Tuesday , February 27 2024
Breaking News
Home / Politics / সোমবার সারাদেশে জানাজার ডাক বিএনপির

সোমবার সারাদেশে জানাজার ডাক বিএনপির

দির্ঘ সময় ধরে ক্ষমতার বাইরে রয়েছে দেশের প্রধান বিরোধি দল বিএনপি তবে মাঝে মধ্যেই তারা বিভিন্ন কর্মসুচিতে অংশগ্রহন এবং সভা সমাবেশের মধ্য দিয়ে দলের নেতাকর্মীদের উজ্জিবিত করার চেষ্টা করছে। তারই ধারাবাহিকতায় ভোলায় বিএনপি কর্মী হত্যার প্রতিবাদে সারাদেশে বিক্ষোভসহ দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। এরই অংশ হিসেবে সোমবার কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশে প্রতিবাদ কর্মসূচি এবং মঙ্গলবার জেলা পর্যায়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ভোলায় স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা হত্যার মধ্য দিয়ে সরকারের গুম ও হত্যার আসল চরিত্র বেরিয়ে এসেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর প্রতিবাদে সোমবার নয়াপল্টনে গায়েবানা জানাজা ও মঙ্গলবার বিক্ষোভ সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি।

বিদ্যুতের লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে ভোলায় সমাবেশে পুলিশের হামলা ও গুলিবর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে আগামী মঙ্গলবার ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভসহ দুই দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। রোববার বিকেলে গুলশান চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সামনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, ভোলার বিক্ষোভে পুলিশ হামলা ও গুলি চালায়। এতে দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য সচিব আব্দুর রহিম নিহত হন। আহত হয়েছেন আরও অনেকে। এই ফ্যাসিবাদী ঘটনার প্রতিবাদে আমরা কর্মসূচি ঘোষণা করছি।

সোমবার সারাদেশে জেলা পর্যায়ে গায়েবানার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকায় সকাল সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে হবে। আর ২রা আগস্ট ঢাকাসহ সারাদেশে জেলা পর্যায়ে প্রতিবাদ সমাবেশ হবে। এই আমাদের প্রোগ্রাম.

মির্জা ফখরুল বলেন, বিদ্যুতের লোডশেডিংসহ জনগণের অভিযোগে সমাবেশে পুলিশ গুলি করে হত্যা করেছে। এটা একটা বড় ঘটনা। আমি সারাদেশের মানুষকে এ ধরনের হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও প্রতিবাদ করার আহ্বান জানাই। শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশি হামলা ও গুলিবর্ষণের মাধ্যমে সরকারের ফ্যাসিবাদী প্রকৃতির বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। তাদের একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠা, বিনা ভোটে সরকার গঠন এবং জনগণের ন্যায্য দাবিকে পদদলিত করার ঘৃণ্য উদ্দেশ্য প্রস্ফুটিত হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদ্যুতের দাবিতে আজকের বিক্ষোভের দিকে তাকাবেন না। এটা জনগণের দাবি। এটা সরকার পরিবর্তনের কোনো আন্দোলন বা কর্মসূচি ছিল না। এটা তারা সহ্য করতে পারে না। সেখানে তারা বিনা উসকানিতে গুলি চালিয়ে আমাদের নেতা-কর্মীদের হামলা চালিয়ে হত্যা করেছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি দেশে লোডশেডিং ব্যপকভাবে শুরু হয়েছে এবং জ্বালানী তেলের মুল্যবৃদ্ধি সহ বিএনপির নেতাকর্মীদের না ফেরার দেশে পাঠানোর প্রতিবাদে নতুন কর্মসুচির ঘোষনা দিয়েছে দলটি।

About Rasel Khalifa

Check Also

‘আ.লীগ রঙ দেখছে, কিন্তু রঙের ডিব্বা দেখেনি’ দল যে সিদ্ধান্ত নেবে মাথা পেতে নেব

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ফজলুর রহমান বলেছেন, বিএনপি যদি ব্যক্তিগতভাবে স্থানীয় নির্বাচনে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেয়, তাতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *