Wednesday , February 21 2024
Breaking News
Home / Politics / জ্বালানি তেলে আসলে সরকার কোনো ভর্তুকি দেয়নি, দেশ শ্রীলঙ্কা হতে চলছে : কাদের

জ্বালানি তেলে আসলে সরকার কোনো ভর্তুকি দেয়নি, দেশ শ্রীলঙ্কা হতে চলছে : কাদের

বর্তমানে দেশের সার্বিক পরিস্তিতি নিয়ে এবং আলোচিত ঘটনা নিয়ে কথা বললেন জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জি এম কাদের। সম্প্রতি দেশে তেলের দাম বৃদ্ধি সহ নানা বিষয় নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন ‘ইউরোপ, আমেরিকা আর সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্য ছেড়ে দেয়া উন্নয়নের নৌকা এখন শ্রীলঙ্কার পথে। দেশের স্বার্থে কথা বললেই সরকারের কিছু নেতা ষড়যন্ত্র খোঁজে।’

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর মিরপুরের চিড়িয়াখানা রোডের ঈদগাহ মাঠে মিরপুর ও শাহ্আলী থানার দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা যখন বলেছি, দেশ শ্রীলঙ্কার মত ব্যর্থ হতে চলছে। তখন আমাদের মূর্খ বলেছে। এখন আমাদের প্রশ্ন, দেশে লোডশেডিং কেন? ডলারের দাম এতো বেড়েছে কেন? জ্বালানি তেলের দাম এতো বেড়েছে কেন? সারা দিন বিশ্বব্যাংক আর আইএমএফ-কে গালাগাল দিয়ে এখন ঋণের জন্য তাদের পেছনে ঘুরছেন কেন? বিদ্যুৎ উৎপাদন করেনি এমন প্রতিষ্ঠানকে বছরে ২৪ হাজার কোটি টাকা ক্যাপাসিটি চার্জ দেয়া হয়েছে শুধু লুটপাটের জন্য।’

জ্বালানি খাতের দুর্নীতির শ্বেতপত্র প্রকাশ করার দাবি জানিয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘দেশের মানুষ জানতে চায়, প্রতি বছর কতো হাজার কোটি টাকা দুর্নীতি হয়েছে জ্বালানি খাতে। কারা এই দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত? দুর্নীতির সঙ্গে জড়িতদের তালিকা প্রকাশ করতে হবে। বিচারের মুখোমুখি করতে হবে দুর্নীতিবাজদের।’

কাদের বলেন, ‘সরকার বলছে জ্বালানি তেলের মূল্যে ভর্তুকি দিচ্ছে। আসলে কোনো ভর্তুকি দেয়নি সরকার। কয়েক বছরে ৪২ হাজার কোটি টাকা মুনাফা করেছে, সেই টাকা দিয়েই তেলের মূল্য সমন্বয় করলে তেলের দাম বাড়াতে হতো না। তেলের দাম বাড়িয়ে মানুষকে মৃত্যু যন্ত্রণার মুখে ঠেলে দিয়েছে সরকার। জ্বালানি তেলের দাম বাড়াতে সরকার দেশের মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিবছর কারা হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে, তাদের তালিকা জানতে চায় দেশের মানুষ। পাচারকারীদের বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। গেলো বছর সুইস ব্যাংকে বাংলাদেশ থেকে ৪ লাখ কোটি টাকা পাচার হয়েছে। সরকার পাচারকারীদের তথ্য প্রকাশ না করে নিজেকেই প্রশ্নবিদ্ধ করছে। দুর্নীতিবাজ ও পাচারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে অপরাধীদের পক্ষ নিচ্ছে সরকার। তাই সাধারণ মানুষ মনে করছে বর্তমান সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও ক্ষমতাসীন দলের লোকজনদের বাঁচাতে দুর্নীতির তথ্য প্রকাশ করছে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা বললেই আওয়ামী লীগের কিছু নেতা মনে করেন, তাদের গালাগাল দেয়া হচ্ছে। অযৌক্তিকভাবে তারা আমাদের গালাগাল দিতে শুরু করেন। তারা বুঝতে চান না, মানুষ তাদের ভোটাধিকার ফিরে পেতে চায়। মানুষ নির্বাচনের মাধ্যমে প্রতিনিধি নির্বাচিত করে দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিতে চায়। দেশের মানুষ আর টালবাহানার নির্বাচন চায় না।’

এ সময় সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন, জাতীয় পার্টি মহাসচিব মো. মজিবুল হক চুন্নু, কো-চেয়ারম্যান সাবেক মহাসচিব ও সাবেক মন্ত্রী এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারসহ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত,সম্প্রতি দেশে জ্বালানি তেলের মুল্য বৃদ্ধি পেয়েছে এবং এই কারনে দেখা যাচ্ছে মানুষের মধ্যে ব্যপক উদ্বেগ কাজ করছেন এক লাফে ৫০ শতাংশ দাম এর আগে কোন জিনিসের বাড়ানো হয়নি যা নিয়ে মানুষ চরম অসন্তোস প্রকাশ করছে।

About Rasel Khalifa

Check Also

বিএনপির নীতিনির্ধারণী পর্যায়ে রদবদল আসছে, স্থায়ী কমিটি থেকে বাদ যাবে কয়েকজন

বিএনপির নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের কমিটি পুনর্গঠন নিয়ে দলের শীর্ষ পর্যায়ে আলোচনা চলছে। দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *