Wednesday , May 29 2024
Breaking News
Home / Countrywide / ফ্যাক্টরীতে ঢুকেই বিশেষ অঙ্গে করে দিল কাজ, বিচার চান কনা ইসলাম

ফ্যাক্টরীতে ঢুকেই বিশেষ অঙ্গে করে দিল কাজ, বিচার চান কনা ইসলাম

দুষ্কৃতিকারীরা সব সময় কারো না কারো ক্ষতিসাধন করে থাকে। এদের কাজই হলো নিজ স্বার্থ সাধনের মানুষের ক্ষতি করা। মানুষের ক্ষতি করতে দুষ্কৃতিকারীদের একটুও বুক কাঁপানে এবং এদের মনে কোনো দয়া মায়া নেই। যতই দিন যাচ্ছ্বে ততই মানুষ তার নীতিবোধ বিসর্জন দিয়ে ঘটাচ্ছে অমানষিক কর্মকান্ড। সম্প্রতি জানা গিয়েছে সাভারের সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজে সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুরুতর আহত হয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ফ্লোর ইনচার্জ রিপন শেখ।

সাভারের সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজে সন্ত্রাসীদের গুলিতে কোম্পানির ফ্লোর ইনচার্জ রিপন শেখ গুরুতর আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তার স্ত্রী কনা ইসলাম হামলাকারীদের দ্রুত বিচার ও ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন।

কনা ইসলাম বলেন, শুটিংয়ে আমার স্বামীর গোপনাঙ্গ ভেঙে গেছে। স্বাভাবিক জীবনে ফেরার উপায় নেই তার। এ পর্যন্ত আমার স্বামীকে ১১ ব্যাগ রক্ত ​​দেওয়া হয়েছে। আমার স্বামী এখন মৃত্যুর সাথে লড়ছেন। হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

তিনি বলেন, গত ৩১ আগস্ট বিকেল ৪টায় সাভারের বিরুলিয়া খাগানের কারখানায় একদল বিদেশি সশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলা চালায়। তাদের গুলিতে তার স্বামী রিপন শেখ কাজ করতে গিয়ে গুরুতর আহত হন।

কনা জানান, সন্ত্রাসীদের অস্ত্রের আঘাতে কোম্পানির প্রোডাকশন ম্যানেজার, ভারতীয় নাগরিক নিভাশ রাও তালরি, চালক রফিকুল ইসলাম, পরিবহন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমসহ বেশ কয়েকজন গুরুতর আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে স্থানীয় থানা পুলিশ, শিল্প পুলিশ র‌্যাবসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আমার স্বামীসহ অন্যদের গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গত ১ সেপ্টেম্বর সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের পক্ষ থেকে সাভার থানায় একটি মামলা করা হয়। বর্তমানে আমার স্বামী রিপন শেখের জীবন সংকটাপন্ন। সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বেডে যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে কনা ইসলামের আত্মীয় ও তার শুভানুধ্যায়ী অ্যাডভোকেট কাজী শাহানারা ইয়াসমিনও উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, বর্তমান সরকারের কঠোর পদক্ষেপের জন্য দেশে কোনো রকম অন্যায় নেই বললেই চলে তবে কিছু সুযোগ সন্ধানি অপরাধীরা সুযোগ পেয়ে ঘটাচ্ছে অপরাধ। তবে অপরাধকারী যেই হোক অপরাধ করে লুকিয়ে থাকতে পারছেনা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ঠিকই তাদেরকে গ্রেফটার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসছের এবং দিচ্ছে উপযুক্ত শাস্তি।

About Shafique Hasan

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *