Sunday , May 26 2024
Breaking News
Home / Countrywide / তিন শত্রুর নাম উল্লেখ করে হাসানুল হক ইনু বললেন,  এদের সাথে মোকাবেলা করে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবো

তিন শত্রুর নাম উল্লেখ করে হাসানুল হক ইনু বললেন,  এদের সাথে মোকাবেলা করে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবো

প্রায় ৫০ বছর আগে শুরু হয়েছিলো  “জাসদ” দলের যাত্রা। শুরু থেকে এই পর্যন্ত অনেক বার দলটিকে ভাঙ্গা গড়া হয়েছে। আসন্ন জাসদের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিশেষ সব আয়োজন করতে চায় জাসদ দলের সদস্যবৃন্দরা। সে প্রসঙ্গ তুলে ভিন্ন ধরনের বক্তব্য দেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু।

 

তিনি বলেন, জাসদের ৫০ বছর পূর্তি হবে ৩১ অক্টোবর। দেশ ও জনগণের ৩ শত্রুর মোকাবেলা করে সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করবো।

 

রোববার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে এক বছরের কর্মসূচি সফল করতে আয়োজিত এক যৌথ সভায় তিনি এ কথা বলেন।

 

যৌথসভায় দলের সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, বাংলাদেশ ও এর জনগণ তিন শত্রুর মুখোমুখি। এই ৩টি শত্রু গ্রুপ হলো-১. রাষ্ট্রীয় সম্পদ আত্মসাৎকারী, দুর্নীতিবাজ দল ও ডাকাতদের দ্বারা চুরি করা মানুষের অধিকার ও অধিকার, চোরের দল; 2. জনগণের পকেট কেটেছে বাজার ইউনিয়ন, ব্যবসায়ী ইউনিয়ন এবং 3. ধর্মান্ধ সাম্প্রদায়িক জঙ্গিবাদী চরমপন্থী রাজনৈতিক শক্তি এবং তাদের রাজনৈতিক সহযোগীরা যারা বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মৌলিক অস্তিত্বকে অস্বীকার করে।

 

তিনি বলেন, এই তিন শত্রুকে মোকাবেলা করা দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক শক্তি ও জনগণের প্রধান দায়িত্ব। দেশ ও জনগণের এই তিন শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দলের ৫০ বছর পূর্তি উদযাপনে জাসদের নেতা-কর্মীদের মাঠে নামার আহ্বান জানান তিনি।

 

ইনু বলেন, সরকারের উচিত কোনো অজুহাত না দেখিয়ে এই তিন শত্রুকে দমন করা। এই তিন শত্রুর মোকাবিলা করতে হলে আওয়ামী লীগকে রাজনীতির পথে চলতে হবে, দুর্নীতিবাজ ও চোরদের আওয়ামী লীগের ছায়া থেকে তাড়াতে হবে।

 

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত-তালেবান শক্তির পুনরুত্থানের হুমকি ঠেকাতে আওয়ামী লীগকে একা চলার নীতি ত্যাগ করে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে জাতীয় ঐক্য গড়ার পথে যাত্রা করতে হবে।

 

জাসদ ও তার সহযোগী সংগঠন জাতীয় শ্রমিক জোট, জাতীয় কৃষক জোট, জাতীয় নারী জোট, জাতীয় যুব জোট, জাতীয় আইনজীবী পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংগ্রাম পরিষদ এবং বাংলাদেশ ছাত্রলীগের (ননী-মাসুদ) কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ও নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে এই যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। মেট্রোপলিটন কমিটির। .

 

সভায় আগামী ১লা অক্টোবর বিকেলে ঢাকাসহ দেশের সব জেলা ও উপজেলায় মশাল মিছিল, ওইদিন ঢাকায় সমাবেশ, অক্টোবরের চার মাসে জেলা-উপজেলায় জনসভার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। নভেম্বর-ডিসেম্বর-জানুয়ারি।

 

সুবর্ণ জয়ন্তী কমিটির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারেফ হোসেনের সভাপতিত্বে যৌথ সভায় বক্তব্য রাখেন দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার এমপি, মীর হোসেন আখতার, ফজলুর রহমান বাবুল, আফরোজা হক রীনা, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদুল ইসলাম প্রমুখ। যৌথ সভায় বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শফি উদ্দিন মোল্লা, উম্মে হাসান ঝালমল, অধ্যাপক মোখলেছুর রহমান মুক্তাদির, শওকত রায়হান, মোহাম্মদ মহসিন, রোকনুজ্জামান রোকন, রহমান চুন্নু, মোহাম্মদ নুরুন্নবী, দপ্তর সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাড. মোহাম্মদ সেলিম, জাতীয় মহিলা জোটের নেত্রী সৈয়দা শামীমা সুলতানা হ্যাপি, জাতীয় কৃষক জোটের যুগ্ম মহাসচিব কামরুজ্জামান ফসি, জাতীয় যুব জোটের সহ-সভাপতি আমিনুল আজিম বনি, জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশ সংগঠনের সেক্রেটারি কনক বর্মণ প্রমুখ। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (ননী-মাসুদ) সভাপতি রাশিদুল হক ননী প্রমুখ।

 

উল্লেক্ষ্য, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ বাংলাদেশের রাজনীতির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ১৯৭২ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত এই দলের ভূমিকা বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় কাঠামোতে একটি স্থায়ী ছাপ রেখে গেছে। তবে তারা এখনো থেমে নেই অনেক বার ভাঙ্গা গড়ার মধ্য দিয়ে দেশে জন্য কাজ করে চলেছে দলটির নেতারা।

About Nasimul Islam

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *