Saturday , May 25 2024
Breaking News
Home / Countrywide / জাতীয় পার্টির মহাসচিব চুন্নুর প্রশ্নের জবাব না দিতে পেরে সংসদে বসে ক্ষমা চাইলেন হাসানুল হক ইনু

জাতীয় পার্টির মহাসচিব চুন্নুর প্রশ্নের জবাব না দিতে পেরে সংসদে বসে ক্ষমা চাইলেন হাসানুল হক ইনু

সারাদেশের দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। যার জন্য বিরোধী দলের নেতারা আওয়ামী লীগকে দায়ী করছে। অন্যদিকে দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধিতে ক্ষুব্ধ সারাদেশের সাধারণ মানুষ। এসকল বিষয় নিয়ে জাতীয় সংসদে স্পিকারের কাছে অভিযোগ করা শুরু বিরোধীদলের নেতারা। আওয়ামী লীগকে বিভিন্ন ভাবে একের পর এক প্রশ্ন ছুড়তে থাকে তারা।

 

এক পর্যায়ে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ও দলটির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুর এক প্রশ্নের জবাবে ক্ষমা চেয়েছেন ক্ষমতাসীন ১৪ দলীয় জোটের নেতা হাসানুল হক ইনু। নিজের ও সরকারের পক্ষ থেকে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির জন্য দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাবেক এই তথ্যমন্ত্রী।

 

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) জাতীয় পরিষদে, তিনি বৈশ্বিক মহামারী, রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধসহ সরকারের গৃহীত সাম্প্রতিক পদক্ষেপ সম্পর্কে জাতিকে অবহিত করতে কার্যপ্রণালী বিধির বিধি 147-এর অধীনে আনা সাধারণ প্রস্তাবের আলোচনার সময় ক্ষমা চেয়েছিলেন। , পণ্যের দাম বাড়ছে। প্রস্তাবটি উত্থাপন করেন জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ও দলের মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু।

 

ইনু বলেন, আমরা জানি মানুষ কষ্ট পাচ্ছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট বৈশ্বিক সংকটের কারণে হঠাৎ করেই এই দুর্ভোগ শুরু হয়েছে। মূল্যবৃদ্ধির জন্য সরকারের পক্ষ থেকে জনগণের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। আপনার প্রতি আমার সমবেদনা।

 

সরকারের মন্ত্রীদের বাড়াবাড়ির সমালোচনা করে হাসানুল হক ইনু বলেন, প্রধানমন্ত্রী শোক প্রকাশ করছেন। ধৈর্য ধরার আহ্বান। সেখানে মন্ত্রিসভার কিছু সদস্য দুর্ভোগের প্রতি সহানুভূতির পরিবর্তে তামাশা করছেন। এটা মর্মান্তিক এবং দুর্ভাগ্যজনক। আমি এর নিন্দা জানাই। যারা দায়িত্ব পালন করতে পারে না, তারা দায়িত্ব ছেড়ে দেয়। জনগণকে বাঁচান, প্রধানমন্ত্রীকেও বাঁচান।

 

চা শ্রমিকদের আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ঘটনাটি দেখে আমি মর্মাহত। তারা এতদিন ধরে অনশন করছেন। কোনো মন্ত্রী তাদের সঙ্গে কথা বলেননি। আমার মনে হয় অনেকেই প্রধানমন্ত্রীকে অন্ধকারে রাখেন। পরিস্থিতি জটিল হলে তাকে (প্রধানমন্ত্রী) হস্তক্ষেপ করতে হবে। তিনি হস্তক্ষেপ করে সমাধান করেন।

 

জাসদ সভাপতি বলেন, ডিলার, উৎপাদক, খুচরা বিক্রেতারা একে অপরকে নানা কথা বলে দোষারোপ করছেন। ডিমের ক্ষেত্রে দেখেছি ভোক্তা অধিকারের হস্তক্ষেপে দাম কমে গেছে। তাহলে চালের বাজার কমবে না কেন? মানে ব্যাপারটা আমাদের হাতে।

 

দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধির বিষয়ে আওয়ামী লীগ বলছে আন্তর্জাতিক বাজারে দ্রব্যমূল্যের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় আমাদের দেশে এমন পরিস্থিতি। এটা আমাদের সৃষ্টি কৃত নয়। তবু আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি কিভাবে বাজারে দ্রব্যমূল্যের দাম স্থিতিশীল করা যায়। সাধারন মানুষকে ধৈর্য ধারণ কারা অনুরোধ করেন তারা।

About Nasimul Islam

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *