Tuesday , February 27 2024
Breaking News
Home / Countrywide / এবার বাংলাদেশের জন্য বিশাল সুসংবাদ নিয়ে এলো ইতালি, বদলে যেতে পারে বাংলাদেশের চিত্র

এবার বাংলাদেশের জন্য বিশাল সুসংবাদ নিয়ে এলো ইতালি, বদলে যেতে পারে বাংলাদেশের চিত্র

বাংলাদেশের সাথে বলতে গেলে বিশ্বের প্র‍ত্যেকটি দেশের সাথে ভালো বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে। বাংলাদেশ একটি শান্তি প্রিয় দেশ। বাংলাদেশের বর্তমান সরকার বিভিন্ন ধরণের শান্তিপূর্ণ কর্মকান্ডের জন্য বিশ্ব দরবার থেকে অনেক প্রশংসিত হয়েছেন। সম্প্রতি জানা গেছে ইতালি বিপুল পরিমাণে ব ইনিয়োগ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

শামীম আহসান বলেন, ‘আমাদের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীতে এ সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। আমি আশাবাদী যে ইতালীয় বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগে এগিয়ে আসবেন।
ইতালির ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশের সঙ্গে শক্তিশালী অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক স্থাপনে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

রোববার রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তারা রোমে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আয়োজিত ‘প্রথম অর্থনৈতিক কূটনীতি সপ্তাহে’ আগ্রহ দেখিয়েছে। বাংলাদেশ ও ইতালির মধ্যে বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ‘ম্যাপি এনজি এক্সারসাইজ: বাংলাদেশ-ইতালি বাণিজ্য ও বিনিয়োগের সুযোগ’ শীর্ষক আলোচনায় বাংলাদেশের বিনিয়োগ পরিস্থিতি বিস্তারিতভাবে তুলে ধরা হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে, শামীম আহসান, ইতালি, মন্টিনিগ্রো এবং সার্বিয়ায় বাংলাদেশের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্স, বাংলাদেশের দীর্ঘতম পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ঘোষণা করেন, যা নিজস্ব অর্থায়নে 25 জুন উদ্বোধন করা হয়েছিল। ইতালি ও বাংলাদেশে দুই দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগের বিপুল সম্ভাবনা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে গতিশীলতা আনতে এসব সম্ভাবনাকে কাজে লাগানোর আহ্বান জানান।

শামীম আহসান বলেন, ‘আমাদের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীতে এ সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। আমি আশাবাদী যে ইতালীয় বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে আরও বিনিয়োগে এগিয়ে আসবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পশ্চিম) রাষ্ট্রদূত সাব্বির আহমেদ চৌধুরী অর্থনৈতিক মুক্তিকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের মূল লক্ষ্য উল্লেখ করে বলেন, অর্থনৈতিক উন্নয়নই টেকসই উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু। তিনি খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, কৃষি, প্রযুক্তি, ব্লু ইকোনমি এবং অন্যান্য খাতে বিনিয়োগের সম্ভাব্য ক্ষেত্র অন্বেষণ করে দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক আরও জোরদার করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে ইতালির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, দক্ষিণ এশিয়া বিভাগের প্রধান জিয়ানপাওলো বাংলাদেশের উন্নয়ন যাত্রার ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক জোরদারে ব্যাপক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিভিন্ন ক্ষেত্র, সম্ভাবনা ও সুযোগের বিস্তারিত তুলে ধরেন এবং দুই দেশের মধ্যে একটি ‘বিজনেস কাউন্সিল’ গঠনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

দুই দেশের মধ্যে বিপুল সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে ইতালির বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, তারা বাংলাদেশে বিনিয়োগ এবং দুই দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সম্পর্ক উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করবেন।

টেক্সটাইল, চামড়া, পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি, কৃষি ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, খাদ্য খুচরা বিক্রেতা এবং বেকারি, আইসিটি, সিরামিক, হালকা প্রকৌশল, পাট ও পাটজাত পণ্য, সৌর মডিউল, সৌর অর্থনীতি, রোবোটিক্স, স্বাস্থ্যসেবা সরঞ্জাম এবং প্রযুক্তিতে সহযোগিতা করার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

বাংলাদেশের পক্ষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বাণিজ্য ও বিনিয়োগের মহাপরিচালক, ইপিবি, এফবিসিসিআই, বিজিএমইএ, বেসিস, এলএফএমইএবি-এর মহাপরিচালক, এপেক্স ফুটওয়্যারের প্রেসিডেন্ট এবং ওয়ালটন, ই-ক্যাবের প্রতিনিধি এবং ইতালির পক্ষে। আলোচনায় অংশ নেন ইতালির নয়াদিল্লি দূতাবাস, রিফাইন, অ্যানি, ম্যাগালদি পাওয়ার, ডিএম ইতালিয়ার প্রতিনিধিরা। নাপোলি ও ফ্লোরেন্সে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল জেনারেলও আলোচনায় অংশ নেন।

আলোচনায় দুই দেশের বিনিয়োগকারী ও ব্যবসায়ীরা তাদের নিজস্ব অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন, যা একটি নতুন মাত্রা যোগ করেছে। ইতালির পক্ষে অ্যানি, লিওনার্দো, ম্যাগালধি পাওয়ার, রিফাইন, ব্রাচি, আইডিওজি, ডিএম ইতালিয়া এবং বাংলাদেশের পক্ষে বিজিএমইএ, এপেক্স, ওয়ালটনের প্রতিনিধিরা নতুন দিগন্ত উন্মোচনে তাদের আশাবাদ ও সম্ভাবনার কথা জানান। হাইব্রিড বিন্যাসে অনুষ্ঠিত বৈঠকে, সবাই একমত হয়েছিল যে এটি দুই দেশের মধ্যে শক্তিশালী অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য সহযোগিতার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম হিসাবে কাজ করবে। ইতালি-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য প্রায় ২.২ বিলিয়ন ডলার এবং ইতালি বাংলাদেশের জন্য ষষ্ঠ বৃহত্তম রপ্তানি বাজার।

প্রসঙ্গত, বিশ্বের প্রায় সব দেশের সাথে বাংলাদেশের ভালো সম্পর্ক থাকায় অনেকেই বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী হয় আর যার ফলে দেশ গুলোর সাথে বাংলাদেশের পারস্পরিক সম্পর্কের আরো বেশি উন্নতিসাধন হয়ে থাকে।

About Shafique Hasan

Check Also

স্বামীকে ‘দুলাভাই’ পরিচয় দেওয়া সেই যুবলীগ নেত্রী রিমান্ডে

জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পাবনা জেলা যুব মহিলা লীগের সদস্য মিম খাতুন ওরফে আফসানা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *