Wednesday , April 24 2024
Breaking News
Home / Countrywide / পটুয়াখালীতে বড় ধরনের ক্ষত নিয়ে থানায় হাজির ঘোড়া, পেল চিকিৎসা

পটুয়াখালীতে বড় ধরনের ক্ষত নিয়ে থানায় হাজির ঘোড়া, পেল চিকিৎসা

পটুয়াখালীর বাউফল থানায় এই অবিশ্বাস্য ও বিরল ঘটনাটি ঘটেছে। একটি ঘোড়া বিচারের আশায় থানায় উপস্থিত হয়েছে। সেই সময় ঘোড়াটির পায়ে মারাত্মক ক্ষত দেখতে পায় সেখানে উপস্থিত পুলিশ সদস্যরা। ঘোড়াটি চিকিৎসার জন্য নাকি বিচার চাওয়ার জন্য থানায় এসেছে সেটা জানা যায়নি।

মানুষ বিপদে পড়লে বিচারের আশায় সংশ্লিষ্ট থানায় আসেন। অনেক ক্ষেত্রে মা’রামা’রিতে কেউ আহ”ত হলে বা র’ক্তা’ক্ত জখম হলে অনেকেই হাসপাতালে না গিয়ে থানায় অভিযোগ করতে আসেন।

কিন্তু এবার জখম পায়ে ক্ষত নিয়ে থানায় হাজির হল একটি ঘোড়া। গেটে কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের বাধা উপেক্ষা করে তাও আবার সরাসরি ডিউটি ​​অফিসারের কক্ষের সামনে চলে যান। কিন্তু কেন? কেউ বলেন বিচার দাবি আবার অনেকে বলেন চিকিৎসার দাবি। বিষয়টি পুরো জেলায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

শুক্রবার (৪ মার্চ( March )) জুমার নামাজের পর এ ঘটনা ঘটে। থানার প্রধান ফটকের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একজন ডিউটি ​​কনস্টেবল দেখতে পান একটি ঘোড়া হেঁটে থানা কমপ্লেক্সে ঢুকছে। স্বাভাবিকভাবেই ভাবছেন হয়তো ঘাস খেতে যাচ্ছেন তিনি। কিন্তু না, ঘোড়াটি সোজা থানায় যেতে শুরু করলে কনস্টেবল তাকে থামানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়।

ঘোড়াটি তখন সরাসরি ডিউটি ​​অফিসারের কক্ষের সামনে দাঁড়ায়। বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আল মামুন( Al Mamun ) জানান, আগের দিন বৃহস্পতিবার( Thursday ) (৩ মার্চ March )) সকালে( In the morning ) ঘোড়াটি একবার আসলেও পুলিশ সদস্যরা তাকে তাড়িয়ে দেয়।

থানার ডিউটি ​​অফিসার, পুলিশের( Of the police ) উপ-পরিদর্শক আশিকুর রহমান জানান, ঘোড়াটিকে ধাওয়া করার চেষ্টা করলেও তা নড়ছে না, তখন ঘোড়ার পেছনের বাম পা থেকে রক্তক্ষরণ দেখতে পাই। থানার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানাতে হবে। এ বিষয়ে জরুরি বিভাগের দায়িত্বে থাকা পুলিশের( Of the police ) উপ-পরিদর্শক মো. আবদুস সবুরকে জানালে তিনি ওসি (তদন্ত) মিজানুর রহমান( Mizanur Rahman ) স্যারকে খবর দেন। মিজানুর রহমান( Mizanur Rahman ) স্যার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আল মামুন( Al Mamun ) স্যারকে জানালে ওসি স্যার ঘটনাস্থলে এসে ঘোড়াটিকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেন।

আব্দুস সবুর জানান, ওসি স্যারের নির্দেশে বাউফল উপজেলার সাবেক প্রাণিসম্পদ অফিসের চিকিৎসককে বাড়ি থেকে ডেকে থানায় নিয়ে আসেন।

চিকিৎসক আব্দুল আজিজ( Abdul Aziz ) জানান, ঘোড়াটির বাম পা থেকে র’ক্তক্ষরণ হচ্ছিল। ক্ষতটি দেখে মনে হচ্ছিল এটি ধারালো কিছু দ্বারা আঘা”ত করেছে, যার ফলে পায়ের চামড়া উঠে গেছে এবং মাংস ঘা হয়ে গেছে। অতঃপর ঘোড়ার ক্ষতস্থানে ড্রেসিং করে ব্যথানাশক ইনজেকশনসহ বিভিন্ন ওষুধ প্রয়োগ করে কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকলে সুস্থ বোধ করলে নিজে থেকেই বেরিয়ে আসবে। ডাক্তার আবদুল আজিজ বলেন, ড্রেসিংয়ের সময় কেউ স্থির থাকতে পারত না।

বাউফল থানার ওসি আল মামুন( Al Mamun ) বলেন, এটি একটি বিরল ঘটনা। বৃহস্পতিবার যখন আমি প্রথম আসি, তখন ভাবলাম সে ঘাস খেতে এসেছে এবং সম্ভবত থানা কমপ্লেক্সের মূল ভবনের সামনে দাঁড়িয়ে আছে। তখন অন্য পুলিশ সদস্যরা ঘোড়াটিকে তাড়িয়ে দেয়। কিন্তু পরের দিন জুম্মার( Friday ) নামাজের পর সেই ঘোড়াটিকে আবার আসতে দেখে চম’কে উঠলাম। আমি দুষ্টুমির ছলে কিছু লোককে বললাম, আপনারা দেখছেন ঘোড়ারা বিচার চাইতে থানায় আসে।

ওসি আরও বলেন, আমার কর্মকর্তারা ঘোড়ার পা থেকে রক্তক্ষরণের কথা বললে আমি কিছু বোঝার চেষ্টা করছিলাম। আমি তাৎক্ষণিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি। ঘোড়াটির মালিককে পাওয়া না গেলেও অনেকে বলছেন এটি দশমিনা উপজেলার কোনো জনপ্রতিনিধির হতে পারে। তাছাড়া মালিকের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

ওসি আল মামুন( Al Mamun ) আরও বলেন, একটি ঘোড়া আহ”ত অবস্থায় থানায় এসে চিকিৎসা চেয়েছিল, যা আমাদের পুলিশ সদস্যদের মুগ্ধ করেছে। এমন ঘটনা আমার কাছে বিরল মনে হয়েছে। আমাদের কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যরা ঘোড়ার যথাযথ সেবা প্রদানে মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

ঘোড়ার এই রকম আচারন পৃথিবীতে একটি বিরল ঘটনা। ঘটনাটি পটুয়াখালীতে( In Patuakhali ) ব্যাপকভাবে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। ঘোড়াটি কিসের জন্য থানায় এসেছে সেটা কেউ বলতে পারছেনা। তবে ঘোড়াটির ক্ষত স্থানের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

 

 

About bisso Jit

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *