Wednesday , April 24 2024
Breaking News
Home / Entertainment / ভূয়া রায় নিয়ে শপথ, অভিযোগের ব্যাখ্যা দিলেন জায়েদ খান

ভূয়া রায় নিয়ে শপথ, অভিযোগের ব্যাখ্যা দিলেন জায়েদ খান

সম্প্রতি আবারও বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদ নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার ( Friday ) হাইকোর্টের জাল নথি দেখিয়ে শপথ নিয়েছেন জায়েদ খান ( Zayed Khan )। শপথ নেওয়ার জন্য জায়েদ জাল নথি ব্যবহার করেছেন, এমনটি জানিয়েছেন ইলিয়াস কাঞ্চন  ( Elias Kanchan. ) তবে সর্বশেষ রায়ের অনুলিপি দেননি জায়েদ। তাই তার শপথ
গ্রহনের বিষয়টি বাতিল করা হয়েছে। শপথ গ্রহণের পর জায়েদ যে বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন তাও বাতিল করা হয়েছে।

জায়েদ খান ( Zayed Khan )ের সাধারণ সম্পাদক পদে শপথ নেওয়াকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ( Film Artists Association ) সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন ( Elias Kanchan. ) তিনি অভিযোগ করেন, চলচ্চিত্র নির্মাতা জায়েদ খান ( Zayed Khan ) শপথ নিতে প্রতারণার আশ্রয় নিয়েছেন। পরে অবশ্য অভিযোগের ব্যাখ্যা দেন জায়েদ খান ( Zayed Khan )।সোমবার (৭ মার্চ) সন্ধ্যায় এফডিসি ( FDC ) বাগানে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে শিল্পী সমিতির সভাপতি বলেন, জায়েদ খান  আমার সংগে প্রতারণা করেছেন। তার বিরুদ্ধে সংবিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব।

ইলিয়াস কাঞ্চন ( Kanchan ) আরও বলেন, “জায়েদ খান ( Zayed Khan ) যে কাগজে শপথ নিয়েছেন তা আদালতের সার্টিফাইড কপি নয়। শপথ নিতে গিয়ে প্রতারণা করেছেন শিল্পী সমিতির সভাপতি জায়েদ খান ( Zayed Khan )। পরে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জায়েদ খান ( Zayed Khan ) বলেন, কে প্রতারণা করেে ছ ? যার কোনো ফল নেই, সে প্রতারণা করে! যে মামলায় জয়ী হয়েছেন, সেখানে হাইকোর্টের পুরো রায়, সেখানে প্রতারণার কী আছে।

অভিনেতা বলেন, কাঞ্চন ( Kanchan ) ভাই হয়তো কোথাও ভুল বুঝেছেন। তিনি হয়তো বিষয়টি বুঝতে পারেননি। কথা হলো, আমি হাইকোর্টে মামলা জিতেছি, এটা নিশ্চিত। এটি পূর্ণাঙ্গ রায় ,সাথে সাথে ল অর্ডার সার্টিফিকেট নিলাম। সুপ্রিম কোর্টের ( Supreme Court ) নির্দেশ অনুসারে, সার্টিফাইড কপি জারি না হওয়া পর্যন্ত আইনজীবীর সার্টিফিকেট আইন আদেশ হিসাবে বিবেচিত হবে। নিয়ে এসে সাথে সাথে জমা দিলাম। ( gave. ) তখন কাঞ্চন ( Kanchan ) ভাই হেসে বললেন, শুক্রবার ( Friday ) মিটিং আছে। সেখানে তিনি আর কিছু বললেন না।

জায়েদ খান ( Zayed Khan ) বলেন, পরদিন কাঞ্চন ( Kanchan ) ভাই বললেন, আমার সার্টিফাইড কপি দরকার। তখন আমি বললাম, উকিল সার্টিফিকেটই যথেষ্ট। কিন্তু আমি আইন বুঝি না। তবে বিষয়টি আমার আইনজীবীকে দেওয়ার পর তিনি আমাকে একটি অনলাইন কপি দেন। এটি মামলার প্রধান সার্টিফাইড কপি। এই বিষয়টিই নিষ্পত্তি হয়েছে। পরে শুক্রবার ( Friday ) কাঞ্চন ( Kanchan ) ভাইকে দেখালাম। তিনি সন্তুষ্ট এবং সবকিছু করেছেন। এটি মূল ঘটনা, আমি কি ঠকালাম জানি না! উকিল সার্টিফিকেট আগেই দিয়েছি। এরপর আর কিছুর দরকার নেই।

নায়ক বললেন, “তারপরেও যেহেতু কাঞ্চন ভাই বারবার বলছেন, তাই আমি আমার উকিলকে বলেছি ভাইয়া একটা সিলমার কপি চাই।” তারপর সে আমাকে আসল কপি দিল। কিন্তু একটি মাত্র কপি ছিল। আর ফটোকপি করার জায়গা নেই। তাই আমার আইনজীবী এর জন্য টাকা দেন নি। কিন্তু কাঞ্চন ভাই তখন বলেননি যে ওকে এখান থেকে কোনো কপি দিতে হবে। পরে অন্য ছেলেকে দিয়ে কপি পাঠাই। পরে কাঞ্চন ভাই আমাকে ডেকে বললেন, আমার একটা কপি লাগবে। তারপর বললাম, ভাই আসছেন। আমি পরে গিয়ে বললাম, ভাই, কপি নিয়ে চলে গেছেন। রাতে পাঠিয়ে দেব। কিন্তু শুক্রবার রাতে দেখলাম সব বন্ধ।

জায়েদ খান বলেন, তখন শনি ও রবিবার মামলা নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। সোমবার সকালে কাঞ্চন ভাই আমাকে ফোন করলেন। তখন আমি আদালতে ছিলাম। তারপর বললাম, আমার মনে হয় ভাই ভুল হয়ে গেছে। আমি আসছি. আমার কোন দোষ নেই। জালিয়াতি ও জাল কাগজ এমন হতো, যদি আমি আদালতের সিল, স্বাক্ষর বা অন্য কোনো কেস পেপার মিথ্যাভাবে দিয়ে থাকি, তাহলে সেটিকে জাল বা জাল কাগজ বলা হবে। আমি তাকে আমার মামলার সার্টিফাইড কপি দিলাম। আমি মামলায় না জিতলে আমার প্রতিপক্ষ আপিল করত কী করে? সেটা বড় কথা নয়। বড় কথা হলো- আমি কোনো জালিয়াতি বা মিথ্যা মামলা করিনি। আমি আমার মামলার কাগজ দিয়েছি।

“আমার আইনজীবী কাঞ্চন ভাইকেও বলেছেন যে জায়েদ ভাই কোনো অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে কিছু করেননি,” তিনি যা করেছেন ঠিক তাই করেছেন।আপনি কাগজটি ভুল পড়েছেন বা ভুল বুঝেছেন। দেখেন, এই তো জায়েদ ভাইয়ের ঘটনা। এটা সম্পূর্ণরূপে নিষ্পত্তি করা হয়েছে. এছাড়াও অনলাইন কপি দেখুন। তারপর তার কাছে অনলাইন অর্ডার জমা দিলাম। আর আছে উকিলের সার্টিফিকেট, তখন কাঞ্চন ভাই ব্যাপারটা বুঝলেন। আমি মনে করি না সংবাদ সম্মেলনে তিনি এটা আবার বলবেন।

ইলিয়াস কাঞ্চনের অভিযোগের জবাবে জায়েদ খান বলেন, “আমি কোনোভাবেই প্রতারণার আশ্রয় নেইনি। নিয়ম অনুযায়ী রায় পাওয়ার পর যে কেউ তার আইনজীবীর কাছ থেকে ল’ইয়ার সার্টিফিকেট নিতে পারে। সবাই জানে যে আদালতের রায় হয়ে গেছে, আমি ল’ইয়ার সার্টিফিকেট পেয়েছি। আমি যদি জাল কাগজপত্র সংগ্রহ করে শপথ নিতাম। তাহলে, নিপুন কি জাল কাগজপত্র দেখিয়ে আপিল করেছে? নাকি রায় হয়েছে বলে প্রমাণ দেখিয়ে আপিল করেছেন।

About bisso Jit

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *