Sunday , March 3 2024
Home / Countrywide / আপাতত আন্দোলনে যাচ্ছে না বিএনপি, জানা গেল দলের মহাপরিকল্পনা সম্পর্কে

আপাতত আন্দোলনে যাচ্ছে না বিএনপি, জানা গেল দলের মহাপরিকল্পনা সম্পর্কে

সাম্প্রতিক সময়ে ভোলায় পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের সাথে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে যে সংঘ”/র্ষের ঘটনা ঘটে, এই ঘটনায় স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলের দুই নেতা প্রয়াত হন। এই ঘটনার পর বিএনপি এর অঙ্গসংগঠন ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা সারাদেশে হরতালসহ বিভিন্ন ধরনের বিক্ষো”ভ কর্মসূচি আয়োজন করার কথা বললেও সে পথ অনুসরণ করেনি বিএনপি। তবে তারা ঘটনা কি ছিল সে বিষয়টি বিশ্লেষণ করছেন। এটি আগেই পরিকল্পনা করে রাখা হা”মলা নাকি পুলিশের ধারাবাহিক নৃ/”শংস আচরনের একটি অংশ সে বিষয়ে খতিয়ে দেখছে বিএনপির নীতিনির্ধারকরা।

হরতালে না যাওয়ার পথে বেশ কিছু যুক্তি দিচ্ছেন শীর্ষ নেতারা।

তারা বলছেন, বিএনপি আন্দোলনের জন্য সঠিক সময়ের অপেক্ষা করছে। সে সময় না আসা পর্যন্ত তারা কঠোর কর্মসূচির পথে যাবে না। সরকারের মেয়াদ শেষে নির্দলীয় সরকারের দাবিতে আন্দোলন করার পরিকল্পনা থাকলেও রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট তৈরি হলেই কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার কৌশল নিয়েছে দলটি।

ভোলার ঘটনার পরদিন জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বক্তব্য। জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম প্রথমে মহাসড়ক দখলের নির্দেশ দিয়ে বলেন, হরতাল পরে, আগে মাঠ দখল করতে হবে।

ফখরুল ইসলামের বক্তব্যের ভিত্তিতে বিএনপির একাধিক শীর্ষ ও গুরুত্বপূর্ণ নেতার সঙ্গে কথা বলেছে দেশের একটি সংবাদ মাধ্যম। আন্দোলনের জন্য মাঠ প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে জানান তারা। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধিতে অতিষ্ঠ মানুষ। লোডশেডিংয়ের কারণে মানুষের ক্ষো”ভ বাড়ছে। জ্বালানি ও ডলার সংকট ব্যবসা-বাণিজ্যে প্রভাব ফেলছে। এসব সংকট নিয়ে এখন ধারাবাহিক কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামবে বিএনপি। এরই মধ্যে পাঁচ দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি।

ঐক্য প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত বিএনপির এক নেতা বলেন, ২২টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপে সবাই একযোগে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের বিষয়ে একমত হয়েছেন। সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে সরকারবিরোধী কর্মসূচি পালন করছে। সব দল এক মঞ্চে এসে আন্দোলনের কর্মসূচি দিলে তা ভিন্ন মাত্রা পাবে। ঐক্য প্রক্রিয়া চূড়ান্ত না হওয়ায় এখনই ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন শুরু করা সম্ভব নয়।

সংশ্লিষ্ট নেতাদের মতে, সরকারের শেষ সময়ে নানা ধরনের সংকট তৈরি হয়। সরকার নানা চাপের মধ্যে থাকে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পশ্চিমা দেশসহ দাতাদের চাপ। এবার চাপ আগে শুরু হয়েছে।

দেশে এখন আন্দোলনের প্রেক্ষাপট তৈরি হতে পারে বলে মনে করছেন বিএনপি নেতারা। সে জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে বিএনপি। দলের সকল ইউনিট ও সংগঠনকে সংগঠিত করা হচ্ছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, “হরতাল না হলেও আমরা লাগাতার কর্মসূচিতে আছি। আন্দোলনের মাধ্যমে রাজপথ দখল করতে পারলেই হরতাল দেওয়া হবে।’

তদন্ত শেষে ঢাকায় প্রতিনিধি দল.

ঘটনার তদন্তে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের নেতৃত্বে একটি দলীয় প্রতিনিধি দল ভোলায় গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। প্রতিনিধিদলের সদস্যরা স্থানীয় লোকজন, সাংবাদিক ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলেন। সবার বক্তব্য শুনে তারা বলেন, ওই দিন নেতাকর্মীরা পুলিশের একতরফা হাম”লার শি’কার হন।

প্রতিনিধি দলটি গত বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফিরেছে। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য, দলের তদন্ত কমিটির প্রধান গয়েশ্বর চন্দ্র রায় সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, বিক্ষো”ভের জবাবে পুলিশ লাঠিচার্জ এবং পরে লক্ষ্যবস্তুতে গু’/লি চালায়। তিনি বলেন, কমিটির সদস্যদের মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীনকে তদন্ত প্রতিবেদন তৈরির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জেলা বিএনপির অর্থ সহায়তা.

এদিকে প্রথম ছাত্রদলের সভাপতি নূরে আলম ও স্বেচ্ছাসেবক নেতা আব্দুর রহিমের মাগফিরাত কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। জানা গেছে, জেলা বিএনপির সভাপতি আলমগীর এবং সেইসাথে শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা তাদের বাড়িতে গিয়ে তাদের পরিবারকে সান্ত্বনা দেন এবং সমবেদনা জানান। সেই সাথে তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর কথা বলে নগদ অর্থ শায়তা প্রদান করেন। তবে তার মতো নেতার প্রয়ানে যে অপূরনীয় ক্ষতি হয়েছে সেটা কখনই পূরন হবার নয় বলে জানিয়েছে নেতারা।

About bisso Jit

Check Also

আর চাঁদ রাতে দেখা হবে নারে দোলা: নাদিয়া

রাজধানীর বেইলি রোডে বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে বান্ধবী দোলা ও তার বোনকে হারিয়েছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *