Sunday , May 26 2024
Breaking News
Home / Entertainment / জানা গেল হাওয়া সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার কারণ

জানা গেল হাওয়া সিনেমার পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার কারণ

সারা বাংলাদেশে বর্তমানে চঞ্চল চৌধুরী অভিনীত হাওয়া সিনেমা নিয়ে তোলপাড় চলছে।  বিশেষ করে এই সিনেমার সাদা সাদা গানটি প্রকাশিত হওয়ার পরে সারাদেশের মানুষের মধ্যে হাওয়া সিনেমাটা দেখার আগ্রহ বহুগুণ বেড়ে যায়।  বর্ধমান এ ছোট বড় সকলের মুখে মুখে চলে এসেছে সাদা সাদা গানটি। তবে এই সিনেমা নির্মাণ করে এবার বিপাকে পড়লেন মেজবাউর রহমান সুমন।

সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া চলচ্চিত্র ‘হাওয়া’ সিনেমার এই পরিচালক বিরুদ্ধে মামলা করেছে বন বিভাগের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট।

 

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২ লঙ্ঘনের অভিযোগে বুধবার (১৭ আগস্ট) ঢাকা মহানগর দায়রা আদালতে তার বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়।

 

বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের পরিচালক মো. ছানাউল্যা পাটোয়ারী এক সংবাদ মাধ্যমে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

আদালত সূত্রে জানা গেছে, বন্যপ্রাণী অপরাধ প্রতিরোধ ইউনিট বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২ এর ৩৮ (১-২), ৪১ ও ৪৬ ধারা লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা করেছে।

 

মামলার বাদী বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নার্গিস সুলতানা। মামলায় তদন্ত কমিটির অপর তিন সদস্য আব্দুল্লাহ আস সাদিক, অসীম মল্লিক ও রথীন্দ্র কুমার বিশ্বাসকে সাক্ষী করা হয়েছে।

 

প্রসঙ্গত, হাওয়াই মুক্তি পায় গত ২৯ জুলাই।মুক্তির পর একটি জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত ছবিটির পর্যালোচনায় জানা যায়, এই ছবিতে অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী একটি পাখি মেরে চিবিয়ে খেয়েছেন।

 

রিভিউতে বিস্তারিত লেখা হয়েছে, ‘মাছ ধরার নৌকার ক্যাপ্টেন নয়নতারা নাবিককে একটি পাখি পোষাতে চান। নিজে পানি পান করার সময় পাখির খাঁচায় পানিও ঢেলে দেন। পাখিকে নিয়মিত খাওয়ান। সে আবার পথ হারিয়ে এই শালিককে উড়িয়ে দিল। পোষা পাখি ফিরে না আসায় আশা খুঁজতে থাকে। তারপর পাখিটি ফিরে আসে। এটা পোড়াতেও সময় লাগে না। হলভর্তি দর্শকরা চঞ্চল চৌধুরীকে সরু চোখে পোষা পাখির হাড়-মাংস চিবিয়ে খেতে দেখেছেন। তীব্র রোমাঞ্চ এবং ঘৃণা সঙ্গে দেখুন. এই দৃশ্যটা তাদের মাথায় অনেক দিন ধরে থাকে।’

 

রিভিউ বেরিয়ে আসার পর, অনেকে অভিযোগ করেছেন যে হাওয়া চলচ্চিত্রটি একটি খাঁচা বন্দী পাখি দেখিয়ে বন্যপ্রাণী আইন লঙ্ঘন করেছে এবং একপর্যায়ে তাকে মেরে খেয়েছে। এরপর গত ১০ আগস্ট দেশের পরিবেশ ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করা ৩৩টি সংস্থার সমন্বিত প্রচেষ্টা বাংলাদেশ নেচার কনজারভেশন অ্যালায়েন্স (বিএনসিএ) এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয়। বন বিভাগ কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা জানান, প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে ছবিটি দেখে আইন লঙ্ঘনের প্রমাণ পেয়েছেন।

 

যদিও ছবির নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমন শুরু থেকেই দাবি করে আসছেন, তারা আইন লঙ্ঘন করেনি।

 

তার মতে, এটি একটি কাল্পনিক কাজ। এখানে কোনো বন্যপ্রাণী হত্যা করা হয় না। বিকল্পগুলি এখানে ভিজ্যুয়ালাইজেশনের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়।

 

সিনেমার শুরুতেই ‘ডিসক্লেমার’ দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা আলোচনা করছেন, তারা হয়তো সিনেমার শুরুটা ‘মিস’ করেছেন।

 

হাওয়া ছবিতে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাজিফা তুশি, শরিফুল রাজ, সুমন আনোয়ার, সোহেল মণ্ডল, নাসির উদ্দিন খান, রিজভী রিজু প্রমুখ।

এই সিনেমা প্রকাশিত হওয়ার পরে লাগাতার সিনেমা হলগুলোতে সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের উচ্ছে পড়া ভিড় লক্ষ করা যায়। এর আগেও  বাংলাদেশের সফল অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর অভিনীত আরো অনেক সিনেমা দর্শকের কাছে সাড়া ফেলেছে।  তারমধ্যে  মনপুরা, আয়না, ইত্যাদি।

 

About Nasimul Islam

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *