Monday , March 4 2024
Breaking News
Home / Countrywide / স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে নেতিবাচক কাজ করতেন তারা, জনতার হাতে পড়তেই প্রকাশ পেল পরিচয়

স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে নেতিবাচক কাজ করতেন তারা, জনতার হাতে পড়তেই প্রকাশ পেল পরিচয়

প্রতিনিয়ত দেশের বিভিন্ন জায়গায় প্রতারণার বিভিন্ন ঘটনা ঘটছে অনেকেই এই সকল প্রতারক চক্রের ফাঁদে পড়ে নিজেদের মূল্যবান সামগ্রী কিংবা নগদ টাকা পয়সা হারিয়ে সর্বশ্রান্ত হচ্ছে। বিভিন্নভাবে এই সকল প্রতারক চক্র সাধারণ মানুষকে বোকা বানানোর জন্য পায়তারা করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতেও তারা তাদের এই কর্মকান্ড চালিয়ে মানুষকে ধোঁকা দিচ্ছে

বাড়ি ভিন্ন এলাকায়। কারো সঙ্গে কোনো আত্মীয়তার সম্পর্কও নেই। কিন্তু পরিচয় দেন স্বামী-স্ত্রী। এই পরিচয়ে অটোরিকশা ভাড়া নেন তারা।এরপর কৌশলে অটোরিকশা ছিনতাই করাই তাদের পেশা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে একটি ইজি বাইক ছিনতাইকালে তাদের আটক করে স্থানীয়রা। এ সময় ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইল বালিকা বিদ্যালয়ের মার্কেটের সামনের সড়কে তাদের পিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

অটোরিকশার চালক উপজেলার চণ্ডীপাশা ইউনিয়নের ধুরুয়া গ্রামের মো. জাকিরুল ইসলাম জানান, ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারবাড়ী থেকে স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে তার অটোরিকশাটি রিজার্ভ করেন তারা। নান্দাইল পৌরসভায় প্রবেশ করতেই নারী যাত্রী তাকে অটোরিকশাটি একটি গলিতে প্রবেশ করতে বলেন। সেখানে একটি বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার আনতে পাঠান তাকে। কিছুদূর যেতেই ওই নারীকে আর দেখতে পান না তিনি। দ্রুত ফিরে তিনি তার অটোরিকশাটি অন্য কাউকে চালিয়ে যেতে দেখে ধাওয়া করেন। এক পর্যায়ে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের নান্দাইল বালিকা বিদ্যালয়ের মার্কেটের সামনে থেকে কয়েকজন যুবক অটোরিকশাটি আটক করেন।

পরে জানা যায়, তারা স্বামী-স্ত্রী সেজে এভাবেই ইজি বাইক ছিনতাই করেন। গণপিটুনির সময় খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে নারী নিজেকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ এলাকার আল-আমীনের স্ত্রী শিরিন আক্তার আঁখি বলে পরিচয় দেন। অন্যদিকে পুরুষ নিজের নাম নাঈম ইসলাম বলে জানান। তিনি নান্দাইল উপজেলার মহেষকুড়া আবাসিক প্রকল্পের বাসিন্দা বলে দাবি করেন।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, দীর্ঘদিন ধরে তারা এভাবেই কৌশলে চালককে ফাঁদে ফেলে ইজি বাইক ছিনতাই করে আসছিলনে। তাদের একটি বড় চক্রও রয়েছে। মামলার পর গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে চক্রটির সন্ধানের চেষ্টা করা হবে।

বর্তমানে বিভিন্ন জায়গায় দেখা যায় প্রতারণা করে মানুষের মূল্যবান জিনিসপত্র হাতিয়ে নেওয়ার চক্র গড়ে উঠেছে এরা সাধারণ মানুষকে বোকা বানিয়ে সুযোগ বুঝে তাদের সাথে প্রতারণা করে সর্বস্ব হাতিয়ে নেয়। নিজেদের প্রকৃত পরিচয় গোপন করে তারা সাধারণ মানুষের সাথে মিশে এ ধরনের কর্মকাণ্ড করে

About Rasel Khalifa

Check Also

হঠাৎ উপজেলা নির্বাচন নিয়ে নতুন সুর বিএনপির

আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না বলে জানিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *