ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শামসুন্নাহার হল সংসদের ভিপি শেখ তাসনিম আফরোজ ইমির শরীরে প্রভাবশালী ছাত্রনেতারা হাত দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ প্রসঙ্গে ইমি বলেন, ’ছোট ভাই সাথে না থাকলে আজকে ছিঁড়ে খেয়ে ফেলত আমাকে’

আরো পড়ুন

Error: No articles to display

মঙ্গলবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম (এসএম) হলের প্রাধ্যক্ষের কাছে স্মারকলিপি দিতে গেলে এ ঘটনা ঘটে।

ইমি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‌’আমরা যখন হলের সামনে স্যারদের সাথে কথা বলছিলাম, তখন ওরা আবারও আমাদের উপর হামলা করে। ছোট ভাই অনিক সাথে না থাকলে আজকে ছিঁড়ে খেয়ে ফেলত আমাকে। আমি বিচার না পেয়ে হলে যাব না আজকে। এখন ভিসি স্যারের বাসভবনের সামনে আমরা কয়েকজন যারা সবসময়ই কোনো বিপদ আসলে প্রতিবাদ করি, প্রতিরোধ গড়ে তুলি, তারাই অবস্থান করছি। এত এত ছাত্রছাত্রী আমার ঢাবিতে, বাকিদের তো কোনো দায় নেই। আপনাদের আমাদের পাশে দাঁড়াবারও প্রয়োজন নেই। আপনারা চিলই করতে থাকেন। আমরাই পড়ে পড়ে মার খেয়ে যাই সারাজীবন।’

এছাড়াও শামসুন্নাহার হল সংসদের ভিপি ফেসবুক লাইভে এসে বলেন, ’আপনারা সবাই জানেন যে, ফরিদের সঙ্গে কী হয়েছিল গতকাল রাতে। আজ যখন আমরা প্রভোস্ট স্যারের কাছে স্মারকলিপি দিতে এসেছি, আমি একটা হলের নির্বাচিত ভিপি। আমি তাদের (ছাত্রলীগ) মতো কারচুপি করে নির্বাচিত হইনি। তারা আমার গায়েও ডিম মেরেছে।’

শামসুন্নাহার হলের ভিপি বলেন, ’আমি এখন প্রক্টর অফিসে যাবো, আমি এর বিচার চাই। আমি দেখেছি, রায়হান ছিল, নাজমুল ছিল। ওখানে আরও যারা ছিল আমি সবাইকে চিনি। এই হলের (এমএম হল) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তাপস ছিল। সে নিজে একটা অছাত্র। সে আমার সঙ্গে বেয়াদবি করেছে। সিমন ছিল, সে আমার গায়ে হাত দিয়েছে।’

এ ঘটনার বিচার চেয়ে ইমি বলেন, ’এই হয়রানির বিচার চাই। এর যদি বিচার না হয়, আমি এর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপে যাওয়ার ঘোষণা দিচ্ছি।’

News Page Below Ad

আরো পড়ুন

Error: No articles to display