প্রতিবছর বিবিসি সারা বিশ্বব্যপাই নারীদিনের জীবনে মান উন্নয়নে সহায়তা করার জন্য এবং বিশেষ অবদান রাখা জন্য বিভিন্ন দেশের নারীদের নিয়ে একটি তালিকা প্রকাশ করে থাকে। আর তা হলো বিশ্বের প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকা। এবারও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। এ নিয়ে বিবিসি বলছে এবার একশ নারী নির্বাচনের ক্ষেত্রে যে বিষয়টিতে হাইলাইট করেছে তা হলো যারা পরিবর্তন আনতে নেতৃত্ব দিয়েছন এবং মহামারির এই কঠিন সময়েও তাদের কাজের মাধ্যমে নিজেদের আলাদা করতে সক্ষম হয়েছেন।
তালিকায় আছেন ফিনল্যান্ডের কোয়ালিশন সরকার যার প্রতিটি সদস্য নারী তার প্রধান স্যান্না ম্যারিন এবং অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনা ভাইরাস টিকা গবেষণা দলের প্রধান সারাহ গিলবার্ট।

পাকিস্তানি অভিনেত্রী মাহিরা খান ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর দারিদ্র বিমোচন বিষয়ক বিশেষ সহকারী সানিয়া নিশতার, ভারতের নাগরিকত্ব আইনবিরোধী আন্দোলনে অংশ ৮২ বছর বয়সী বিলকিস বানুসহ আরও অনেকে সুপরিচিত ব্যক্তিত্বের সাথে এ তালিকাতেই ঠাঁই পেয়েছেন বাংলাদেশের রিনা আক্তার ও রিমা সুলতানা রিমু।
রিনা আক্তারের সম্পর্কে বিবিসি’র বর্ণনায় বলা হয়েছে মাত্র আট বছর বয়সে তার এক আত্মীয় তাকে ’/প’/তি’/তা’/ল’/য়ে’/ বিক্রি করে দিয়েছিলো। সেখানেই তিনি বেড়ে ওঠেন ও পরে যৌ’/ন’/ক’/র্মী’/তে’/ পরিণত হন। কিন্তু এখন তিনি অন্য যৌ’/ন’/ক’/র্মী’/দে’/র’/ জীবনমানের উন্নয়নে কাজ করছেন।

করোনাভাইরাস মহামারির সময়ে রিনা ও তার টিম ঢাকায় প্রতি সপ্তাহে অন্তত চারশো ’/যৌ’/ন’/ক’/র্মী’/কে’/ খাবার সরবরাহ করেছেন। এসব’ ’/যৌ’/ন’/ক’/র্মী’/রা’/ মহামারির কারণে চরম অর্থনৈতিক দুরাবস্থায় পড়েছেন।

রিনা আক্তার বিবিসিকে বলেছেন, লোকজন আমাদের পেশাকে ছোটো করে দেখে কিন্তু আমরা এটি করি খাবার কেনার জন্য। আমি চেষ্টা করছি যাতে এই পেশার কেউ না খেয়ে থাকে এবং তাদের বাচ্চাদের যেন এ কাজ করতে না হয়।

অন্যদিকে রিমা সুলতানা রিমু একজন শিক্ষক এবং তিনি কক্সবাজার ভিত্তিক ইয়াং উইমেন লিডার্স ফর পিস এর একজন সদস্য। এ কর্মসূচিটি গ্লোবাল নেটওয়ার্ক অব উইমেন পিসবিল্ডার্স এর অংশ যার মূল উদ্দেশ্য সংঘাতসঙ্কুল দেশগুলো থেকে আসা তরুণ নারীদের ক্ষমতায়ন করা যাতে করে তারা নেতৃত্ব দেয়া ও শান্তির এজেন্টে পরিণত হবেন।

রিমা তার মানবিক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেছেন রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিস্থিতি মোকাবেলায়। রোহিঙ্গা শরণার্থী বিশেষ করে নারী ও শিশুদের যাদের শিক্ষার সুযোগ নেই তাদের জন্য লিঙ্গ সংবেদনশীল ও বয়সভিত্তিক স্বাক্ষরতা কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন তিনি।

রেডিও ব্রডকাস্ট ও থিয়েটার পারফরম্যান্সের মাধ্যমে তিনি নারী, শান্তি ও নিরাপত্তা বিষয়ে জাতিসংঘের সিদ্ধান্তগুলো সম্পর্কে সচেতনতা তৈরিতেও কাজ করেছেন তিনি। "আমি বাংলাদেশে লিঙ্গ সমতা আনতে অঙ্গীকারাবদ্ধ। অধিকার আদায়ের জন্য নারীর শক্তিতে আমি বিশ্বাস করি," বিবিসিকে বলেন তিনি।


এ দিকে বিবিসির এই তালিকায় বাংলাদেশী দুজন নারীদের ঠাই পাবার বিষয়টি বেশ ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন সকলে। জানা গেছে এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলেই বেশ উচ্ছ্বাসিত হয়েছেন এই বিষয়টির জন্য। ভবিষ্যতেও এই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে বলে আশা সকলের।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

নতুনদের ভিড়ে বাদ পড়লেন যারা

06 March, 2021 | Hits:272

ভারতের পশ্চিম বঙ্গে হাওয়া উঠেছে নির্বাচনের। আর এই কারনে এখন সব থেকে আলোচনার মধ্যে রয়েছে এই খবরটিই। পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন বিধ...

সমাজ আমাকে রূপান্তরিত নারী হতে বাধ্য করেছে : তাসনুভা

07 March, 2021 | Hits:138

বাংলাদেশের টক অব দ্যা টাউনে পরিনীত হয়েছে এখন একটা বিষয়। আর তা হলো ৩য় লি’/ঙ্গে’/র’/ উত্থান। একটা সময়ে যারা সমাজের সব থেকে...