখে আরেকজন ফ্যাসিস্ট এলে কি কোনো লাভ হবে? এই ফ্যাসিস্টকে সরিয়ে দিয়ে আমরা বাংলাদেশের রূপরেখা স্পষ্টভাবে জাতির সামনে তুলে ধরব।

প্রসঙ্গত, এ দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন রয়েছেন নিউইউর্ক এ। সেখানে তিনি ইউনাইটেড নেশনস জেনারেল অ্যাসেম্বলিতে যোগদানের জন্য গিয়েছেন। সেখান থেকেই ফিরবেন বলে জানা গেছে।

About Rasel Khalifa

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *