Wednesday , February 21 2024
Breaking News
Home / Countrywide / কেমন সাজা হতে পারে সেই ডা. সাবরিনা-আরিফের, জানালেন সংশ্লিষ্ট আদালত

কেমন সাজা হতে পারে সেই ডা. সাবরিনা-আরিফের, জানালেন সংশ্লিষ্ট আদালত

সংক্রামনের পরীক্ষা না করেই রিপোর্ট দিয়ে জেকেজি হেলথকেয়ারের প্রতারণা নিয়ে দেশে তোলপাড় চলছে। এই প্রতারণার মাস্টারমাইন্ড জেকেজির সিইও আরিফ চৌধুরীকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিজেকে রক্ষা করতে বিভিন্ন প্রভাবশালী মহলে ছুটতে থাকে সাবরিনা। চিকিৎসকদের একটি প্রভাবশালী সংগঠনের প্রভাবশালী নেতার বান্ধবী হওয়ায় অনেকের ধারণা ছিলো ডাঃ সাবরিনাকে খালাস দেয়া হবে।

মঙ্গলবার জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফ চৌধুরী এবং তার স্বামী কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আরিফুল হক চৌধুরীর রায়ের দিন ধার্য ছিল আজ। ঢাকার অতিরিক্ত মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেনের আদালত এ রায় ঘোষণা করবেন। সাবরিনা ও আরিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ সাত বছরের কারাদণ্ড হবে। ২৩ জুন, ২০২০, জেকেজি হেলথকেয়ার ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মহামারি সংক্রামের শনাক্তকরণের জন্য নমুনা সংগ্রহ করে এবং ২৭,০০০ জনকে পরীক্ষা না করেই মিথ্যা রিপোর্ট দেয়। এ অভিযোগে মামলা হয়েছে। তদন্ত শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে বিচার শুরুর নির্দেশ দেন বিচারিক আদালত।

কোন অপরাধের শাস্তি-

একজন সরকারী কর্মচারীর ছদ্মবেশ ধারণ করা: যদি কোন সরকারী কর্মচারী তার নিজের নামে বা অন্য ব্যক্তির নামে বা অন্যের সাথে মেলামেশা করে বা অংশীদারিত্বে একটি নির্দিষ্ট সম্পত্তি ক্রয় করার জন্য ক্রয় বা দরকষাকষি করে, তবে তা করতে বাধ্য না হওয়া সত্ত্বেও। তাহলে তাকে দুই বছর পর্যন্ত যে কোনো মেয়াদের কারাদণ্ড বা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে; এবং সম্পত্তি ক্রয় করা হলে তা বাজেয়াপ্ত করা হবে। জেনে বা বিশ্বাস করার কারণ থাকাতে অবহেলা করা যে এটি একটি প্রাণঘাতী রোগের সংক্রমণ ছড়াতে পারে: যদি কোনও ব্যক্তি বেআইনিভাবে বা অবহেলাবশত এমন কোনও কাজ করে যা বিশ্বাস করার কারণ জেনে বা বিশ্বাস করার কারণে, জীবন-হুমকির সংক্রমণ ছড়াতে পারে রোগ, অতঃপর ব্যক্তিকে যে কোনো মেয়াদের জন্য সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হবে যা ছয় মাস পর্যন্ত হতে পারে বা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবে।

বিশ্বাসভঙ্গের অপরাধের শাস্তি: যদি কোনো ব্যক্তি বিশ্বাসের অপরাধমূলক লঙ্ঘন করে, তাহলে তাকে তিন বছর পর্যন্ত সশ্রম কারাদণ্ড বা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে। প্রতারণা এবং অসৎভাবে সম্পত্তি সমর্পণে প্ররোচিত করা: যদি কোনো ব্যক্তি প্রতারণা করে এবং অসৎভাবে প্রতারিত ব্যক্তিকে সম্পত্তির কোনো অংশ বা অংশ তৈরি, পরিবর্তন বা ধ্বংস করতে প্ররোচিত করে বা অসৎভাবে প্রতারিত ব্যক্তিকে প্রতারিত করে বা স্বাক্ষরিত বা সিল করা কোনো জিনিসের সম্পূর্ণ বা অংশ। মূল্যবান সম্পদে রূপান্তরযোগ্য সম্পদ পরিবর্তন বা ধ্বংস করার উদ্দেশ্য। অতঃপর তাকে যে কোন মেয়াদের জন্য কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হবে যা সশ্রম কারাদন্ড সহ বা ছাড়া সাত বছর পর্যন্ত হতে পারে এবং জরিমানা সহ দায়বদ্ধ। এ মামলার বিচার চলাকালে বিভিন্ন সময়ে ৪০ জনের মধ্যে ২৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন আদালত।

১১ মে, অভিযুক্তরা আত্মপক্ষ সমর্থনে তাদের ‘নির্দোষ’ দাবি করে এবং ন্যায়বিচারের আশা করেছিল। গত ২৯ জুন যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায়ের জন্য ১৯ জুলাই দিন ধার্য করেন আদালত। মামলা সূত্রে জানা গেছে, জেকেজি হেলথকেয়ার ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে মহামারি সংক্রামনের শনাক্তকরণের জন্য নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা না করেই ২৭ হাজার জনকে রিপোর্ট দেয়। এর বেশির ভাগই ‘ভুয়া’ হিসেবে চিহ্নিত। ২৩ জুন, ২০২০-এ, এই অভিযোগে সংস্থাটি সিলমোহর করা হয়েছিল। পরে সাবরিনা ও তার স্বামী আরিফুল চৌধুরীর বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় মামলা হলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দুজনকেই গ্রেপ্তার করে ওই বছরের ৫ আগস্ট ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে ডা. সাবরিনা-আরিফসহ আট আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন ডিবি পুলিশের পরিদর্শক লিয়াকত আলী। চার্জশিটে সাবরিনা ও আরিফকে প্রতারণার মূল হোতা এবং বাকি আসামিদের জালিয়াতি ও জালিয়াতির সহযোগী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, জানা গেছে, সংস্থাটি ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সংক্রামনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা না করে ১৫ হাজার ৪৬০টি পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট দিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, জেকেজি হেলথকেয়ার থেকে ২৭ হাজার রোগীর সংক্রামন পরীক্ষার রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১১৫৪০টি সংক্রামনের নমুনা সঠিকভাবে IEDCR দ্বারা পরীক্ষা করা হয়েছে। বাকি ১৫৪৬০ রিপোর্ট কোম্পানির ল্যাপটপে তৈরি করা হয়। জব্দ করা ল্যাপটপে এর প্রমাণ পাওয়া গেছে। জিজ্ঞাসাবাদে আরিফ চৌধুরী পুলিশকে জানান, জেকেজির সাত-আটজন কর্মী ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করেন।

 

 

About Syful Islam

Check Also

শিশুবক্তা মাদানীকে কেন্দ্র করে ফের পুলিশের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ, পুলিশসহ আহত অনেক

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে সুপরিচিত শিশু বক্তা মুফতি রফিকুল ইসলাম মাদানীকে তাফসীরুল কুরআন মাহফিলের মঞ্চে প্রবেশে বাধা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *