আবারো আলোচনা সমালোচনা শুরু হেয়েছে ভারতে। আর এবারের বিষয়ের মধ্যেমণি হিসেবে রয়েছেন মার্কিন সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। সম্প্রতি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার স্মৃতিকথা ’আ প্রমিসড ল্যান্ড’ বইয়ে রাহুল গান্ধী সম্পর্কে যে বক্তব্য রয়েছে, তা ঘিরে ইতিমধ্যেই বিতর্ক শুরু হয়ে গেছে দেশটিতে। কেবল কংগ্রেসই নয়, শিব সেনাও কটাক্ষ করেছে ওবামাকে। এই পরিস্থিতিতে জানা গেল, ওবামার বইতে মনমোহন সিংয়ের প্রধানমন্ত্রী হওয়া সম্পর্কেও বিস্ফোরক দাবি করা হয়েছে, যা ইতিমধ্যেই বিজেপির হাতিয়ার হতে শুরু করেছে।

এমনিতে মনমোহন সম্পর্কে ঢালাও প্রশংসাই করেছেন ওবামা। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেছেন, ’উনি একজন নিরাসক্ত ন‌্যায়পরায়ণ ব‌্যক্তি।’

১৯৯০ সালে ভারতে অর্থনীতির উদারীকরণ শুরু হয়। এই বাজার নির্ভর অর্থনীতির প্রধান রূপকার হিসেবে মনমোহন সিংয়ের নাম করেছেন ওবামা। সংখ্যালঘু শিখ সম্প্রদায়ের একজন সদস্য হিসেবেও শেষপর্যন্ত তিনি দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন বলে উল্লেখ করেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।
মনমোহন সিংকে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়ে তিনি জানিয়েছেন, ভারতের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী মানুষের বিশ্বাস অর্জন করেছিলেন। কোনও প্রতিশ্রুতি দিয়ে নয়, সত্যিই মানুষের জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন ঘটিয়ে সেটা পেয়েছিলেন তিনি। পাশাপাশি তার দুর্নীতির সংস্রব এড়িয়ে চলা স্বচ্ছ ভাবমূর্তিরও প্রশংসা করেছেন ওবামা।

মনমোহন সিংয়ের প্রধানমন্ত্রিত্ব সম্পর্কে এত কথা বলার মাঝেই বিতর্কে ইন্ধন জুগিয়ে ওবামা লেখেন, ভারতীয় রাজনীতি ধর্ম, জাতপাতের মধ্যেই নিমজ্জিত রয়েছে। মনমোহনের প্রধানমন্ত্রীর মসনদে বসাকে অনেকেই সাম্প্রদায়িক বিভাজনের ঊর্ধ্বে উঠে দেশের উন্নতির এক প্রতীক বলে মনে করে। কিন্তু আসল ব্যাপারটা আদৌ তা নয়।

ওবামা পরিষ্কার দাবি করেছেন, "একাধিক রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মনে করেন, সোনিয়া গান্ধী মনমোহনকে বেছে নিয়েছিলেন, তার পিছনে কারণ ছিল। আসলে সেই অর্থে জাতীয় রাজনীতিতে কোনও ভিত না থাকা একজন অগ্রজ শিখ নেতা তার চল্লিশ বছরের ছেলের জন্য ঝুঁকিবহুল হবেন না, এটা বুঝতে পেরেই তাকে প্রধানমন্ত্রী করেন সোনিয়া গান্ধী।"

তবে কেবল কংগ্রেসই নয়, বিজেপিকেও অস্বস্তিতে ফেলেছেন প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সমালোচনা করেছেন গেরুয়া শিবিরের ’বিভাজনমূলক রাজনীতি’র। লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা অধীর চৌধুরী ইতিমধ্যেই ওবামাকে আক্রমণ করেছেন। রাহুল গান্ধীকে ’শিক্ষককে তুষ্ট করার চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া ছাত্র’ বলেছেন ওবামা। সেই প্রসঙ্গে অধীর তাকে ’কুয়োর ব্যাঙ’ মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসার হুঁশিয়ারি দেন। শিব সেনা নেতা সঞ্জয় রাউত প্রশ্ন তুলেছেন, "ওবামা এই দেশ সম্পর্কে কতটুকু জানেন?"


এ দিকে ওবামার এই নিয়ে ধরনের মন্তব্য নিয়ে সারা ভারত বর্ষ একেবারেই ফুসেঁ উঠেছে। দেশের সাধারন মানুষ থেকে শুরু নেতা নেত্রীরা সবাই এই বিষয়টি নিয়ে বেশ সমালোচনায় মেতে উঠেছেন। তবে এ নিয়ে এখনো ওবামার কোন ধরনের মন্তব্য শোনা যায়নি।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

এবার পাকিস্তানিদের ভিসা বন্ধ করলো আরব আমিরাত, জানা গেল কারন

21 November, 2020 | Hits:215

আবারো আলোচনায় পাকিস্তান আর আরব আমিরাতের সম্পর্ক। তবে এবার বেশ খানিকটা সমালোচনাও হচ্ছে এই দু’দেশের সম্পর্কে। জানা গেছে সং...

তবে কি সত্যিই ক্ষমতা ছেড়ে দিচ্ছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন

23 November, 2020 | Hits:115

রাশিয়া পৃথিবীর অন্যতম শক্তিধর একটি দেশ। দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিযুক্ত রয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন। তার নাম সারা বিশ্বেই ছ...

ডিসেম্বর মাস এলেই এই সমাধিতে জ্বলে ওঠে আলো, জানা গেল কারন

22 November, 2020 | Hits:112

মানুষের সর্বশেষ আশ্রয়স্থল কবর বা সমাধিস্থল। একটা মানুষের জীবনের জন্ম থেকে শুরু করে মৃত্যু পর্যন্ত অনেক আশ্রয়ের খোজ থাকলে...