Wednesday , May 29 2024
Breaking News
Home / Countrywide / উত্তরা ট্রাজেডি:বিয়ের একদিনের মাথায় শেষ সব আনুষ্ঠানিকতা মা হারিয়েছেন নববধূ, বাবা হারালেন বর

উত্তরা ট্রাজেডি:বিয়ের একদিনের মাথায় শেষ সব আনুষ্ঠানিকতা মা হারিয়েছেন নববধূ, বাবা হারালেন বর

উত্তরার ঘটনায় শোক যেন কাটছেই না। একের পর এক ঘটনা সামনে আসছে। বিশেষ করে দুর্ঘটনার শিকার কনে রিয়া মনি হারিয়েছেন মা ফাহিমা বেগমকে। আর বর হারালেন তার বাবা রুবেল হাসানকে। গত শনিবার (১৩ আগস্ট) বিয়ে করেন রিয়া মনি ও হৃদয়। আজ সোমবার (১৫ আগস্ট) বিয়ের সব আনুষ্ঠানিকতা শেষ হয়েছে। বিয়ের অনুষ্ঠান সেরে মেয়ের বাড়িতে ফেরার পথে উত্তরায় সড়ক দুর্ঘটনায় নির্মম এই পরিবার। এ সময় গাড়িতে থাকা কনে রিয়ার খালা ঝর্ণা ও তার দুই সন্তানও মারা যান। পরিবারের সদস্যরা শোকে স্তব্ধ।

রাজধানীর উত্তরা জেলায় একটি প্রাইভেটকার দুর্ঘটনায় ক্রেন উল্টে এবং গার্ডার পিষ্ট হয়ে পাঁচজন নিহত হলেও আশেপাশের লোকজন প্রাইভেটকার থেকে নবদম্পতি হৃদয় ও রিয়া মনিকে বের করতে সক্ষম হয়। পরে তাদের রাজধানীর উত্তরা ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হৃদিয়া ও রিয়া মনির শারীরিক অবস্থা এখন স্থিতিশীল। তারা নির্ভীক। শুধু পায়ে চোট লেগেছে। তবে তা গুরুতর নয় বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্য জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, কবে নাগাদ ছেড়ে দেওয়া হবে তা চিকিৎসকরা জানাবেন।

স্বামীকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ হৃদয়ের মা আমেনা বেগম। বারবার মূর্ছা যাচ্ছে সে। কান্নাজড়িত কণ্ঠে তিনি বলেন, গত শনিবার আমি হৃদয়কে বিয়ে করেছি। পরিবারের সবাইকে নিয়ে আনন্দ করলাম। আজও অনেক আনন্দের সময় কেটেছে বিয়ের অনুষ্ঠানে। কিন্তু এখন স্বামী রুবেল হাসানকে হারিয়েছি। স্ত্রী ও ছেলেকেও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পরিবারটি সম্পূর্ণ ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।

গতকাল সোমবার বিয়ের বৌভাতের অনুষ্ঠান শেষে ফিরে যাওয়ার সময় রাজধানীর আশুলিয়া যাওয়া পথে জসীমউদদীনে ঢাকা-ময়মনসিংহ রোডে পৌঁছালে বিআরটি প্রকল্পের একটি ক্রেন থেকে গার্ডার প্রাইভেট কারের ওপর পড়ে। এতে ৫ জন নিহত ও ১ জন আহত হন।

About Rasel Khalifa

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *