Wednesday , May 29 2024
Breaking News
Home / Entertainment / তাহলে কি এই আন্টির নামে ২০ কোটির মামলা হবে, জানি না এই আইনে কী আছে: মাহি

তাহলে কি এই আন্টির নামে ২০ কোটির মামলা হবে, জানি না এই আইনে কী আছে: মাহি

চলতি বছরের গত ২৯ জুলাই দেশের বেশ কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ‘হাওয়া’। তবে মুক্তি পেতে না পেতেই ভক্তদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে দেয় সিনেমাটি। এতে অভিনয় করেছেন বাংলার অন্যতম গুণী তারকা চঞ্চল চৌধুরী ও নাজিফা তুষিসহ আরও অনেকেই। দিন দিন সিনেমাটির জনপ্রিয়তা ঝড়ের গতিতে বাড়তে থাকলেও এবার অনেকটা বিপাকে পড়েছেন ‘হাওয়া’র নির্মাতা সুমন।

তার বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও সুরক্ষা আইন-২০১২ লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে বন বিভাগের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট। গত বুধবার (১৭ আগস্ট) ২০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলাটি করা হয়।

অভিযোগে বলা হয়, ‘হাওয়া’ ছবিতে একটি শালিক পাখিকে খাঁচায় বন্দি দেখানো হয়েছিল। আর একপর্যায়ে পাখির মাংস পুড়িয়ে খেয়ে ফেলেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

যদিও নির্মাতা সুমনের দাবি, গল্পের প্রয়োজনে পাখিটিকে কিছুক্ষণ খাঁচায় রাখা হয়েছে। এরপর পাখিটিকে শুটিং শেষে ছেড়ে দেওয়া হয়। আর যে মাংস খেতে দেখানো হয়েছে তা আসলে মুরগির মাংস।

এদিকে ‘হাওয়া’র মতো জনপ্রিয় সিনেমার বিরুদ্ধে এমন মামলায় ক্ষুব্ধ চলচ্চিত্র ও সংস্কৃতি অঙ্গনের মানুষ। অনেকেই প্রতিবাদ করেছেন। এবার প্রতিবাদ করলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি।

ফেসবুক লাইভে মাহি বলেন, “আমি এক খালার বাসায় বেড়াতে এসেছি। এই যে এই পাখিটা, এটা একটা ময়না পাখি। সে এখনো কথা বলতে শেখেনি, অনেক ছোট। যে কথা বলার জন্য এই লাইভটা করছি, ওখানে কি হবে? এই খালার নামে ২০ কোটি টাকার মামলা হবে? কী করা উচিত? আন্টি যে এই পাখি লালন-পালন করে, তার নামে কি ২০ কোটি টাকার মামলা করা উচিত?’

মাহি আরও বলেন, আমার বাড়িতে না থাকলেও দেশের কোটি কোটি বাড়িতে এমন পাখি ও বিভিন্ন প্রাণী আছে, যদি সবার নামে মামলা না হয়, তাহলে কেন ‘হাওয়া’র নির্মাতার বিরুদ্ধে মামলা করা হলো? অদ্ভুত কারণে মামলা হয়েছে, জানি না এটা কী।”

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে পরিবর্তনের আহ্বান জানিয়ে মাহি বলেন, ‘আমি জানি না এই আইনে কী আছে; যদি থাকে, আমি বলব, এই আইন পরিবর্তন করা উচিত। আমার এরকম অনেক সিনেমা আছে, যেখানে আমরা খাঁচায় পাখি দেখাই। তাহলে সিনেমার বিরুদ্ধে কী মামলা হবে? এটা চিন্তার বিষয়।

ভালো সিনেমার সঙ্গে লেগে থাকার আহ্বান জানিয়ে মাহিয়া মাহি বলেন, “আমি বুঝতে পারছি না কেন আমরা একটি ভালো জিনিসের পেছনে রয়েছি। আসলে এসব পরিবর্তন হওয়া উচিত। যারাই বা যারা এই মামলা করেছে, তারা এটা করবেন না। সেই মনোভাব বদলান। একটি মামলার মতো এই, আমাদের সংস্কৃতি, এত সুন্দর সিনেমা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে, সত্যিই খুব খারাপ লাগছে। আসুন সবাই ‘হাওয়া’ দেখতে যাই, ‘পরাণ’ দেখতে যাই। আমি ভালো সিনেমার পাশে দাঁড়াই, ভালো সিনেমার প্রচারে সাহায্য করি। এরকম নিচ থেকে পা টেনে না ধরি।”

শুধু চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি একা নন, ঢাকাই চলচ্চিত্রের একঝাক তারকারাও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন।

About Rasel Khalifa

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *