Thursday , May 30 2024
Breaking News
Home / Countrywide / হয়ে গেছে বিরোধী দলের পাড়া–মহল্লার নেতাদের তালিকা, চলছে ধর পাকড়

হয়ে গেছে বিরোধী দলের পাড়া–মহল্লার নেতাদের তালিকা, চলছে ধর পাকড়

বাংলাদেশ একটি গণতান্ত্রিক দেশ। আর এই গণতান্ত্রিক দেশে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ৫ বছর অন্তর অন্তর। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। জাতীয় নির্বাচন মানেই দেশের জনগনের মধ্যে একটি উল্লাসপূর্ণ মন ওভব কাজ করা। সম্প্রতি জানা গিয়েছে ঢাকায় বিরোধী দলের পাড়া–মহল্লার নেতাদের তালিকা করছে পুলিশ।

রাজধানীতে বিএনপিসহ বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের তালিকা তৈরি করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। ঢাকার প্রতিটি থানা ও পাড়া-মহল্লাভিত্তিক নেতা-কর্মীর নাম-ঠিকানা; বিভিন্ন কমিটিতে পদ, পদবী ও মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে তালিকা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র বলছে, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে এ তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। পুলিশ সূত্র বলছে, সরকারবিরোধী আন্দোলনের নামে কেউ যাতে নাশকতা চালাতে না পারে এবং নাশকতার ঘটনায় অবিলম্বে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া যায় সেজন্য এই তালিকা করা হচ্ছে।

তবে বিরোধী দলকে দমন, নেতাদের গ্রেফতার ও মামলার আসামি করতে নির্বাচনের আগে এ তালিকা করা হচ্ছে বলে মনে করছেন বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতারা।

এই সরকারকে ক্ষমতায় রাখতে পুলিশ যদি এমন তালিকা রাখে, তাহলে তাদের প্রতি মানুষের অবিশ্বাস বাড়বে।
আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড
ডিএমপির একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, থানা, ওয়ার্ড ও মহানগর পর্যায়ের বিভিন্ন কমিটির সদস্য এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পাড়া-মহল্লা পর্যায় পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নেতা-কর্মীদের তথ্য সংগ্রহ ও তালিকা করা হচ্ছে। বড় দল হিসেবে বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের তালিকাকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া রাজনৈতিক দলগুলোর কার্যক্রম সম্পর্কে আগাম তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে।

ডিএমপির একজন মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ২০১৮ সালের নির্বাচনের আগে বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে নাশকতার অনেক মামলা ছিল। কোনো কোনো মামলায় বিদেশে অবস্থানরত মৃত ব্যক্তি ও নেতাদেরও আসামি করা হয়েছে। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা ও প্রশ্নের মুখে পড়ে পুলিশ। থানায় নেতা-কর্মীদের হালনাগাদ তথ্য ও মোবাইল নম্বরের তথ্য থাকলে ভবিষ্যতে এ ধরনের ভুল এড়ানো যাবে। আসলে প্রতিটি থানায় রাজনৈতিক দলগুলোর নিজ নিজ এলাকার নেতা-কর্মীদের তালিকা রয়েছে। নির্বাচনকে সামনে রেখে তালিকা হালনাগাদ করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার একেএম হাফিজ আক্তার প্রথম আলো</em>কে বলেন, রাজনৈতিক দলগুলোর নতুন কমিটি গঠন করা হচ্ছে। কমিটিতে থাকা নেতা-কর্মীদের কোথায় থাকেন তার তথ্য হালনাগাদ করতে বলা হয়েছে।

ডিএমপি সূত্রে জানা গেছে, গত জুলাই মাসে অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিএমপি কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম পুলিশের আটটি অপরাধ বিভাগ এবং জেলা প্রশাসক (ডিসি), অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিসি), সহকারী কমিশনার (এসি) ও পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের তালিকা তৈরির নির্দেশ দেন। দলগুলি

নির্দেশনায় বলা হয়, পাড়া-মহল্লাভিত্তিক রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীদের চিহ্নিত করে তাদের সম্পর্কে আগাম তথ্য সংগ্রহ করতে হবে। প্রতিটি থানায় পাড়া কমিটির তালিকা সংগ্রহ করতে হবে।

কমিটির সদস্য পদমর্যাদা, উপাধি, নাম ও মোবাইল নম্বর সংগ্রহে রাখতে হবে। যাতে ভাঙচুরের ঘটনায় অবিলম্বে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যায়। এ ছাড়া যেসব মসজিদ থেকে রাজনৈতিক ও উসকানিমূলক মিছিল বের হয়, সেসব মসজিদের তালিকা করতে হবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী দেশের একটি জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, এই সরকারকে ক্ষমতায় রাখতে পুলিশ এ ধরনের তালিকা তৈরি করলে তাদের ওপর জনগণের আস্থা বাড়বে।

প্রসঙ্গত, আসন্ন দ্বাদশ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশের রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা নিয়মিত তাদের কর্মসূচী পালন করে যাচ্ছেন রাজপথে। আর তখনি দেখা দিচ্ছে নানারকম সমসস্যার। আর সেই সমস্যার গড়াচ্ছে অনেক দূর যেয়ে। যাই হোক দেশের মানুষের প্রত্যাশা প্রত্যেকবারের মত এবারো দেশে সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

About Shafique Hasan

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *