Monday , March 4 2024
Breaking News
Home / International / ফের অবতরনের সময়ে স্পাইজেট বিমান বিপাকে, ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেল যাত্রীদের প্রাণ

ফের অবতরনের সময়ে স্পাইজেট বিমান বিপাকে, ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেল যাত্রীদের প্রাণ

স্পাইজেট বিমানে বিপদ যেন কোনভাবেই পিছু ছাড়ছে না। সম্প্রতি বিভিন্ন কারনে এই বিমানের সেবা নিয়ে মানুষের ভিতরে ব্যাপক আলোচিত হয়েছে। কখনো মাঝ আকাশে যান্ত্রিক ত্রুটি, কখনো আকাশে থাকাকালীন সময়ে বিমানে ধোঁয়া সহ বড় বিপদের সম্মুক্ষিন হয়েছে বিমানটি। যা রীতিমত যাত্রী মনে আতঙ্কের সৃষ্টি করেছিল। আবারো একটি পাখির জন্য বিপাকে পরতে পরতেও বেঁচে গেল বিমানটি।

অবতরণের সময় বিমানের সামনের কাচে একটি পাখির ধাক্কা লাগে বলে অভিযোগ করেন বিমানের পাইলট। চালকের তৎপরতায় বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা পায় বিমানটি। কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণের সময় একটি বিমানের সামনের কাচে পাখির ধাক্কা লাগল। মঙ্গলবার সকালের ওই ঘটনায় কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলেই জানিয়েছেন বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। পরে বিমানটি নির্বিঘ্নে উড়েও যায় মুম্বইয়ে উদ্দেশে। বিমানবন্দর সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৩৫ মিনিট নাগাদ স্পাইস জেটের একটি বিমান মুম্বই থেকে কলকাতায় অবতরণ করছিল। সেই সময় বিমানের সামনের কাচে একটি পাখির ধাক্কা লাগে বলে অভিযোগ করেন বিমানের পাইলট। চালকের তৎপরতায় বড়সড় বিপদ থেকে রক্ষা পায় বিমানটি। যাত্রী এবং বিমানকর্মীদের কোনও ক্ষতি হয়নি। বিমানটিরও কোনও ক্ষতি হয়নি বলে জানা গিয়েছে। পরে বিমানটি নির্দিষ্ট সময়ে কলকাতা বিমানবন্দর ছেড়ে মুম্বইয়ের উদ্দেশে রওনাও হয়।
এর আগে কখনও বিমানে পাখির ধাক্কা, আবার কখনও মাঝ আকাশে কেবিন থেকে কালো ধোঁয়া— মাসখানেকের মধ্যে বেশ কিছু গোলযোগ দেখা দিয়েছে স্পাইসজেটের একাধিক বিমানে।

উল্লেখ্য, কিছুদিন ধরে আলোচনায় থাকা স্পাইজেটের একটি বিমান আবারো বড় ধরনের দুর্ঘটানার হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে। ঘটনাটি জানিয়েছেন ক্ষোদ বিমানের পাইলট নিজেই। অবতরনের সময়ে হঠাৎ করে একটি পাখি বিমানের সামনের অংশে গ্লাসের সাথে বারি খায়। ঘটনার সময়ে পাইলটের দক্ষতার কারনে বড় ধরনের দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায়।

About Syful Islam

Check Also

হাতেনাতে ধরা খেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন সরকারি কর্মকর্তা, ভিডিও ভাইরাল

ঘুষ নিতে গিয়ে ভারতের দুর্নীতি দমন ব্যুরোর (এসিবি) হাতে ধরা পড়েছে এক ভারতীয় সরকারি কর্মকর্তা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *