আরো পড়ুন

Error: No articles to display

ভোট দিতে ভোটারদের উৎসাহের একটি নমুনা দেখা গেল খুলনার ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের রহিমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে। সকাল আটটার আগেই লাইনে দাঁড়ানো ভোটাররা নির্ধারিত সময়ে ভোট শুরুর অপেক্ষায় থাকলেও সেখানে মিনিট পাঁচেক বিলম্বের অভিযোগ উঠে।
আর এ সময় ভোটাররা নাখোশ হন। নব্বই বছর বয়সী কাজী ফখরুল ইসলাম তো রীতিমতো ক্ষুব্ধ। বলেন, জীবনে কখনও এটা তিনি দেখেননি।
বয়সের ভারে স্বাভাবিক চলাফেরা করতে পারেন না ফখরুল। লাঠিতে ভর করে স্বজনের সঙ্গে এসেছেন কেন্দ্রে। অতিরিক্ত সময় অপেক্ষার কারণে অসন্তোষ ঝরে পড়ে তার কণ্ঠে। ঢাকাটাইমসকে তিনি বলেন, \’১৯৪৭ সাল থেকে ভোট দিয়ে আসছি। ঠিক সময়ে ভোট দিয়ে আসছি। এখন তো আটটা পার হইছে ভোট নেয়া শুরু হয় নাই।\’

কথা শুনে একজন আনসার সদস্য এগিয়ে আসেন ফখরুলকে তৃতীয় তলায় বুথে নিয়ে যেতে। তখন ঘড়িতে বাজে আটটা ছয় মিনিট।
ঠিক তখনই তৃতীয় তলা থেকে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা পার্থ চ্যাটার্জি নিচ থেকে ভোটার পাঠাতে বলেন। বলেন, \’এই ভোটার পাঠান না কেন? ভোট তো শুরু হয়ে গেছে।\’ তখন একে একে ভোটাররা কেন্দ্রে ঢুকে ভোট দেয়া শুরু করেন।
বিলম্বে ভোটগ্রহণের বিষয়ে প্রিজাইডিং কর্মকর্তা বলেন, \’ভোট আটটা বাজেই শুরু হয়েছে। কিন্তু খবর নিচে পৌঁছায়নি মনে হয়।\’
পরে নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে বের হওয়ার সময়ও কথা হয় কাজী ফখরুল ইসলামের সঙ্গে। বললেন, \’আমি টাইম লস্টের পক্ষে না। ৪৭ সাল থেকে ভোট দিছি, এমন তো হয়নি।\’
বাংলাদেশ বেতার থেকে ২০১০ সালে অবসরে গেছেন ফখরুল।
             

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display