Wednesday , April 24 2024
Breaking News
Home / Entertainment / দুইবার সাইফের প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছিলেন কারিনা, কারণ জানালেন নিজেই

দুইবার সাইফের প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছিলেন কারিনা, কারণ জানালেন নিজেই

ভারতের ( India ) জনপ্রিয় অভিনেতা ও অভিনেত্রী সাইফি ও করিনা উভয়ের নামই প্রথম সারিতে রয়েছে। ভালোবেসে এই দম্পতি গত ( Past ) ২০১২ সালের ১৬ অক্টোবর ( October ) বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বলিউডের আলোচিত প্রেমের গল্প উঠলেই তাদের প্রসঙ্গ উঠবেই। জানা গেছে প্রয় দুই বার সাইফ আলি করিনাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। তবে প্রথমবার অস্বীকার করার পর দ্বিতীয় বারও প্রায় অস্বীকার করতেই যাচ্ছিলেন কারিনা তবে সে বার সফল হন সাইফ।

অনেক বছর প্রেমের পর তাদের বিয়ে হয়। লাদাখে ( Ladakh ) দুবার, এমনকি রোমান্টিক পরিবেশেও সাইফ আলি খানকে ( Saif Ali Khan ) একরকম না বলেদিয়েছিলেন কারিনা কাপুর ( Kareena Kapoor ) বলেছিলেন। কিন্তু কেন?

আজ তাদের সম্পর্কের বন্ধন দেখলে কেউ বলবে না যে এক সময় তাদেরও নানা সমস্যায় পড়তে হয়েছিল! সাক্ষাৎকারে কারিনা বলেন, তাশান ছবির শুটিং চলাকালীন সাইফ বিয়ের প্রস্তাব দেন। তবে শুরু থেকেই কোনো না কোনো মানুষের ইশারায় দোটানায় ছিলেন এই অভিনেত্রী। ডিভোর্সের জন্য অনেকেই কারিনাকে বিয়ে করেননি।অন্য পক্ষের দুই সন্তান, ডিভোর্স, তুমি কি সত্যিই তাকে বিয়ে করতে চাও? এমন সতর্কবার্তাও কম আসেনি।

কারিনার প্রশ্ন ছিল, “কাউকে ভালোবাসা কি অন্যায়? বিয়ে করা কি অন্যায়? দেখা যাক কি হয়।

প্রতিকূলতা কাটিয়ে তিনি বিয়ে করেন। তাদের দুজনের বিয়ে করা উচিত, বারবার বলেছেন সাইফ। চেনেন না মানুষটাকে, না জানি হঠাৎ কিভাবেই যে বিয়ে হয়ে গেল ? তবে সময় লেগেছে, আলো নয়, তাকে জানার ইচ্ছা ছিল প্রবল।

উল্লেখ্য, সকল বাধা বিঘ্ন পেরিয়ে আজ তারা এখন সুখী দম্পতি। সাইফের ঘরে জেহ ও তৈমুর ( Timur ) নামের দুই সন্তান রয়েছে। অন্যদিকে কারিনার আগের পরিবারের দুই সন্তান সারা ও ইব্রাহিম ( Ibrahim ) তাদের সাথেও বেশ ভালো সম্পর্ক তাদের। অনেক সময় তাদের সবাইকে একসাথেও দেখাযায়।

About Nasimul Islam

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *