Wednesday , February 21 2024
Breaking News
Home / National / ৩২ দিনের ডিজেল আর ৯ দিনের অকটেন মজুদ আছে: বিপিসি চেয়ারম্যান

৩২ দিনের ডিজেল আর ৯ দিনের অকটেন মজুদ আছে: বিপিসি চেয়ারম্যান

সারা বিশ্বে জ্বালানী তেলের মুল্যবৃদ্ধি এবং এই মন্দার প্রভাব অনেকটাই পড়েছে আমাদের দেশে। এ নিয়ে গনমাধ্যম এবং সামাজীক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যপক আলোচনা সমালোচনা চলছে। সম্প্রতি দেখা গিয়েছে বেশ কিছু পেট্রোল পাম্পে তেল নেই এমন লেখা টানিয়ে রাখা হয়েছে। এই নিয়ে এখন সামজীক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা।

বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন-বিপিসির চেয়ারম্যান এবিএম আজাদ বলেছেন, দেশে এই মুহূর্তে জ্বালানি তেলের কোনো ঘাটতি নেই। বর্তমানে ৩২ দিনের ডিজেল মজুদ রয়েছে। অকটেনের ৯ দিনের রিজার্ভ আছে।

বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, এরই মধ্যে আগামী ৬ মাসে ডিজেল আমদানি নিশ্চিত হয়েছে। বিপিসির তথ্য অনুযায়ী, দেশে ৪ লাখ ৩১ হাজার ৮৩৫ মেট্রিক টন ডিজেল, ১২ হাজার ২৩৮ মেট্রিক টন অকটেন এবং ৬২ হাজার ৯৯১ মেট্রিক টন জেট ফুয়েল রয়েছে। বিপিসি চেয়ারম্যান আরও বলেন, কোনো পেট্রোল পাম্পকে গ্রাহককে নির্দিষ্ট পরিমাণ জ্বালানি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়নি। কেউ নিজ উদ্যোগে এ কাজ করলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানানোর পরামর্শ দেন।

বিপিসির নিয়ন্ত্রণাধীন পদ্মা, মেঘনা ও যমুনা অয়েল কোম্পানির বিভিন্ন ডিপো ও ইস্টার্ন রিফাইনারিতে এসব জ্বালানি তেল সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই রিজার্ভ ক্ষমতা দেশের ৪৫ দিনের জ্বালানি তেলের চাহিদা মেটাতে পারে। যদিও জ্বালানি নীতিতে দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৬০ দিনের রিজার্ভ ক্যাপাসিটি তৈরির কথা বলা হয়েছে।

বিপিসির এই কর্মকর্তা বলেন, দেশে ডিজেলের মজুদ ক্ষমতা ৬ লাখ মেট্রিক টনের বেশি। অকটেন মজুদ ক্ষমতা ৪৬ হাজার মেট্রিক টন, গ্যাসোলিন ৩২ হাজার মেট্রিক টন, কেরোসিন ৪২ হাজার মেট্রিক টন। আর ১ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন ফার্নেস অয়েল মজুদ করা যাবে।

চলতি মাসের ২৫ দিনের জ্বালানি তেল বিক্রির পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, দেশে ডিজেলের দৈনিক চাহিদা প্রায় ১৩ হাজার ৪৫৩ মেট্রিক টন। ফার্নেস অয়েলের চাহিদা প্রতিদিন ২ হাজার ৫০০ মেট্রিক টন। অকটেনের চাহিদা ১ হাজার ৩০০ মেট্রিক টন। পেট্রোলের চাহিদা ১ হাজার ৪০০ মেট্রিক টন। এছাড়া জেট ফুয়েল বিক্রি হয়েছে প্রতিদিন ১ হাজার ৫শ’ মেট্রিক টন।

জ্বালানী তেলের সংকট থাকায় কিছু মাস আগে দেখা গিয়েছিল ডিজেলের দাম বেড়ে যায় এবং সেই সাথে সরকার গত ১৭ জুলাই বিদ্যুৎ উৎপাদনে ডিজেল ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা ঘোষণার আগে বিক্রি হয়েছিল ২০ হাজার ৮০০ মেট্রিক টন। সরকারের এই ঘোষণার পর এক ব্যবধানে ডিজেল বিক্রি কমেছে প্রায় ৭ হাজার ২০০ মেট্রিক টন। দিন.

About Rasel Khalifa

Check Also

দেশের সব নাগরিককে বীমার আওতায় আনার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার

দেশের সব নাগরিক এবং সরকারি-বেসরকারি সম্পত্তিকে বীমার আওতায় আনার পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *