Saturday , May 25 2024
Breaking News
Home / Countrywide / ইশরাককে যেখানে পাবে সেখানে গণধোলাইয়ের হুমকি সনজিতের, জানা গেল বিশেষ কারন

ইশরাককে যেখানে পাবে সেখানে গণধোলাইয়ের হুমকি সনজিতের, জানা গেল বিশেষ কারন

গতকাল শুক্রবার (১৯ আগস্ট) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিওতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) অন্যতম গুণী ও ত্যাগী নেতা ইশরাক হোসেন ‘কচি শিশু’ বলে মন্তব্য করে সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে এসেছেন ঢাবির ছাত্রলীগ সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস। শুধু ‘কচি শিশু’ই বলেননি সেই সঙ্গে ইশরাককে গণধোলাইয়ের’ হুমকিও দিয়েছেন তিনি

এছাড়া ইশরাকের একটি মন্তব্যর জন্য তাকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান এই ছাত্রলীগ নেতা।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বরগুনায় ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে পুলিশের মারপিট হয়। লাঠিপেটার ঘটনাকে ‘ক্রিকেট ম্যাচ’ বলে অভিহিত করেছেন ইশরাক। বিএনপি নেতার এই মন্তব্যকে ভালোভাবে নেননি ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস। জবাবে তিনি বলেন, ইশরাক বিএনপির বড় নেতা নন। বাবার কারণেই রাজনীতিতে এসেছেন। বিদেশে পড়াশোনার কারণে দেশের রাজনীতি সম্পর্কে ভালো ধারণা নেই তার।

এ সময় সঞ্জিত ইশরাক হোসেনকে ‘ছোট শিশু’ বলে ডাকেন। ইশরাক হোসেনের বাবা সাদেক হোসেন খোকার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তাকে ক্ষমা চাইতে বলেন। অন্যথায় ছাত্রলীগ তাকে (ইশরাক) যেখানেই পাবে তাকে মারধরের হুমকি দিয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আবেগ ও আদর্শ নিয়ে খেলার অধিকার আপনাকে কেউ দেয়নি। বিএনপির মতো এত বড় সংগঠনের নেতারা ছাত্রলীগ নিয়ে এমন কথা বলেন না।

সনজিত ইশরাককে উদ্দেশ্য করে আরো বলেন, ‘আপনি ছাত্রলীগের ‘ঠেডা’ খান নাই তো, পিটনা খান নাই তো…’। ইশরাকের রাজনীতিকে তিনি ‘টিকটকের’ সঙ্গে তুলনা করেন বলেন, ‘আপনি মিছিলে যে বক্সিং মারেন, এই ধরণের হাস্যরস…, এগুলো আমাদের এলাকার ভাগ্নে, ভাতিজি এবং ছোট বাচ্চারা করে… আপনি যদি রাজনীতি করতে চান তবে, সুস্থ ভাবে রাজনীতি করুন…”

এর আগে গত সোমবার (১৫ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে লাঠিচার্জ করে পুলিশ।

About Rasel Khalifa

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *