Friday , June 21 2024
Breaking News
Home / Countrywide / এবার সেই বাইক চালক প্রসঙ্গে বেশ কিছু কথা বললেন মির্জা ফখরুল

এবার সেই বাইক চালক প্রসঙ্গে বেশ কিছু কথা বললেন মির্জা ফখরুল

সম্প্রতি রাজধানী ঢাকায় এক বাইক চালক নিজের গাড়ি নিজেই পু/ড়ি/য়ে দিয়েছে। তার এই কান্ডকে ঘিরে দেশ জুড়ে ব্যপক আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এবং দেশের বিভিন্ন শ্রেনীর বিভিন্ন পেশার অনেক মানুষ অনেক ধরনের কথা বলেছে। এবার এই তালিকায় যুক্ত হলেন বাংলাদেশের জাতীয়তাবাদী রাজনৈতিক দল বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রকাশ্যে এলো সেই বাইকার সম্পর্কে তার বলা কথাগুলো।

রাজধানীতে একজন রাইড শেয়ারের চালকের বাইক পু/ড়ি/য়ে ফেলার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘সরকারের লু/টে/রা অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় মানুষের হ/তা/শা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে।’ মঙ্গলবার গুলশানে দলটির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন জাতীয় ও বিষয়ভিত্তিক কমিটির এক সভায় তিনি এ কথা বলেন। মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার অর্থনীতিকে ধবং/স করেছে। এরা আজকে পুরোপুরিভাবে একটা লু/টে/রা অর্থনীতি, একটা লু/টে/রা সমাজ তৈরি করছে। কী অবস্থা দেখেন এ করোনার কারণে মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা খারাপ হয়ে গেছে। গত সোমবার একজন যুবক তার মোটরসাইকেল পু/ড়ি/য়ে দিয়েছে। কেন পু/ড়ি/য়ে/ছে? সে বলছে যে, আমি একটা সিরামিক্সের দোকান করতাম। সেটা করোনার কারণে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আমি আমার সঞ্চিত অর্থ দিয়ে একটা মোটরসাইকেল কিনে রাইড শেয়ারিং কাজ করার চেষ্টা করছি। সেখানে আমাকে প্রতি পদে পদে বাধা দেওয়া হচ্ছে, যে আমাকে আপনার অমুক সার্টিফিকেট লাগবে, অমুক সার্টিফিকেট লাগবে। তার চাইতে পু/ড়ি/য়ে ফেলি। এটা কখন হয়? যখন হতা/শা/র চরম পর্যায় গিয়ে পৌঁছে মানুষের। আজকে সেই অবস্থায় গিয়ে আমরা পৌঁছেছি কিন্তু।’

তিনি বলেন, ‘এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হলে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সেই যে, ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যু/দ্ধে আমাদের লক্ষ্য ছিল, এখানে একটা বহুদলীয় গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা, মানুষের কথা বলার স্বাধীনতা এবং একই সঙ্গে এদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখা, যেটা আমাদের দলের প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মূল কথা ছিলো সেটা আমাদের প্রতিষ্ঠা করতে হবে।’ বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এগুলোর জন্য আমাদের সংগ্রাম করতে হবে, লড়াই করতে হবে এবং ভবিষ্যত প্রজন্মকে এ লড়াইয়ে সম্পৃক্ত করতে হবে। আমাদের সূবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনের লক্ষ্য এই হওয়া উচিত যাতে করে আমরা সেদিকে যেতে পারি।’ আওয়ামী লীগ দেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘আমাদের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে হবে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমাদের যে স্বপ্ন ছিল গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা সেটাকে তারা ধ্বং/স করে দিয়েছে। এখন বহুদলীয় গণতন্ত্র নেই, একটা মু/খো/শ আছে, একটা আবরণ আছে গণতন্ত্রের। সেই আবরণের মধ্যে পুরোপুরি একদলীয় ব্যবস্থা চলছে। এখানে একটা ভয়ভীতির সংস্কৃতি এমনভাবে তৈরি হয়েছে যে, এখন কথা বলতে যে কেউ ভয় পায়, লিখতে ভ/য় পায়, সাংবাদিকরা লিখতে ভ/য় পায়।’ তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘সরকারের দমননীতিতে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ৩৫ লাখের ওপর মা/ম/লা, গ্রেপ্তার, পু/লি/শি নি/র্যা/ত/নে তারা এলাকায় থাকতে পারছে না। এই দেশকে কি একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বলা যাবে? যাবে না। একটা অস্বস্তিকর অবস্থা এরা তৈরি করেছে। আজকে এদের হাতে যে দেশ নিরাপদ নয়, রাষ্ট্র নিরাপদ নয় এটা সবাইকে জানাতে হবে।’

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একজন রাজনীতিবীদ তিনি দীর্ঘ সময় ধরে রাজনীতির সঙ্গে সক্রীয় রয়েছেন। বর্তমান সময়ে তিনি বিএনপি দলের মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। অবশ্যে এই দলের হয়ে তিনি বাংলাদেশ সরকারের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ন পদেও দায়িত্ব পালন করছেন। সম্প্রতি দলের চলমান সংকটাপন্ন পরিস্তিতি মোকাবিলায়ও তিনি বিশেষ ভাবে কাজ করছেন।

About

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *