Sunday , May 26 2024
Breaking News
Home / Countrywide / এবার সরকার জ্বালানি ও গ্যাস সংকট তৈরী করে ভিন্ন পথে হাটার পাঁয়তারা করছে বললেন সাকি

এবার সরকার জ্বালানি ও গ্যাস সংকট তৈরী করে ভিন্ন পথে হাটার পাঁয়তারা করছে বললেন সাকি

সম্প্রতি জ্বালানি তেলের যে সংকট তৈরী হয়েছে এর প্রেক্ষাপটটি সরকার করেছে। কারন সরকার কৌশলে জ্বালানি সংকট তৈরী করেছে নিজেদের পটেক ভরাতে বলে অভিযোগ করেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। দেশে জ্বালানি ও গ্যাসের সংকট তৈরীর মাধ্যমে দুর্নীতির করার পথ সুগম করেছে। দেশ আমদানিনির্ভর করে পকেট ভরার পাঁয়তারা চলছে বলে মন্তব্য করে এ প্রসঙ্গে যা বললেন জোনায়েদ সাকি।

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেন, আমরা যে জ্বালানি সংকটে আছি, এই সংকট আমাদের জন্য অনিবার্য ছিল না। এটাকে অনিবার্য করে তোলা হয়েছে। সংকট সৃষ্টি করে এখন বলা হচ্ছে গ্যাস নেই, আমদানী করতে হবে। পকেট ভরার জন্য আমদানির ওপর নির্ভরশীল করা হচ্ছে।

বুধবার (১৭ আগস্ট) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সংকট: নাগরিক ভাবনা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকের আয়োজন করে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)।

গোলটেবিল বৈঠকে জোনায়েদ সাকি বলেন, এক সময় বলা হতো দেশ গ্যাসে ভাসছে। গ্যাস রপ্তানি হবে। আমরা বলেছি, রপ্তানি হতে দেওয়া হবে না। দেশের সম্পদ দেশেই ব্যবহার করতে হবে। আমরা আন্দোলন করে গ্যাস রপ্তানি ঠেকিয়ে দিতে পেরেছিলাম। এখন আবার বলা হচ্ছে আমাদের গ্যাস নেই এবং পাওয়ার সম্ভাবনাও খুবই কম।

তিনি বলেন, যদিও সরকার ২০১০ সালে নরওয়ে এবং যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথভাবে যেই সমীক্ষা করেছিল সেখানে শুধু স্থলভাগেই ৩৪ থেকে ৩৮টি গ্যাসক্ষেত্র পাওয়ার সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছিল। ২০১২ সালে সমুদ্র বিজয়ের পরও সেখানে গ্যাস পাওয়ার সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছিল। তারপর বলা শুরু করলো গ্যাস পাওয়ার সম্ভাবনা নেই। এর পেছনে মূল উদ্দেশ্য হলো আমাদের পুরো সিস্টেমকে আমদানি নির্ভর করা। আমরা প্রথম (গ্যাস রপ্তানি) বন্ধ করতে পারলেও দ্বিতীয়টি (গ্যাস আমদানি) বন্ধ করতে পারছি না।

সাকি বলেন, বর্তমান সরকার সবসময় আগের সরকারের দুর্নাম করে বলে বিদ্যুৎ খাতে কোনো উন্নয়ন করেনি, উৎপাদন করতে পারেনি, দেশকে অন্ধকারে ডুবিয়েছে। বিষয়টি অনেকাংশেই ঠিক, তারা (বিএনপি সরকার) দেশকে অন্ধকারে ডুবিয়েছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর ভালো বাণিজ্যক্ষেত্র তৈরি করেছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

গোলটেবিল বৈঠকে আরও বক্তব্য দেন সুজান সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার, অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ, জ্বালানি বিশেষজ্ঞ বদরুল ইমাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতত্ত্ব বিভাগের অধ্যাপক, এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার ম্যাগাজিন সম্পাদক মোল্লাহ আমজাদ হোসেন প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, সরকার নিজেদের স্বার্থে দেশকে আমদানি নির্ভর করতে চায় বলে মন্তব্য করেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। জনগনের ওপর চাপ বাড়াতে পারে এমন চিন্তা না করে সরকার নিজেদের ইনকামের কথা ভাবছে।

About Babu

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *