Wednesday , April 24 2024
Breaking News
Home / Countrywide / সয়াবিন তেল নিয়ে এবার বাণিজ্য সচিব, ভোক্তা অধিকার সংশ্লিষ্টদের করা হলো বিবাদী

সয়াবিন তেল নিয়ে এবার বাণিজ্য সচিব, ভোক্তা অধিকার সংশ্লিষ্টদের করা হলো বিবাদী

বিগত( Past )( Past ) কয়েক মাস ধরে সারা দেশে দ্রব্যমূল্যের দাম নিয়ে চলছে। সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়া( Russia ) ও ইউক্রেন( Ukraine ) ইস্যুতে কয়েকটি পন্যের দাম বেড়েছে। তবে এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বিভিন্ন ধরনের পণ্য মজুদ রেখে চড়া দামে বিক্রি করছে। অনেক ব্যবসায়ীরা এসকল পণ্যের গায়ে লাগানো পণ্যের দাম তুলে নিজের ইচ্ছাকৃত তৈরি দামে বিক্রির অভিযোগও করেছেন অনেকেই। সাম্প্রতিক সময়ে সয়াবিন তেলের দাম বাড়া নিয়ে বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয় সারাদেশে।

এবার নির্ধারিত দামের থেকে চড়া দামে বিক্রির অভিযোগ করেছেন তিন আইনজীবী।

সয়াবিন তেলের দাম নিয়ন্ত্রণে মনিটরিং সেল গঠন ও নীতিমালা প্রণয়নের জন্য হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। রোববার( Sunday ) সুপ্রিম কোর্টের তিন আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনির হোসেন( Monir Hossain ), অ্যাডভোকেট সৈয়দ মহিদুল কবির( Syed Mahidul Kabir ) ও অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ উলস্নাহ( Mohammad Ulsnah ) এই রিটটি করেন।

বিচারপতি ফারাহ মাহবুব( Farah Mahbub ) ও বিচারপতি এসএম মনিরুজ্জামানের( SM Moniruzzaman ) হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রিট আবেদনের শুনানি করবেন। রিট আবেদনে বাণিজ্য সচিব, ভোক্তা অধিকার কর্তৃপক্ষসহ অন্যদের  করা হয়েছে।

গত( Past ) ৩ মার্চ( March ) তিন আইনজীবী সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি হাইকোর্টের নজরে আনেন। সয়াবিন তেলের দাম বৃদ্ধি নিয়ে একটি ইংরেজি দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদন আদালতের নজরে আনেন তারা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রাশিয়া-ইউক্রেন( Ukraine ) ইসুর সুযোগ নিয়ে বাংলাদেশের( Bangladesh ) এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ী অস্বাভাবিক হারে সয়াবিন তেলের দাম বাড়িয়েছে। গত( Past ) ২ মার্চ( March ) বাজারে ক্রেতাদের কাছ থেকে এক লিটার খোলা সয়াবিনের দাম ১৭৫ টাকা রাখা হয়েছে। তবে সরকার( Government ) এক লিটার খোলা সয়াবিনের দাম ১৪৩ টাকা নির্ধারণ করেছে।

আদালত আইনজীবীদের যথাযথ প্রক্রিয়ায় রিট করার পরামর্শ দেন। সে মোতাবেক সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা রিট আবেদন করেছেন।

উল্লেখ্য, দেশের বিভিন্ন বিভাগীয়-জেলা পর্যায়ে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের উদ্যোগে কিছু অসাধু ব্যবসায়ীদের নির্ধারিত দামের চেয়ে পণ্যের দাম বেশি নেয়ার অভিযোগে জরিমানা করা হয়েছে। অসাধু ব্যবসায়ীদের চিহ্নিত করার কার্যক্রম এখনো চলমান বলে জানিয়েছেন খুলনা জেলা কার্যালয়ের( Khulna District Office ) সহকারী পরিচালক শাহীনুর আলম।( Shahinur Alam. ) তিনি আরও বলেন, এমন কর্মকাণ্ড চোখে পড়া মাত্রই আইনের সহযোগিতা নিতে হবে। এমন অসাধু ব্যবসায়ীদের চিহ্নিত করতে সকলের সহযোগিতা একান্ত কাম্য।

About bisso Jit

Check Also

অবন্তিকার পর এবার একই পথে হাঁটল মীম

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আ/ত্মহত্যা করেছে। শিক্ষার্থীর নাম শারভীন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *