রাজশাহী থেকে ছেড়ে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দগামী আন্ত:নগর মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিট থাকার পরেও যাত্রীদের কাছ থেকে জোর পূর্বক ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে রাজবাড়ী রেলওয়ে থানার কর্তব্যরত সহকারী পুলিশ পরিদর্শক (এএসআই) আসাতুর রহমানকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।
রাজবাড়ী রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আকবর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গত রবিবার ০৯জুন প্রথম আলোর সাংবাদিক আমাকে জানান, ট্রেনের যাত্রীদের কাছ থেকে আসাতুর রহমান টাকা নিয়েছে। ঐ সাংবাদিকের তথ্য অনুযায়ী আমি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানাই। পরে (জি.আর.পি) রেলওয়ে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে মঙ্গলবার ওই সহকারী পুলিশ পরিদর্শককে (সহকারী দারোগা) শাস্তিমূলকভাবে রাজবাড়ী থেকে প্রত্যাহার করে পাকশী সার্কেলে নেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে রাজশাহী থেকে রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ গামী ওই ট্রেনের কর্তব্যরত পরিচালক মোঃ রাজু আহম্মেদ জানান, গত রবিবার ওই ট্রেনের দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের ওই কর্মকর্তা টিকেট বিহীন যাত্রীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে অর্থ আদায়সহ বেশ কিছু অনিয়মের করেছে।

এ বিষয়ে প্রথম আলোর সাংবাদিক এজাজ আহাম্মেদ জানান, একটি নিউজের বিষয়ে কালিখুলি রেল স্টেশনে অবস্থান করছিলাম এমন সময় রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা গোয়ালন্দ গামী মধুমতি ট্রেনটি স্টেশনে এসে দাঁড়ায়। এমন সময় এএসআই আসাতুর রহমান এক জন যাত্রীর কাছ থেকে জোর করে টাকা আদায় করছিলো। আমি তার এমন আচরণ দেখে ভিডিও করি। পরে তার কাছে জানতে চাই কেন টাকা নিলেন তিনি আমার প্রশ্নের কোন উত্তর না দিয়ে ট্রেনে উঠে চলে যায়। পরে সে আমাকে বিভিন্নভাবে ম্যানেজ করার চেষ্টা করে। তাৎক্ষণিক বিষয়টি আমি রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আকবর হোসেনকে জানাই।
-সময়ের কণ্ঠস্বর