Saturday , May 25 2024
Breaking News
Home / Countrywide / এবার দলের সকল পদ থেকে অব্যাহতি দিয়া হলো মশিউর রহমান রাঙ্গাকে, জিএম কাদেরকে দিলেন হুমকি

এবার দলের সকল পদ থেকে অব্যাহতি দিয়া হলো মশিউর রহমান রাঙ্গাকে, জিএম কাদেরকে দিলেন হুমকি

নির্বাচন সামনে রেখে রাজনৈতিক দলগুলো প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে। ইতিমধ্যে বৃহৎ রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ ও বিএনপি তাদের দলীয় কমিটি থেকে শুরু করে আধ্যন্তরীন কন্দোল মেটানোর চেষ্টা করছে এবং নির্বাচনের প্রার্থী প্রাথমিক যাচাই-বাছাই শুরু করেছে। অপরদিকে সংসদীয় বিরোধী দল জাতীয় পার্টি মধ্যে ভিন্ন চিত্র দেখা যাচ্ছে। পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের নানা দ্বন্দ্বে জড়াচ্ছে রওশন এরশাদের নেতৃ্ত্বে জাতীয় পার্টির আরেক অংশের সাথে। সেই দ্বন্দ্বের জেরেই এবার দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ সব পদ পদবি থেকে অব্যাহতি দিলেন সংসদ সদস্য মশিউর রহমান রাঙ্গাকে পার্টির চেয়ারম্যান জিম এম কাদের।

দলের প্রেসিডিয়াম পদ থেকে অব্যাহতি মশিউর রহমান রাঙ্গা, প্রতিক্রিয়ায় দেখে নেওয়ার

জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কীভাবে রাজনীতি করেন তা খুঁজে বের করার হুমকি দিয়েছেন দলের সভাপতিমণ্ডলী থেকে সম্প্রতি অব্যাহতি পাওয়া মশিউর রহমান রাঙ্গা।

তিনি বলেন, আমাকে দল থেকে অব্যাহতি দিয়ে জিএম কাদের কীভাবে রংপুরে রাজনীতি করেন তাও দেখব। আমি সংসদে বিরোধী দলের চিপ হুইপ।আমাকে রওশন এরশাদ হুইপ বানিয়েছেন, তিনি (জি এম কাদের) চাইলেও আমার এই পদ খাইতে পারবেন না। আমি দেখে নেব, উনি কীভাবে রাজনীতি করেন।’

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে প্রেসিডিয়াম সদস্যদের বরখাস্তের খবর পেয়ে দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম সঙ্গে আলাপকালে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানান রাঙ্গা।

তিনি বলেন, হুসেইন মুহম্মদ এরশাদও জিএম কাদেরকে বহুবার বহিষ্কার করেছেন। এখন তিনি কথায় কথায় অন্যদের বহিষ্কার করেন। এবার এটার শেষ দেখে নেব।’

জাপা সাবেক এই মহাসচিব বলেন বলেন, “জনাব এরশাদের মৃত্যুর পর দলের নবম কাউন্সিলে জিএম কাদের চেয়ারম্যান এবং আমি মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছিলাম। কিন্তু তিনি আমাকে মহাসচিব পদ থেকে সরিয়ে দেন। আমি যেহেতু দলে ঠিকমতো সময় দিতে পারতাম না, তাই এটা মেনে নিয়েছিলাম। কিন্তু এখন তিনি এটা কি করলেন? অন্যের কথা শুনে তিনি এটা করেছেন তো, তারা উনাকে রক্ষা করতে পারবে কিনা দেখা যাবে।

আপনাকে কেন বহিষ্কার করা হয়েছে জানতে চাইলে রাঙ্গা বলেন, “সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার পদ থেকে রওশন এরশাদকে অপসারণের জন্য স্পিকারের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সেই চিঠি দেওয়ার বিষয়ে অনেক সংসদ সদস্য দ্বিমত পোষণ করেন। অনেক সংসদ সদস্যকে মিথ্যা বলে জি এম কাদের সেই চিঠিতে স্বাক্ষর করিয়ে নিয়েছেন। তাদের সেই চিটি আমাকে দেওয়া হয়েছিল স্পিকারকে দেওয়ার জন্য। কিন্তু আমি বলেছিলাম, এই চিঠি আপনি দেন। কিন্তু তিনি বললেন- এটা চিপ হুইপের দেওয়ার নিময়। তারপর আমি স্পিকারকে চিঠি দিয়েছি। বিষয়টা নিয়ে একটি বেসরকারি টেলিভিশনে কথা বলেছিলাম। তার কারণে হয়তো আমাকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘জিএম কাদের অনেক আবোল-তাবোল কথা বলেন। অনেক মিথ্যা কথা বলে। তিনি দলকে ধ্বংস করছেন। আমি জি এম কাদেরকে বলেছিলাম- জাতীয় পার্টি এমনিতে ৯ বার ভেঙেছে।আর পার্টিকে ভাঙবেন না। সবাই মিলে মিশে রাজনীতি করেন। প্রয়োজন হলে আমি জাতীয় পার্টি থেকে সরে যাব। আগামী সংসদ নির্বাচনেও অংশ নেব না। তারপরও আপনারা সবাই মিলে পার্টিকে রক্ষা করেন। কিন্তু তিনি এখন আমাকে অব্যাহতি দিলেন, এটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করলাম। আমি দেখে নেব, তিনি কীভাবে রাজনীতি করেন, কীভাবে রংপুরে যান। আমাকে বাদ দিয়ে কীভাবে সেখানে রাজনীতি করেন।’

রওশন এরশাদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ হয়েছে কি না জানতে চাইলে রাঙ্গা বলেন, ‘না, তার সঙ্গে এখনো যোগাযোগ করা হয়নি। দেখা যাক কি করা যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জাপার এক প্রেসিডিয়াম সদস্য দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, “মশিউর রহমান রাঙ্গা গতকাল একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দলের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে যেভাবে কথা বলেছেন, সেটা ঠিক হয়নি। কারণ দলের মধ্যে অনেক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। অনেক বিষয়ে মতানৈক্য আছে।কিন্তু গণমাধ্যমে প্রকাশ্যে বলা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, জাপা সংসদ সদস্যরা দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে সংসদে বিরোধী দলের নেতা করতে স্পিকারের কাছে চিঠি দিয়েছেন। তবে এ চিঠিতে আপত্তি জানিয়েছেন দলের সভাপতিমণ্ডলীর কয়েকজন সদস্য। কিন্তু সেটা দলের মধ্যেই হয়েছে। প্রকাশ্যে সবাই বলেছেন, আমরা একমত হয়ে, সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা থেকে রওশন এরশাদকে সরিয়ে জি এম কাদেরকে মনোনয়ন দিতে চিঠি দিয়েছি। কিন্তু রাঙ্গা সাহেব একটি টেলিভিশনে বলেছেন- স্পিকারকে চিঠি দেওয়ার বিষয়ে অনেক সংসদ সদস্যের আপত্তি ছিল। সেই কারণে উনাকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলে মনে হয়।’

এ প্রসঙ্গে রাঙ্গা বলেন, ‘দলের সংসদীয় কমিটির বৈঠকে কাজী ফিরোজ রশীদ বলেছিলেন, জিএম কাদেরের পরিবর্তে রওশনকে সংসদে বিরোধী দলের নেতা করা হলে আমাকে উপনেতা করতে হবে। অন্যথায় আমি চিঠিতে স্বাক্ষর করব না।”শুধু তাই নয়, অনেক সংসদ সদস্য আপাকে (রওশন এরশাদ) বলেছেন- তারা আগে জানলে সেই বৈঠকেই আসতেন না।’

উল্লেখ্য, বুধবার মশিউর রহমান রাঙ্গাকে জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ সব পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। জাপা চেয়ারম্যান জিএম কাদের দলীয় গঠনতন্ত্রের ভিত্তিতে মশিউর রহমান রাঙ্গাকে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ সব পদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছেন। ইতিমধ্যে এই আদেশ কার্যকর করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, কোনো কারন ছাড়ায় হঠাৎ তাকে অব্যাহতি দেওয়ায় তিনি ক্ষুদ্ধ প্রকাশ করেন। অব্যাহতি দেওয়ায় তিনি দলের চেয়ারম্যানের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরে তার এমন ্কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানায়।

About Babu

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *