Wednesday , May 29 2024
Breaking News
Home / Entertainment / ক্ষমা চাই কুলসুম, মনের অজান্তেই বার বার চোখ ভিঁজে যাচ্ছে, সে ছিলো আপনের চেয়ে আপন: চঞ্চল চৌধুরী

ক্ষমা চাই কুলসুম, মনের অজান্তেই বার বার চোখ ভিঁজে যাচ্ছে, সে ছিলো আপনের চেয়ে আপন: চঞ্চল চৌধুরী

দেশের বিনোদন জগতের অভিনেতা-অভিনেত্রীরা প্রায় সময় তাদের নানা বিষয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন। অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রী শোক প্রকাশ করে তাদের আবেগ তুলে ধরেন। এদিকে, অভিনেত্রী অভিনেত্রী শাহনাজ খুশির বাসার কাজের সহযোগী কুলসুম না ফেরার দেশে চলে গেছেন। তার এমন চলে যাওয়া অভিনেত্রী অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি মেনে নিতে পারছেন না। তিনি সামজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে তার বাসার কাজের সহযোগী কুলসুমের সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরেন। এবার সেই কুলসুম কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিলেন জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী।

কুলসুম দীর্ঘ দিন তিনি খুশির বাসায় কাজ করেছেন। অ্যা’পে’ন্ডি’সা’ই’টি’স এর অপারেশনের জন্য সম্প্রতি কুলসুম হাসপাতালে ভর্তি হন। অপারেশন শেষে আর পৃথিবীর আলো দেখেননি তিনি। না ফেরার দেশে চলে গেছেন সবাইকে ছেড়ে। অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি কুলসুমের মৃ”ত্যু”র খবর নিশ্চিত করেন।

কুলসুমের মৃ”ত্যু”তে জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীর হৃ’দ’য় ভারী হয়ে উঠেছে। সেই দুঃখ কিছুটা প্রকাশ করলেন ফেসবুক স্ট্যাটাসে। চঞ্চল চৌধুরীর সেই স্ট্যাটাসটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল- কুলসুম জানতো, আমি গরম গরম পরোটা আর ডিম ভাজি পছন্দ করি, কুলসুম জানতো আমি চায়ে কতটুকু চিনি খাই, কুলসুম জানতো আমার পানির গ্লাসে কতটুকু ঠাণ্ডা পানি মেশাতে হবে…..

কুলসুম আমাকে ভাইয়া ডাকতো….. অসম্ভব মায়া আর ভালোবাসা ছিলো আমার প্রতি। কুলসুম আমার আপন কেউ ছিলো না…কিন্তু সে ছিলো আপনের চেয়ে আপন। কুলসুম,অভিনেত্রী শাহনাজ খুশীর বাসায় দীর্ঘদিন ওর কাজের সাহায্যকারী হিসেবে ছিল। খুশী কুলসুমকে নিজের বোনের মতই আদর করতো…. একটু স্বচ্ছল জীবন যাপনের আশায় কয়েক বছর সৌদি আরবে কাজ করে দুই সপ্তাহ আগেই দেশে ফিরেছিল। যে কয় বছর কুলসুম সৌদিতে ছিল,নিয়মিত খুশীর সাথে যোগাযোগ রাখতো,আমার পরিবারের খোঁজও নিত খুশীর কাছ থেকে।

 

কতটা দ্বায়িত্বশীল,সহজ সরল ভালো মানুষ হলে, এরকম প্রিয় মানুষ গুলোকে মনে রাখা যায়,কুলসুম তার প্রমাণ। বেশ কয়েক বছর আগে,দেশে থাকতে, কুলসুম অসুস্থতার কারণে খুশীর বাসায় কয়েকদিন আসতে পারেনি। খুশীর সাথে আমিও ওর বাসায় ওকে দেখতে গিয়েছিলাম। কুলসুম তখন বিশ্বাস করতে পারেনি যে,আমি ওকে দেখতে ওর বাসায় যাবো… দেশে ফিরে আসার পরও সে খুশীর বাসায় দেখা করতে এসেছিল সবার সাথে….সামনের মাস থেকে আবার খুশীর বাসায় কাজ শুরু করবে এমনটাই কথা ছিল…. কিন্তু আজ সকালে খুশী আমাকে ফোন করে জানালো, কুলসুম নেই…… আমাদের কাউকে না জানিয়েই একটা ছোট্ট অ’পা’রে’শ’নে’র জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল কুলসুম।অ’পা’রে’শ’নে’র পর আর জ্ঞা’ন ফেরেনি কুলসুমের… আজ সকালে সে পরপারে চলে গেল।

অনেক আপনজনের মৃ”ত্যু”ও আমাকে এতটা ব্যথিত করেনি। সংবাদটা শোনার পর শুটিং এর কাজে বের হয়ে পড়ি… গাড়িতে বসে বার বার কুলসুম এর মুখখানা ভেসে উঠছিল চোখের সামনে,কানে বাঁজছিল ওর মুখের ‘ভাইয়া’ ডাক। মনের অজান্তেই বার বার চোখ ভিঁজে যাচ্ছে….. লাইট…ক্যামেরা… এ্যাকশান…কোনো কিছুই আমাকে কুলসুমের মুখটা ভুলতে দিচ্ছে না… কুলসুমের জন্য আমরা কিছুই করতে পারলাম না… খুব গোপনে, ভয়ে কুলসুম আমাদের কাছ থেকে পালিয়ে গেল চিরতরে।

আমি শুটিং সেটে বসে স্পস্ট দেখতে পাচ্ছি দিব্য, সৌম্য,বৃন্দাবনদা আর খুশীর চোখের জল….. তাহলে কী কুলসুমকে আমরা বেশি ভালোবাসতাম, নাকি কুলসুম আমাদেরকে???? ক্ষমা চাই কুলসুম…. তোমাদেরকে আমরা কখনোই এতটা ভালোবাসতে পারি না…!! যতটা তোমরা আমাদের বাসো…..!! এবার তুমি শান্তিতে ঘুমাও কুলসুম।

উল্লেখ্য, এই কুলসুম চঞ্চল চৌধুরী কে বড় ভাইয়ের মত দেখতেন। যার কারণে তাদের মধ্যে অনেক ভালো সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এমনকি কুলসুম যখন অসুস্থ ছিলেন চঞ্চল চৌধুরী তার খোঁজ নিয়েছেন। তবে তিনি আর সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরতে পারলেন না। সবাইকে ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন কুলসুম। তার এমন চলে যাওয়ায় চঞ্চল চৌধুরী সহ আরও অনেকে শোক প্রকাশ করেছেন। এদিকে, তার চলে যাওয়ায় তার জন্য দোয়া করছেন সবাই।

About

Check Also

হঠাৎ না ফেরার দেশে জনপ্রিয় অভিনেতা, শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের অভিনেতা পার্থসারথি দেব। শুক্রবার (২২ মার্চ) কলকাতার বাঙ্গুর হাসপাতালে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *