বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে ’আসল বিএনপি’র নেতা কামরুল ইসলাম নাসিম বলেছেন, ’তার নেতৃত্বে বিশাল সমস্যা, ব্যাপক ঘাটতি আছে, তার নেতৃত্বের কোনো গুণাবলিই নেই...রাজরক্তের বাইরে তার কিচ্ছু নেই।’
’তারেক রহমান কেন বলে না যে, হাসিনা আন্টি আমি দেশে আসছি। আমাকে জেলে রাখেন কিন্তু আমার মাকে ছেড়ে দিন। এ কেমন ছেলে!’

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
তারেক রহমানের কথায় নাশকতা করা যাবে না জানিয়ে ’আসল বিএনপি’র নেতা বলেন, ’অনেক সুযোগ তাঁকে দেয়া হয়েছে। তিনি যদি ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশে না আসেন তবে দল নিয়ে তাঁর না ভাবলেও চলবে।’
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ’মা’ সম্বোধন করে বিএনপি পুনর্গঠনের ঘোষণা দিয়ে সাড়ে তিন বছর আগে সক্রিয় হওয়া নাসিম বলেন, ’মা বেগম জিয়া দুষ্টু হলেও মা তো মা-ই-ই। তাঁকে বিশ্রাম দেয়া হোক। দল গণতান্ত্রিক উপায়ে চলবে।’
তিনি বলেন, ’আজ দলের নেতৃত্ব কার কাছে? তারেক রহমানের কাছে, বেগম জিয়ার কাছে, মির্জা ফখরুলের কাছে? মোটেই না...আমার কাছেই দল।’
’জ্যেষ্ঠ নেতাদের সাথে আলোচনা করেই বলছি...ধানের শীষে মনোনয়নও আমরাই দেব।’
নাসিম বলেন, ’আমার সাথে দলের জ্যেষ্ঠ ও মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩২০ জন নেতার সাথে কথা হয়েছে, তারা জামায়াতমুক্ত রাজনৈতিক দল নিয়ে নির্বাচনে যেতে যায়। তারা আমাকে মৌন সম্মতি দিয়েছেন।’
বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ’আপনারা আমার সাথে বসুন। জামায়াত ও দুষ্টু দলগুলো ছাড়ুন। তারেক রহমানকে স্যারেন্ডার করতে বলুন, আর মা বেগম জিয়াকে বিশ্রাম দেওয়া হোক।’
খালেদা জিয়ার উদ্দেশে নাসিম বলেন, ’আপনি ক্ষমা চান স্রষ্টার কাছে। বই পড়ুন, নামাজ পড়ুন আর বিশ্রাম নিন। আর জেদ কমিয়ে শারীরিক চেকআপটা সরকার যে হাসপাতালে দিতে চায়--- চলে যাবেন।’
’মা বেগম জিয়ার জন্য বলছি, আপনি ৬০/৭০টা আসন নিয়ে বিরোধী দলে যাওয়ার চিন্তা করবেন না। আপনার এমন চিন্তা হতে দূরে সরে আসুন। শহীদ জিয়া ফাইটার ছিলেন--- বিএনপি ফাইট করবে বুদ্ধিবৃত্তিক রাজনীতির মাধ্যমে। খবরদার জেলে থেকে ৬০/৭০ টা আসন নিয়ে বিএনপিকে ক্রমান্বয়ে অস্তিত্বহীন করার উদ্যোগে অযাচিত সিদ্ধান্ত নেবেন না।’
উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে বিএনপি-জামায়াত জোটের সরকার পতনের আন্দোলনের মধ্যে ’আসল বিএনপি’ নাম নিয়ে সক্রিয় হন কামরুল ইসলাম নাসিম। তিনি দিন তারিখ জানিয়ে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয় দখলেরও ঘোষণা দেন। তবে একাধিকবার বিএনপির নেতা-কর্মীদের প্রতিরোধের মুখে পিছু হটে ’আসল বিএনপি’।
নাসিমকে বরাবরই ’মানসিক ভারসাম্যহীন’ বলে এসেছেন বিএনপি নেতারা।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

'তারেক রহমান কেন বলে না যে, হাসিনা আন্টি আমি দেশে আসছি': কামরুল ইসলাম নাসিম
Logo
Print

রাজনীতি Hits: 2934

 

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সমালোচনা করে ’আসল বিএনপি’র নেতা কামরুল ইসলাম নাসিম বলেছেন, ’তার নেতৃত্বে বিশাল সমস্যা, ব্যাপক ঘাটতি আছে, তার নেতৃত্বের কোনো গুণাবলিই নেই...রাজরক্তের বাইরে তার কিচ্ছু নেই।’
’তারেক রহমান কেন বলে না যে, হাসিনা আন্টি আমি দেশে আসছি। আমাকে জেলে রাখেন কিন্তু আমার মাকে ছেড়ে দিন। এ কেমন ছেলে!’

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

শনিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
তারেক রহমানের কথায় নাশকতা করা যাবে না জানিয়ে ’আসল বিএনপি’র নেতা বলেন, ’অনেক সুযোগ তাঁকে দেয়া হয়েছে। তিনি যদি ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দেশে না আসেন তবে দল নিয়ে তাঁর না ভাবলেও চলবে।’
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে ’মা’ সম্বোধন করে বিএনপি পুনর্গঠনের ঘোষণা দিয়ে সাড়ে তিন বছর আগে সক্রিয় হওয়া নাসিম বলেন, ’মা বেগম জিয়া দুষ্টু হলেও মা তো মা-ই-ই। তাঁকে বিশ্রাম দেয়া হোক। দল গণতান্ত্রিক উপায়ে চলবে।’
তিনি বলেন, ’আজ দলের নেতৃত্ব কার কাছে? তারেক রহমানের কাছে, বেগম জিয়ার কাছে, মির্জা ফখরুলের কাছে? মোটেই না...আমার কাছেই দল।’
’জ্যেষ্ঠ নেতাদের সাথে আলোচনা করেই বলছি...ধানের শীষে মনোনয়নও আমরাই দেব।’
নাসিম বলেন, ’আমার সাথে দলের জ্যেষ্ঠ ও মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩২০ জন নেতার সাথে কথা হয়েছে, তারা জামায়াতমুক্ত রাজনৈতিক দল নিয়ে নির্বাচনে যেতে যায়। তারা আমাকে মৌন সম্মতি দিয়েছেন।’
বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ’আপনারা আমার সাথে বসুন। জামায়াত ও দুষ্টু দলগুলো ছাড়ুন। তারেক রহমানকে স্যারেন্ডার করতে বলুন, আর মা বেগম জিয়াকে বিশ্রাম দেওয়া হোক।’
খালেদা জিয়ার উদ্দেশে নাসিম বলেন, ’আপনি ক্ষমা চান স্রষ্টার কাছে। বই পড়ুন, নামাজ পড়ুন আর বিশ্রাম নিন। আর জেদ কমিয়ে শারীরিক চেকআপটা সরকার যে হাসপাতালে দিতে চায়--- চলে যাবেন।’
’মা বেগম জিয়ার জন্য বলছি, আপনি ৬০/৭০টা আসন নিয়ে বিরোধী দলে যাওয়ার চিন্তা করবেন না। আপনার এমন চিন্তা হতে দূরে সরে আসুন। শহীদ জিয়া ফাইটার ছিলেন--- বিএনপি ফাইট করবে বুদ্ধিবৃত্তিক রাজনীতির মাধ্যমে। খবরদার জেলে থেকে ৬০/৭০ টা আসন নিয়ে বিএনপিকে ক্রমান্বয়ে অস্তিত্বহীন করার উদ্যোগে অযাচিত সিদ্ধান্ত নেবেন না।’
উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে বিএনপি-জামায়াত জোটের সরকার পতনের আন্দোলনের মধ্যে ’আসল বিএনপি’ নাম নিয়ে সক্রিয় হন কামরুল ইসলাম নাসিম। তিনি দিন তারিখ জানিয়ে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয় দখলেরও ঘোষণা দেন। তবে একাধিকবার বিএনপির নেতা-কর্মীদের প্রতিরোধের মুখে পিছু হটে ’আসল বিএনপি’।
নাসিমকে বরাবরই ’মানসিক ভারসাম্যহীন’ বলে এসেছেন বিএনপি নেতারা।
Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.