বলিউডের গানের জগতের বড় একটি নাম হিমেশ রেশমিয়া। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে রাজ করে যাচ্ছেন। শুধু সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে নয় একজন সঙ্গীত পরিচালক হিসেবেও বেশ জনপ্রিয়।তবে ক্যারিয়ারে তিনি জড়িয়েছেন নানা ধরনের সব সমালোচনাতেও।হিমেশ রেশামিয়া নিজেকে এক সময় কিংবদন্তি সঙ্গীত পরিচালক রাহুল দেব বর্মণের (আর ডি বর্মণ) তুলনা করেছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, আর ডি বর্মণও তার মতোই কিছুটা ’নাকি সুরে’ গান করতেন। তবে হিমেশের এই মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি বর্ষীয়ান গায়িকা আশা ভোঁসলে।
আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পেশাগত জীবনের শুরু একের পর এক হিট গান উপহার দিলেও তার গান গাওয়ার ধরন নিয়ে অস্বস্তি প্রকাশ করতেন শ্রোতাদের একাংশ। সে সময় ’নাকি সুরে’ গান গাওয়ায় তুমুল বিদ্রুপের পাত্র হয়েছিলেন তিনি।

২০০৬ সালে এসব বিদ্রুপের জবাবেই আর ডি বর্মণের প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। তার বক্তব্য ক্ষেপে গিয়েছিলেন আশা। এক সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন, ’কেউ যদি বলেন বর্মণ সাহেব নাক দিয়ে গাইতেন, তাকে চড় মারা উচিত।’

তবে একটা পর্যায়ে এসে নিজের ভুল বুঝতে পারেন হিমেশ। তিনি এতে তেমন একটি দেরী করেননি। তিনি আশা ভোসলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন খুব শিঘ্রই। এবং দ্রুত বিতর্কের ইতি টানতে আশার কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন তিনি।

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

হিমেশকে চড় মারতে চেয়েছিলেন আশা ভোঁসলে,দীর্ঘদিন পরে প্রকাশ সেই কারন
Logo
Print

বিনোদন Hits: 464

 

বলিউডের গানের জগতের বড় একটি নাম হিমেশ রেশমিয়া। দীর্ঘদিন ধরেই তিনি সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে রাজ করে যাচ্ছেন। শুধু সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে নয় একজন সঙ্গীত পরিচালক হিসেবেও বেশ জনপ্রিয়।তবে ক্যারিয়ারে তিনি জড়িয়েছেন নানা ধরনের সব সমালোচনাতেও।হিমেশ রেশামিয়া নিজেকে এক সময় কিংবদন্তি সঙ্গীত পরিচালক রাহুল দেব বর্মণের (আর ডি বর্মণ) তুলনা করেছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, আর ডি বর্মণও তার মতোই কিছুটা ’নাকি সুরে’ গান করতেন। তবে হিমেশের এই মন্তব্য মেনে নিতে পারেননি বর্ষীয়ান গায়িকা আশা ভোঁসলে।
আনন্দবাজার পত্রিকার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পেশাগত জীবনের শুরু একের পর এক হিট গান উপহার দিলেও তার গান গাওয়ার ধরন নিয়ে অস্বস্তি প্রকাশ করতেন শ্রোতাদের একাংশ। সে সময় ’নাকি সুরে’ গান গাওয়ায় তুমুল বিদ্রুপের পাত্র হয়েছিলেন তিনি।

২০০৬ সালে এসব বিদ্রুপের জবাবেই আর ডি বর্মণের প্রসঙ্গ টেনে আনেন তিনি। তার বক্তব্য ক্ষেপে গিয়েছিলেন আশা। এক সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন, ’কেউ যদি বলেন বর্মণ সাহেব নাক দিয়ে গাইতেন, তাকে চড় মারা উচিত।’

তবে একটা পর্যায়ে এসে নিজের ভুল বুঝতে পারেন হিমেশ। তিনি এতে তেমন একটি দেরী করেননি। তিনি আশা ভোসলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন খুব শিঘ্রই। এবং দ্রুত বিতর্কের ইতি টানতে আশার কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন তিনি।

Template Design © Joomla Templates | GavickPro. All rights reserved.